Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ০৫ মাঘ ১৪২৭, ০৫ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

১৫ নারী ও ৩০ পুরুষ যৌন নির্যাতনের শিকার : রিপোর্ট

ফেব্রুয়ারিতে সংঘর্ষকালে দিল্লি পুলিশের হাতে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০২০, ১২:০১ এএম

ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে (সিএএ) গত ১০ ফেব্রুয়ারি জামিয়া নগরে বিক্ষোভকালে সংঘর্ষের সময় দিল্লী পুলিশের হাতে অন্তত ৪৫ ব্যক্তি যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে। বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক রিপোর্টে ন্যাশনাল ফেডারেশন অব উইমেন (এনএফআইডব্লিউ) এই তথ্য প্রকাশ করে। ৬৬ বছরের পুরনো এই নাগরিক আন্দোলনের প্লাটফর্মটির বর্তমান নেতৃত্বে রয়েছেন অরুনা রায়। স্বাধীনতা সংগ্রামী অরুনা আসফ আলি এই সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা। জামিয়া মিল্লিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সিএএ-র প্রতিবাদে পার্লামেন্ট অভিমুখে পদযাত্রার আয়োজন করলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। ফলে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। বিক্ষোভে জামিয়া নগরের অধিবাসীরাও অংশ নেয় বলে জানা যায়। সংঘর্ষের পর একটি তথ্য অনুসন্ধানী মিশন পরিচালনা করে এনএফআইডব্লিউ। এতে দেখা যায়, এই মুখোমুখির ঘটনায় ১৫-৬০ বছর বয়সী প্রায় ৭০ ব্যক্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এসময় দিল্লী পুলিশ টার্গেট করে নারী ও অন্যান্য বিক্ষোভকারীর উপর যৌন হামলা করে। রিপোর্টে বলা হয়, পুরুষ পুলিশ সদস্যরা মেয়েদেরকে শারীরিকভাবে অপদস্ত করে, তাদের পোশাক ছিঁড়ে ফেলে। তাদের স্তনে আঘাত করে। এমনকি যোনীদেশে ব্যাটন প্রবেশ করানোর চেষ্টা চালায়। অন্তত ১৫ নারীর গোপন অঙ্গে আঘাত করা হয়েছে। তাদের যৌনাঙ্গ ক্ষতবিক্ষত হয়েছে। সাংবাদিক সম্মেলন করে এই রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়। পুরুষদের উপরও একইভাবে যৌন হামলা করা হয়। অন্তত ৩০ জন পুরুষের গোপন অঙ্গে ক্ষত সৃষ্টি হয়েছে বলে রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে। দি প্রিন্ট, এসএএম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত

১৮ জানুয়ারি, ২০২১
১৮ জানুয়ারি, ২০২১
১৭ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ