Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ২ বৈশাখ ১৪২৮, ০২ রমজান ১৪৪২ হিজরী

রিমান্ড শেষে তিন আসামি কারাগারে

পল্লবী থানায় বিস্ফোরণ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০২০, ১২:০০ এএম

রাজধানীর পল্লবী থানায় বিস্ফোরণের ঘটনায় গ্রেফতার তিন আসামির ১৪ দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আসামিরা হলেন- রফিকুল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম ও মোশাররফ। গতকাল মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। পরে শুনানি শেষে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।
এর আগে গত ৩০ জুলাই তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। সুষ্ঠু তদন্তের জন্য পল্লবী থানার অস্ত্র মামলায় ১০ ও বিস্ফোরক আইনে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। অন্যদিকে তাদের আইনজীবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মঈনুল ইসলাম অস্ত্র মামলায় সাত দিন ও বিস্ফোরক আইন মামলায় সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
এদিকে, এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার জামাল ও এনামুন নামের আরো দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়। পরে গতকাল তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে দশ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন পুলিশ। শুনানি শেষ ঢাকা মহানগর হাকিম ইলিয়াস মিয়া তাদের ছয়দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
উল্লেখ্য, গত ২৯ জুলাই ভোর রাতে পল্লবী-কালশী কবরস্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে পল্লবী থানা পুলিশ। তাদের কাছ থেকে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র, চারটি গুলি ও একটি ডিজিটাল ওয়েট মেশিনের মতো ডিভাইস উদ্ধার করা হয়। সেগুলো থানার ডিউটি অফিসারের রুমে রাখা হয়। সেইদিন সকালে ডিজিটাল ওজন মেশিনের মতো ডিভাইসটি বিস্ফোরিত হয়। বোমা বিস্ফোরণে থানার দ্বিতীয় তলার একটি ঘরের জানালার কাঁচ ভেঙে যায়। ডিজিটাল ডিভাইসটির মধ্যে দুটি তাজা বোমা রাখা ছিল। বিস্ফোরণে পল্লবী থানার পরিদর্শক ইমরানুল ইসলাম, এসআই সজীব খান, এসআই রুমি বেভরেজ হায়দায়, এএসআই অঙ্কুর কুমার ও সোর্স রিয়াজুল ইসলাম আহত হন। পরে ওই ঘটনা তদন্ত শুরু করে ডিএমপির গোয়েন্দা পুলিশ। তদন্তে মিরপুর বিভাগ ও পল্লবী থানা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আগে থেকেই বিষয়টি অবগত ছিলেন বলে উঠে এসেছে। পরে মিরপুর বিভাগের ডিসিসহ ছয় পুলিশ কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পল্লবী-থানা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ