Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ সফর ১৪৪২ হিজরী

দক্ষিণাঞ্চলে করোনা সংক্রমণ আগের দিনের তুলনায় বাড়লেও নতুন কোন মৃত্যু নেই

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০২০, ১:৫০ পিএম

বরিশাল,পটুয়াখালী ও পিরোজপুরে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির ফলে দক্ষিণাঞ্চলে করোনা সংক্রমণ আগের দিনের তুলনায় আরো কিছুটা বাড়ল। তবে শণিবার দুপুরের পূর্ববর্তি ২৪ ঘন্টায় এ অঞ্চলে করোনা সংক্রমণে কোন মৃত্যু সংবাদ ছিলনা। এসময়ে দক্ষিণাঞ্চলে নতুন করে ৮১ জন কোভিড-১৯ রোগী সনাক্তর কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্য দপ্তর। যা আগের দিন ছিল ৭২। ফলে মোট আক্রান্তর সংখ্যা দাড়িয়েছে ৬ হাজার ৭৩৪-এ। আর এক সপ্তাহের মধ্যে গতকালই সর্বনি¤œ সংখ্যক-২৯ জন রোগী সুস্থ হবার খবর দিয়েছে স্বাস্থ্য দপ্তর। এনিয়ে দক্ষিণাঞ্চলে মোট সুস্থ্য রোগীর সংখ্যা দাড়াল ৪ হাজার ৬৬৩ জনে।
দক্ষিণাঞ্চলে করোনা সংক্রমনে এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ১৩১ জনের। চলতি মাসের প্রথম ১৫ দিনেই বিভাগের ৬ জেলায় ৮৮৯ জন আক্রান্ত ও ১৫ জনের মৃত্যু হল। তবে গত মাসের প্রথম ১৫ দিনে দক্ষিণাঞ্চলে ১,২৩৬ জন আক্রান্ত ও ২৬ জনের মৃত্যু হয়। বরিশাল শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে গত ২৪ ঘন্টায় ২৮২ জনের নমুনা পরিক্ষায় ৬৯ জনের এবং ভোলাতে ২৭ জনের পরিক্ষায় ৭ জনের করোনা পজিটিভ সনাক্ত হয়েছে।
শণিবার দুপুরের পূর্ববর্তি ২৪ ঘন্টায় বরিশালে আক্রান্তের সংখ্যা আগের দিনের ২৯ থেকে বেড়ে ৩৩ হয়েছে। যে সংখ্যাটা ১৩ আগস্ট ছিল ২১ জন। দক্ষিণাঞ্চলে করোনার প্রধান হটস্পট বরিশালে এপর্যন্ত সরকারীভাবে ২,৮০৬ আক্রন্তের কথা বলা হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে অর্ধশত।
পটুয়াখালীতেও গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্তের সংখ্যা আগের দিনের ১০ থেকে ১৫ জনে উন্নীত হবার ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ১,১৬৯ জনে। মৃত্যু হয়েছে ৩৫ জনের। পিরোজপুরেও আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুন বেড়ে ১৩ থেকে ২৪ জনে উন্নীত হয়েছে। জেলাটিতে এ পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৮৫৩, মৃত্যু হয়েছে ১৪ জনের।
অপরদিকে বরগুনাতে আক্রান্তর সংখ্যা কিছুটা কমেছে। ভোলাতে সংখ্যাটা আগের দিনের সমানই রয়েছে। বরগুনায় আগের দিন আক্রান্তের সংখ্যা ১০ থেকে শণিবার ৩-এ হ্রাস পেয়েছে। তবে জেলাটিতে এ পর্যন্ত ৭৫৭ জন আক্রান্তের মধ্যে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর ভোলাতে গত ২৪ ঘন্টায়ও আক্রান্তের সংখ্যা আগের দিনের সমান ছয় রয়েছে। এ দ্বীপ জেলায় সর্বশেষ হিসেবনুযায়ী আক্রান্ত ৬০৪ জনের মধ্যে ৬জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যু হার ১%-এ নিচে। যা বিভাগের সর্বনিন্মে এবং করোনা সংক্রমণে জাতীয় মৃত্যু হারের চেয়েও কম।
অপরদিকে ঝালকাঠীতে গত ২৪ ঘন্টায় কোন আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থ হয়ে ওঠার খবর ছিলনা। জেলাটিতে এ পর্যন্ত ৫৪৫ জন আক্রান্তের মধ্যে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে।
এদিকে শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে শণিবার সকাল পর্যন্ত ৪৩ জন, আইসোলেশন ওয়ার্ডে ৪১ জন ও আইসিইউ’তে আরো ৯ জন চিকিৎসাধীন ছিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনা


আরও
আরও পড়ুন