Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭, ০৯ সফর ১৪৪২ হিজরী

বঙ্গবন্ধুর হত্যার মাধ্যমে স্বাধীনতার মূল চেতনার বিচ্যুতি ঘটে কুয়ালালামপুরে হাইকমিশনার শহীদুল ইসলাম

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০২০, ২:৫৫ পিএম

মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের হাইকমিশনার মুহাম্মদ শহীদুল ইসলাম বলেছেন, ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পরিবারের সদ্যস্যের হত্যার মাধ্যমে স্বাধীনতার মূল চেতনার বিচ্যুতি ঘটে। ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুকে শহীদ করলেও তার স্বপ্ন আদর্শকে নির্মূল করতে পারেনি। বঙ্গবন্ধুর চেতনা, স্বপ্ন ও আদর্শকে অনুসরণ করেই আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। আজ শনিবার সকালে কুয়ালালামপুরস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশনে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদত বার্ষিকী এবং জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় হাইকমিশনার শহীদুল ইসলাম প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। দিবসের শুরুতে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন ও জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, জাতির জনকের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এক মিনিট নীরবতা পালন এবং জাতির জনক, প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন, ১৫ আগস্টের সকল শহীদ, মুক্তিযোদ্ধা এবং দেশ ও জাতির কল্যাণ এবং সমৃদ্ধি কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। কাউন্সেলর (শ্রম-২) মো. হেদায়েতুল ইসলাম মন্ডলের সঞ্চালনায় করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে এসওপি মেনে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন করে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্টের বাণী পাঠ করেন হাইকমিশনের প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা কমোডর মুশতাক আহমেদ (জি), প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন ডেপুটি হাইকমিশনার মিজ ওয়াহিদা আহমেদ, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন কাউন্সেলর শ্রম মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন কাউন্সেলর কমার্সিয়াল মো. রাজিবুল আহসান।


হাইকমিশনার শহীদুল ইসলাম এ দিনের গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরে আরো বলেন, ১৫ আগস্ট বাঙ্গালি জাতির ইতিহাসে মর্মান্তিক ও বেদনাদায়ক ঘটনা এবং কলঙ্কময় দিন। জাতির পিতা সারাটা জীবন জেল, জুলুম ও অত্যাচার উপেক্ষা করে তাঁর অসাধারণ অসামান্য বীরোচিত নেতৃত্বের গুণে বিশ্বদরবারে বাংলাদেশ নামক একটি স্বাধীন জাতি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করেন। যুদ্ধ বিধ্বস্ত বাংলাদেশকে বিনির্মাণে তাঁর বুদ্ধিদীপ্ত সংগ্রামমুখর জীবনের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে যাবতীয় প্রতিকূলতা সত্বেও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। বহির্বিশ্বে স্বাধীন বাংলাদেশকে নিরপেক্ষ, শান্তিকামী ও উন্নয়নমুখী দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।
হাইকমিশনার বলেন, জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ভিশন ২০২১, ভিশন ২০৪১ এবং ডেল্টা প্লান ২১০০ বাস্তবায়ন করছে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত থেকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সরকার বর্তমান বন্যা এবং চলমান করোনাভাইরাস মহামারি অত্যন্ত সফলভাবে মোকাবেলা করছে। তিনি শোককে শক্তিতে পরিণত করে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে সকলকে দৃঢভাবে আত্মনিয়োগ করবার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন