Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১১ কার্তিক ১৪২৭, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

হাইকোর্টে শুনানির অপেক্ষায় হলি আর্টিজান মামলা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ আগস্ট, ২০২০, ১২:০১ এএম

প্রধান বিচারপতি বেঞ্চ নির্ধারণ করে দিলে হাইকোর্টে শুরু হবে হলি আর্টিজান জঙ্গি হামলা মামলার ডেথ রেফারেন্স এবং দন্ডিতদের জেল আপিল শুনানি। এরই মধ্যে প্রস্তুত হয়েছে পেপার বুক। হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় জমা পড়েছে এটি। গতকাল এ কথা জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের স্পেশাল অফিসার ব্যারিস্টার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান। 

তিনি বলেন, প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বেঞ্চ নির্ধারণ করে দিলেই শুরু হতে পারে শুনানি। তিনি আরও জানান, বিজিপ্রেস থেকে গত রোববার পেপারবুক হাইকোর্টের শাখায় এসে পৌঁছেছে। নিয়ম অনুসারে মামলার পেপারবুক প্রধান বিচারপতির কাছে পাঠানো হবে। তিনি মামলার শুনানির জন্য হাইকোর্টে বেঞ্চ গঠন করে দেবেন।
প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ১ জুলাই রাতে গুলশানের হলি আর্টিজান রেঁস্তোরায় হামলার ঘটনাটি ঘটে। ওইদিন হামলা চালিয়ে বিদেশি নাগরিকসহ ২০ জনকে হত্যা করে জঙ্গিরা। এ সময় জঙ্গিদের গুলিতে দুই পুলিশ সদস্য নিহত হন। পরে অভিযানে ৫ জঙ্গি নিহত হয়। ওই ঘটনায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে গুলশান থানায় মামলা দায়ের করে পুলিশ। বিচারিক আদালতের রায়ে ৭ আসামিকে মৃত্যুদন্ড ও একজনকে খালাস দেয়া হয়।
মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্তরা হলেন- হামলার মূল সমন্বয়ক তামিম চৌধুরীর সহযোগী আসলাম হোসেন ওরফে রাশেদ ওরফে আবু জাররা ওরফে র‌্যাশ, ঘটনায় অস্ত্র ও বিস্ফোরক সরবরাহকারী নব্য জেএমবি নেতা হাদিসুর রহমান সাগর, জঙ্গি রাকিবুল হাসান রিগ্যান, জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব ওরফে রাজীব গান্ধী, হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী আব্দুস সবুর খান (হাসান) ওরফে সোহেল মাহফুজ, শরিফুল ইসলাম ও মামুনুর রশিদ।
প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানাও করা হয়। আর অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এ মামলার অপর আসামি মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজানকে খালাস দেয়া হয়। আসামিরা এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন। প্রসিকিউশন রায় কার্যকরের লক্ষ্যে হাইকোর্টে ‘ডেথ রেফারেন্স’ আবেদন করে। হাইকোর্ট বিভাগে এখন উভয়পক্ষের আবেদন শুনানির অপেক্ষায়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হলি আর্টিজান মামলা
আরও পড়ুন