Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৪ কার্তিক ১৪২৭, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ২০ আগস্ট, ২০২০, ১২:০১ এএম

ভূগর্ভে হোক বৈদ্যুতিক লাইন

পরিপাটি সাজানো গোছানো দেশ সকলেরই কাম্য। কিন্তু নানা কারণে দেশটি সুন্দর হয়েও যেন হয়ে উঠে না। তার মধ্যে একটি অন্যতম কারণ রাস্তার দুই পাশে ঝুলে থাকা বৈদ্যুতিক লাইন। দেশের সর্বত্র চোখ মেললেই দেখা যায় মাকড়সার জালের মতো বৈদ্যুতিক কেবলের জঞ্জাল। সৌন্দর্যহানির পাশাপাশি এর ফলে ঘটছে নানান দুর্ঘটনা। ঝরে যাচ্ছে অনেক প্রাণ। আবার দেখা যায়, আবহাওয়ার অবস্থা খারাপ কিংবা আকাশে মেঘ দেখা দিলেই শুরু হয় লোডশেডিংয়ের যন্ত্রণা। এরই ফলে প্রায় দেড় বছর আগে বৈদ্যুতিক কানেকশন আন্ডারগ্রাউন্ড কেবলের মাধ্যমে মাটির নিচ দিয়ে নেওয়ার কাজ শুরু হয়েছিলো সিলেটে। বাংলাদেশ পাওয়ার ডেভেলপমেন্টের অর্থায়নে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগ এ প্রকল্পটি শুরু করা হয়। দেশে প্রথম নগরী হিসেবে কাজটি সিলেটে শুরু হলেও এর মধ্যে আর কোথাও এমন উদ্যোগের দেখা মেলেনি। তাই পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন দেশ গড়তে ও দুর্ঘটনা এড়াতে সারাদেশে মাটির নিচে বৈদ্যুতিক লাইন স্থাপন করা জরুরি।
শ্যামলী তানজিন অনু
বাংলা বিভাগ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কুষ্টিয়া।

 

পরিত্যক্ত মাস্ক সাধারণ বর্জ্য নয়
করোনা সচেতনতা ও সুরক্ষার তাগিদে বাইরে যেতে সব বয়সের মানুষ ব্যবহার করছেন নানা দাম ও মানের মাস্ক। অনেকেই হাতে পরছেন গ্লাভস। ইদানীং বাজার ও অন্যান্য খোলা জায়গা এবং রাস্তার পাশের ডাস্টবিনে ফেলা হচ্ছে পরিত্যক্ত মাস্ক ও গ্লাভস। কিন্তু সাধারণ বর্জ্যরে ন্যায় এসব রাস্তাঘাটে কিংবা যত্রতত্র ফেলা চরম অসচেতনতা। কারণ গরু, ছাগল, কুকুর, বিড়াল ইত্যাদি গৃহপালিত প্রাণী এসব তাদের মুখে দেওয়ার পর আমরা কোনোভাবে এদের সংস্পর্শে আসার মাধ্যমে প্রাণঘাতী ভাইরাসের আক্রমণের শিকার হতে পারি আমরাও। আমাদের সামান্য অসতর্কতায় পরিত্যক্ত মাস্ক ও গ্লাভসের মাধ্যমে ছড়াতে পারে ভাইরাস। এমনটি ঘটলে আমাদের অন্যসব সতর্কতা কিংবা সুরক্ষা কবচ সংক্রমণের হাত থেকে আমাদের বাঁচাতে অসমর্থ। এছাড়া, কতিপয় অসাধু ও লোভী বিভিন্ন স্থান হতে পরিত্যক্ত মাস্ক সংগ্রহ করে তা পুনরায় ব্যবহার উপযোগী করে বিক্রির চেষ্টা করেছিল। তাই আমাদের এই ব্যাপারে সর্বোচ্চ সাবধানতা ও সতর্কতা অবলম্বন আবশ্যক। ব্যবহারের পর পরিত্যক্ত মাস্ক ও গ্লাভস ঘরের আশেপাশে, রাস্তাঘাটে এবং খোলা জায়গায় না ফেলে পুড়িয়ে ফেলা যায়। অথবা একটু গভীর গর্ত করে মাটিতে পুঁতে ফেললে আমরা নিরাপদ থাকতে পারি সংক্রমণের অপ্রত্যাশিত ঝুঁকি থেকে।
আবু ফারুক
বান্দরবান।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র

২০ অক্টোবর, ২০২০
১৭ অক্টোবর, ২০২০
১৬ অক্টোবর, ২০২০
১৫ অক্টোবর, ২০২০
১৩ অক্টোবর, ২০২০
১২ অক্টোবর, ২০২০
১০ অক্টোবর, ২০২০
৯ অক্টোবর, ২০২০
৬ অক্টোবর, ২০২০
৫ অক্টোবর, ২০২০
৪ অক্টোবর, ২০২০
৩ অক্টোবর, ২০২০
২ অক্টোবর, ২০২০
১ অক্টোবর, ২০২০
২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন