Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

করোনাকালে সুন্দর ত্বকের জন্য

| প্রকাশের সময় : ২১ আগস্ট, ২০২০, ১২:০৭ এএম

ত্বকে মেছতা, ব্রণ, এলার্জি, ফুসকুড়ি, অনাকাংখিত স্থানে লোম, আঁচিল, তিল, মুখে ডাবল চীন, বলিরেখা, চোখের নীচে কালো দাগ, সন্তান জন্মের পর পেটে দাগসহ ত্বকের নানা সমস্যা বা চর্মজনিত রোগ দেখা যায়। আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞানে এই সমস্যাগুলোর সঠিক চিকিৎসা পদ্ধতি রয়েছে। সাধারনত রোগমুক্ত, স্বাস্থ্যজ্জ্বল ত্বকই সবার কাম্য। সুস্থ ও সুন্দর ত্বক পেতে করোনাকালীন এই সময়ে আমরা সুস্থ জীবন-যাপনের সাথে ত্বকের যত্ন ও ত্বকের চিকিৎসার সাথে নিম্নােক্ত উপায়গুলো বেছে নিতে পারি।

পুষ্টিকর খাবার ঃ
পুষ্টিকর খাবার খেলে ত্বক ও চুল ভেতর থেকেই স্বাস্থ্যজ্জ্বল হয়। প্রতিদিন প্রচুর পানি পান করতে হবে। পানি কম পান করলে পানিশূন্যতা হয় যার ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে আমাদের ত্বকে। ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখতে ভিটামিন ই›র জুড়ি মেলা ভার। তাই ভিটামিন ই পেতে প্রচুর পরিমাণ মৌসুমি ফল ও শাকসবজি খেতে হবে।

ব্যায়াম ঃ ব্যায়াম যেমন শরীরের সুস্থতা নিশ্চিত করে তেমনি ত্বকও ভালো রাখে। ব্যায়াম করলে প্রচুর ঘাম হয় যা ভেতর থেকে ত্বক পরিষ্কার করে। তাছাড়া নিয়মিত ব্যায়াম কর্টিসোল হরমোনের নিঃসরণের মাত্রা ঠিক রেখে মানুষের স্ট্রেস নিয়ন্ত্রণ করে। ফলে নিয়মিত ব্যায়াম করলে সহজে বলিরেখা পরে না।

লেজার চিকিৎসাঃ সাধারণভাবে বলতে গেলে লেজার এক ধরনের আলোকরশ্মি। ২০০৪ সালে বাংলাদেশে লেজার চিকিৎসা আসে। লেজার দিয়ে ত্বকের অবাঞ্চিত টিস্যু নষ্ট করে ফেলা হয়। লেজার সঠিকভাবে প্রয়োগ করতে পারলে ত্বকের ক্ষতি হয়না। একেক রোগের জন্য একেক ধরনের লেজার চিকিৎসা দেয়া হয়ে থাকে। রোগের ধরন বুঝে রোগের চিকিৎসা দেওয়া হয়। যেকোন লেজার নির্দিষ্ট জায়গায় কাজ করে। তবে রোগের ধরন না বুঝে যদি লেজার দেওয়া হয়, তাহলে ত্বকের ক্ষতি হতে পারে। অনেক সময় ত্বক পুড়ে যেতে পারে। ব্রণের দাগ, মেছতা, অবাঞ্চিত লোম, তিল, আঁচিল, শ্বেতী, গর্ত, রক্তনালীর বিকলাঙ্গতায় লেজার চিকিৎসা উপকারি। এছাড়া সন্তান জন্মের পর অনেক মেয়ের ত্বকে ফাটা দাগ হয়। এক্ষেত্রে লেজার চিকিৎসা উপযোগী। রিসাফেসিং লেজারে এই দাগ দূর হতে পারে। আঁচিল, অবাঞ্চিত লোম, ব্রণের দাগ, মেছতার জন্য লেজার ভাল কাজ করে। তবে আজকাল সৌন্দর্য বাড়ানো ও বয়সের ছাপ দূর করার জন্যও লেজার করতে চান অনেকে। কিন্ত সেক্ষেত্রে অবশ্যই বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল (বিএমডিসি) অনুমোদনপ্রাপ্ত একজন ত্বক বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে। সুন্দর ত্বকের জন্য ত্বক থেকে ব্রণ দূর করা খুবই প্রয়োজন ।

অনেক সময় তৈলাক্ত ত্বক ভালোভাবে পরিষ্কার না করলে লোমকূপে ময়লা জমে ব্রণ হতে পারে। বয়োসন্ধিকালে ব্রণ একটি স্বাভাবিক ঘটনা। আধুনিক অ্যায়েসথেটিকস চিকিৎসায় আমরা ওষুধ প্রয়োগ, একনে স্কার ও লেজার চিকিৎসা, ব্রণের ক্ষতের মাইক্রো বা ছোট সার্জারী করে ত্বক থেকে ব্রণ দূর করে লাবন্যময় করে থাকি। মনে রাখবেন ত্বকের সৌর্ন্দয্য ধরে রাখতে ভিতরের মনের সৌর্ন্দয্যকে আগে লালন করতে হবে। আর সাথে ত্বকের যতœ ও সঠিক চিকিৎসায় আপনার ত্বক হয়ে উঠবে প্রাণবন্ত ও লাবন্যময় ।

ডা. দিদারুল আহসান
চর্ম ও যৌন রোগ বিশেষজ্ঞ
আল-রাজী হাসপাতাল, ফার্মগেট,
ঢাকা, ০১৭১৫৬১৬২০০।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সুন্দর-ত্বক
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ