Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১২ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

মুক্তবাজার অর্থনীতিতে টিকে থাকতে হলে পণ্যের গুণগত মান বাড়াতে হবে: শিল্পমন্ত্রী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ আগস্ট, ২০২০, ১০:০১ পিএম

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেছেন, মুক্তবাজার অর্থনীতিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা-প্রতিযোগিতা থাকবে। এজন্য পণ্যের গুণগত মান উন্নয়নের ওপর জোর গুরুত্ব দিয়ে তিনি বলেন,‘বিশ্বায়নের এযুগে টিকে থাকতে হলে আমাদের পণ্যের গুণগত মান অবশ্যই বাড়াতে হবে,বিশ্বমানের পণ্য উৎপাদন করতে হবে। কারণ আমরা পেছনে নয়, সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই। সব কিছু মোকাবিলা করে,শিল্প সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে চাই।’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের শিল্পোন্নত বাংলাদেশ গড়তে মানসম্মত শিল্প-পণ্য উৎপাদনের তাগিদ দিয়ে শিল্পমন্ত্রী বলেন, বিশ্বায়নের প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য শিল্পখাতের সক্ষমতা বাড়িয়ে কোয়ালিটি পণ্য উৎপাদনে নিজেদের এগিয়ে নিতে হবে। মানসম্পন্ন পণ্য উৎপাদনের ক্ষেত্রে কোনো ধরনের আপস করলে,এটি জাতির সাথে বেঈমানি ও দুর্নীতি হিসেবে বিবেচিত হবে।

নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে রাজধানীর মতিঝিলস্থ শিল্পভবনে শিল্পমন্ত্রণালয় আয়োজিত ‘চিরঞ্জীব বঙ্গবন্ধু : শিল্পোন্নত বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা’ শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার এমপি অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন। শিল্পসচিব কে এম আলী আজম এ সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন।

মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সালাউদ্দিন মাহমুদের সঞ্চালনায় এ অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ হেলাল উদ্দিন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ও বিসিকের চেয়ারম্যান মোশ্তাক হাসান বক্তৃতা করেন।

শিল্প মন্ত্রণালযের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তর/ সংস্থার প্রধানরা এ সেমিনারে অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর শিল্প দর্শনের আলোকে দেশে গুণগত শিল্পায়নের ধারা জোরদারে উন্নতমানের পণ্য উৎপাদনে সক্ষম বিদেশি উদ্যোক্তাদের সাথে যৌথ বিনিয়োগের শিল্প-কারখানা স্থাপনের সুযোগ কাজে লাগাতে হবে।

এছাড়াও রাষ্ট্রয়াত্ত শিল্প-কারখানার খালি জমিতে এগ্রো-প্রসেসিং, চামড়া, চিনিসহ বিভিন্ন ধরনের আমদানিবিকল্প পণ্য উৎপাদন, মার্কেটিং ও ব্র্যান্ডিংয়ের লক্ষ্যে নতুন নতুন প্রকল্প গ্রহণ করার কথাও তিনি উল্লেখ করেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন,বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে স্বাধীনতা অর্জনের পর ইতিমধ্যে অনেক সময় পার হয়ে গেছে। এজন্য তিনি নির্দিষ্ট সময় নির্ধারন করে সঠিক পরিকল্পনার মাধ্যমে শিল্পায়ন প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নেয়ার জন্য শিল্প-পরিবারের সকল কর্মকর্তাদের নির্দেশনা প্রদান করেন। মন্ত্রী আগামী প্রজন্মের সুখ ও স্বাচ্ছন্দ্যের জন্য একটি শিল্পোন্নত রাষ্ট্র বিনির্মাণে প্রজাতন্ত্রের মেধাবী কর্মকর্তাদের বঙ্গবন্ধুর আদর্শ,মনন ও চিন্তা-চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে নিরন্তর পরিশ্রম করে যাওয়ার আহবান জানান। সূত্র: বাসস



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ