Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৪ কার্তিক ১৪২৭, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

জনগণের দৃষ্টি সরাতে সরকার কল্পকাহিনী বানাচ্ছে

জিয়ার মাজারে মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ আগস্ট, ২০২০, ১২:০২ এএম

সরকার জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে নিজেদেরকে বাঁচানোর জন্য এবং ফ্যাসিবাদ ও স্বৈরাচারকে প্রতিষ্ঠিত করতে জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে সরাতে কল্পকাহিনী তৈরি করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ১৫ আগস্ট ও ২১ আগস্টের ঘটনায় জিয়াউর রহমান ও দেশনেত্রীকে জড়ানো বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যে ষড়যন্ত্র, চক্রান্ত, এটা তারই অংশ। আজকে অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে মুক্তিযুদ্ধে শহীদ জিয়ার ভূমিকাকে খাটো করে দেখানোর জন্য কনসারটেডওয়েতে প্রচারণা, প্রোপাগান্ডা ছড়ানো হচ্ছে। গতকাল (মঙ্গলবার) শের-ই-বাংলা নগরে মুক্তিযোদ্ধা দলের ২৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ১৫ আগস্টের বিচার হয়েছে, যারা তাদের ফাঁসিও কার্যকর করেছে। সেক্ষেত্রে আবার নতুন করে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নাম জাড়ানোর চেষ্টাই হচ্ছে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিতের অপচেষ্টা এবং এদেশের স্বাধীনতাকামী মানুষদের চিন্তা-চেতনাকে অবমাননা। ২১ আগস্টের ঘটনার সঙ্গে দেশনেত্রীকে জড়ানোর যে অপচেষ্টা সেটাও তারই একটা অংশ।

তিনি বলেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান- তারা এদেশের স্বাধীনতা পতাকা তুলে ধরেছেন, তুলে নিয়ে যাচ্ছেন। তাদের অবস্থান যেহেতু সামাজ্যবাদের বিরুদ্ধে, উপনেবিশবাদের বিরুদ্ধে, আধিপাত্যবাদের বিরুদ্ধে সে কারণে তাদের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র করে মিথ্যাভাবে বিভিন্ন ঘটনার সাথে জড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। ২১ আগস্টের ঘটনার সাথে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের জড়িত থাকার প্রশ্নই উঠতে পারে না।

সরকারের নতজানু পররাষ্ট্র নীতির কারণে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধান করতে পারছে না মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, এই রোহিঙ্গা সমস্যার বিষয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে যুক্ত আছে এবং মিয়ানমারকে সমর্থন দিচ্ছে চীন ও ভারত। এই দুইটি দেশের সঙ্গে কোনো রকমের রফা করার সামর্থ্য এই সরকারের নেই। এখন পর্যন্ত এই সমস্যার বিষয়টাকে কেন্দ্র করে প্রধানমন্ত্রী কোনো বিশ্ব নেতার সঙ্গে সাক্ষাত করেননি, বিশ্ব সফর করেননি এবং জাতিসংঘে সেইভাবে গুরুত্বসহকারে বিষয়টাকে তুলে ধরতে পারেননি। যার কারণে এই রোহিঙ্গা সমস্যার বিশাল একটা বোঝা এদেশের মানুষকে বহন করতে হচ্ছে।

মুক্তিযোদ্ধাদের কোনো সম্মান নেই অভিযোগ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, আজকে মুক্তিযোদ্ধাদের ওপরে নির্যাতন চলছে, সরকার নির্যাতন চালাচ্ছে। সোমবার চট্টগ্রামের বাশখালীতে সরকারি দলের এমপির গুন্ডারা মুক্তিযোদ্ধা দলের নেতাকর্মীদের ওপরে আক্রমণ চালিয়ে, আহত করেছে। কারণে ওই এমপিকে তারা সমর্থন করেনি।
এর আগে সংগঠনের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাত ও সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খানের নেতৃত্বে নেতাকর্মীদের নিয়ে বিএনপি মহাসচিব জিয়াউর রহমানের কবরে পুস্পমাল্য অর্পন করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এই সময়ে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত মেজর হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক অবসরপ্রাপ্ত কর্ণেল জয়নুল আবেদীনসহ মুক্তিযোদ্ধা দলের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মির্জা ফখরুল


আরও
আরও পড়ুন