Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ফুলপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান,১ লাখ টাকা জরিমানা, ২টি ড্রেজার জব্দ

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৬ আগস্ট, ২০২০, ১০:১২ পিএম

ময়মনসিংহের ফুলপুরে পয়ারী ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন খড়িয়া নদীতে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে ২ জনকে জরিমানা করেছে। সেই সাথে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে ব্যবহ্নত দুটি ড্রেজার জব্দ করা হয়েছে।

সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাতেমা তুজ জোহরা বুধবার বিকালে অভিযান চালিয়ে এই জরিমানা করে তা আদায় করেন এবং দুটি ড্রেজার জব্দ করেন।

ফুলপুর উপজেলার পয়ারী ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন খড়িয়া নদীতে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সময় সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাতেমা তুজ জোহরার নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত সেখানে অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় 'বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০' অনুযায়ী ২ জনকে ৫০ হাজার টাকা করে মোট ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয় এবং অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে ব্যবহ্নত দুটি ড্রেজার জব্দ করা হয়। জব্দ করা ড্রেজার দুটি স্থানীয় থানায় পুলিশ হেফাজতে নিয়ে আসা হয়েছে এবং পরবর্তীতে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, ইউপি সচিব ও তহশিলদারের জিম্মায় যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে নিলামের মাধ্যমে বিক্রি করে তা ৭ দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট আদালতকে অবহিত করার নির্দেশনা দেয়া হয়।

সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাতেমা তুজ জোহরা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নদী এবং নদী সংলগ্ন বালু সবই প্রাকৃতিক সম্পদ, জনগণের সম্পদ। ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের সময় দেখা যায়, নদীর যে স্থান থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছিলো তার প্রায় ১০০ থেকে ১৫০ গজের মধ্যে ইউনিয়ন পরিষদের মূল সড়কটির অবস্থান এবং স্থানীয় জনগণের কৃষি জমি ও বসতভিটা রয়েছে। এ ধরনের বালু উত্তোলনের কারণে নদীর পাড় ক্রমাগত ভাংগনের সম্মুখীন এবং সড়কটিও সংকটাপন্ন মনে হয়েছে। এছাড়াও মূল ঢাকা-হালুয়াঘাট মহাসড়কের খড়িয়া নদীর উপর থাকা আমুয়াকান্দা ব্রিজটির অবস্থানও বালু উত্তোলন স্থলের প্রায় এক কিলোমিটারের মধ্যেই। কোনো অসাধু মহলের ব্যক্তিগত স্বার্থে জনগণের রাষ্ট্রীয় সম্পদ ক্ষতিগ্রস্ত হলে তা অবশ্যই খুব দুঃখজনক। প্রশাসন সতর্ক রয়েছে, এ ব্যাপারে জনগণকে আরও সচেতন থাকার অনুরোধ জানিয়ে তিনি আরও বলেন জনস্বার্থে ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ