Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ২৮ আগস্ট, ২০২০, ১২:০৩ এএম

রাস্তাটি দ্রুত সংস্কারের উদ্যোগ নিন

কুমিল্লা জেলার চান্দিনা উপজেলার মাইজখার ইউনিয়ন এর রসুলপুর থেকে বদরপুর পর্যন্ত রাস্তাটির বর্তমানে নাজেহাল অবস্থা। এর স্থানে স্থানে গর্ত সৃষ্টি হয়ে আছে। গ্রীষ্মে থাকে হাটু সমান ধুলা ও বর্ষায় থাকে কাঁদাময়। এ অবস্থায় গত কয়েক বছর ধরে এলাকাবাসী চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। রসুলপুর ও বদরপুর বাজার দুটি সংযোগ করায় রাস্তাটি দিয়ে দৈনিক হাজার হাজার পথচারী যাতায়াত করেন। এছাড়া ৫/৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩ থেকে ৪ হাজার শিক্ষার্থীর যাতায়াতের মাধ্যম এ রাস্তা। দীর্ঘ দিন মেরামত না করায় এবং দুইপাশে মৎস্য চাষিরা প্রজেক্ট করার কারণে রাস্তার অবস্থা বর্তমানে খুবই শোচনীয়। স্থানে স্থানে রাস্তাটি ভেঙ্গে এমন অবস্থায় পরিণত হয়েছে যে অটোরিকশা, সিএনজিও চলাচল করতে পারে না। এমনকি গ্রীষ্ম ও বর্ষায় পায়ে হেঁটেও চলাচল করা কঠিন হয়ে যায়। গর্ত আর খানাখন্দে ভরপুর এই রাস্তাটি দ্রুত সংস্কার করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
এমদাদুল হক সরকার
শিক্ষার্থী, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়।

 

এলপিজি সিলিন্ডারের গায়ে খুচরা মূল্য লেখার ব্যবস্থা করুন
বাসাবাড়ির রান্না ও হোটেল-রেস্টুরেন্টসহ বিভিন্ন বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে লিকুইফাইড পেট্রোলিয়াম গ্যাসের (এলপিজি) চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। দেশের বার্ষিক মোট চাহিদার ১০ লাখ টনের মধ্যে সরকারি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি) সরবরাহ করে মাত্র ১৬ হাজার টন। অবশিষ্ট গ্যাসের যোগানদাতা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো। কিন্তু চাহিদার সঙ্গে সঙ্গতি রেখে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর এলপিজির মূল্য নির্ধারণ না করা এবং সিলিন্ডারের গায়ে সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য লেখা না থাকার সুযোগে স্থানীয় বিক্রেতারা গ্রাহকদের কাছ থেকে ইচ্ছা মতো দাম আদায় করছে। এছাড়া নানা কারণ দেখিয়ে সময়ে সময়ে দামও বাড়ানো হয়। বিপিসি কর্তৃক সরকারের নিজস্ব উৎপাদিত সাড়ে বারো কেজির এলপিজির সর্বশেষ নির্ধারিত মূল্য ৬০০ টাকা হলেও বাজারে অন্যান্য কোম্পানির এলপিজি সিলিন্ডার বিক্রি হচ্ছে ৯০০ থেকে ১০০০ টাকায়। আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানির দাম কম হওয়ার পরও বেসরকারি কোম্পানির এলপিজির এমন অতিরিক্ত দাম এবং সিলিন্ডারে মূল্য না লেখা ভোক্তাস্বার্থ বিরোধী। এছাড়া সরকারি প্রতিষ্ঠানের উৎপাদিত গ্যাসের দাম এবং অন্য কোম্পানিগুলোর মূল্যের এমন আকাশ পাতাল পার্থক্যে মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষসহ ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের ভোগান্তি ক্রমশ বাড়ছে। তাই, ভোক্তাস্বার্থ বিবেচনায় এলপিজির ন্যায্য দাম নির্ধারণ এবং সিলিন্ডারে সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য লেখা নিশ্চিতে সরকারের আশু কার্যকর পদক্ষেপ প্রত্যাশা করছি।
আবু ফারুক
বনরুপা পাড়া, বান্দরবান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র

২৩ অক্টোবর, ২০২০
২২ অক্টোবর, ২০২০
২০ অক্টোবর, ২০২০
১৭ অক্টোবর, ২০২০
১৬ অক্টোবর, ২০২০
১৫ অক্টোবর, ২০২০
১৩ অক্টোবর, ২০২০
১২ অক্টোবর, ২০২০
১০ অক্টোবর, ২০২০
৯ অক্টোবর, ২০২০
৬ অক্টোবর, ২০২০
৫ অক্টোবর, ২০২০
৪ অক্টোবর, ২০২০
৩ অক্টোবর, ২০২০
২ অক্টোবর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ