Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

ট্যারেন্টকে ফিরিয়ে নিতে চায় অস্ট্রেলিয়া!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ আগস্ট, ২০২০, ১২:৫১ পিএম

নিউজিল্যান্ডে মসজিদে হামলাকারী ট্যারেন্টকে ফিরিয়ে নিতে চায় অস্ট্রেলিয়া। নিউজিল্যান্ডের দুই মসজিদে হামলা চালিয়ে ৫১জন প্রার্থনারতকে হত্যাকারী অস্ট্রেলিয় সন্ত্রাসী ব্রেন্টন হ্যারিসন ট্যারেন্টকে (২৯) ফিরিয়ে এনে যাবজ্জীবন সাজা কার্যকর করতে প্রস্তুত তার দেশ, শুক্রবার এমনই কথা বলেছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন। -নিউইয়র্ক টাইমস

জানা যায়, গত বছরের মার্চে চালানো হামলার জন্য ট্যারেন্টকে বৃহস্পতিবার জামিনের সুযোগ ব্যতীত যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়। নিউজিল্যান্ডে মৃত্যুদণ্ডের বিধান না থাকায় এই প্রথম কোনো ব্যক্তিকে এমন সর্বোচ্চ সাজা দেয়া হলো। অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলেন, নিউজিল্যান্ডের পক্ষ থেকে ট্যারেন্টকে ফেরত নেয়ার জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো অনুরোধ করা হয় নি। তবে অস্ট্রেলিয়ার সরকার এই ধরণের পদক্ষেপ নিতে প্রস্তুত। মরিসন বলেন, আমি আদালতের রায়ে খুবই সন্তুষ্ট হয়েছি। এই সন্ত্রাসীকে কোথাও কোনোদিনও ছাড়া হবে না। আমরা এই ইস্যু নিয়ে খোলাখুলি আলোচনা করতে প্রস্তুত। তবে এক্ষেত্রে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর ইচ্ছেকেই সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেয়া হবে। তাদের কাছে যা সঠিক তা-ই করা হবে।

এর আগে নিউজিল্যান্ডের ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী উইনস্টন পিটার বলেন, অস্ট্রেলিয়ার ট্যারেন্টকে বন্দী করার দায়িত্ব নেয়া উচিত এবং ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেয়া উচিত। পিটার বলেন, নিউজিল্যান্ডকে অসম্ভব ক্ষতি গুনতে হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর সুরক্ষাসহ এই সন্ত্রাসীর নিরাপত্তার জন্যই ৩৩ মিলিয়ন ডলার ব্যয় হয়েছে। তবে এই সময় পিটার আরো বলেন, ট্যারেন্টকে ফিরিয়ে নিতে হলে দুই দেশের পার্লামেন্টে বিশেষ আইন পাশ করতে হবে। কারণ, দুই দেশের মধ্যে কোনো বন্দী বিনিময় চুক্তি নেই। নিউজিল্যান্ডের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পিটার ডুটন বলেন, আমাদের মূল প্রাধান্য হলো ট্যারেন্টকে আজীবন কারাবন্দী রাখা।



 

Show all comments
  • একে আজাদ পাটোয়ারী ২৮ আগস্ট, ২০২০, ২:১১ পিএম says : 0
    নিউজিল্যান্ডের মত দেশে ফাঁসির আইন নাই আর আমাদের বাংলাদেশ ফাঁসির আইনতো আছেই আবার ক্রোস ফায়ারও আছে তাহলে আমরা নিউজিল্যান্ডের চেয়ে এগিয়ে আছি
    Total Reply(0) Reply
  • Jamil Hosen Jon ২৮ আগস্ট, ২০২০, ২:১৩ পিএম says : 1
    তাইতো বলি এতো মানুষ হত্যার পরেও কেন তার ফাসি হলোনা।।নাটক শুধু বাংলাদেশে হয়না...অনান্য দেশ ও নাকট করা শুরু করে দিয়েছে।।।
    Total Reply(0) Reply
  • Salim Reza ২৮ আগস্ট, ২০২০, ২:১৩ পিএম says : 1
    অস্ট্রেলিয়ার সরকার মুসলিম বিদ্বেষী সরকার
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Masud Uzzaman Rana ২৮ আগস্ট, ২০২০, ২:১২ পিএম says : 0
    ...যথেষ্ট শাস্তি পাই নাই, ফাঁসি যদি নাই হয় তাহলে কুলুর বলদের জায়গাই ওকে বাঁধতে এবং প্রতিদিন ২০ কেজি তেল বেরকরতে হবে শুকনো নারিকেল থেকে যেমনটা ব্রিটিশ আন্দামান জেল খানায় করতো .
    Total Reply(0) Reply
  • Muktar Hossain ২৮ আগস্ট, ২০২০, ২:১২ পিএম says : 0
    ওর জন্য প্রতিদিন চার হাজার ডলার খরচ হয় নিউজিল্যান্ড সরকারের যেটা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় দুই লাখ বিশ হাজার টাকা। ও যেহেতু অষ্টলিয়ান তাই ওকে অষ্টলিয়া নিয়ে নিবে এবং বাকি জীবন ও ঐখানেই জেল খাটবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Asgar Alim ২৮ আগস্ট, ২০২০, ২:১৩ পিএম says : 0
    ৫১টা মানুষের জীবন হরণকারীকে দেশ ফেরত নিতে চায় !এটা যদি কোন মুসলিম দেশে কোন মুসলমান নামের মানুষ করতো তাহলে অবস্থাটা কি হতে পারতো একবার ভাবা যায়?
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অস্ট্রেলিয়া


আরও
আরও পড়ুন