Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ০১ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৬, ০৬ শাবান ১৪৪১ হিজরী

মার্কিন বিমান থেকে মুসলিম দম্পতিকে নামিয়ে দেয়া ধৃষ্টতার পরিচায়ক-নেজামে ইসলাম পার্টি

প্রকাশের সময় : ৭ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার 

বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির মহাসচিব মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী আল্লাহর নাম উচ্চারণ করায় মার্কিন বিমান সংস্থা ডেল্টা এয়ার থেকে ফয়সাল-নাজিয়া নামে এক মুসলিম দম্পতিকে প্যারিসে নামিয়ে দেয়ার মতো ন্যক্কারজনক ঘটনাকে ধৃষ্টতার পরিচায়ক হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেছেন, এতে তাদের ইসলামবিদ্বেষী মন-মানসিকতার বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। এতে আরো প্রমাণিত হয় যে, পশ্চিমা যৌন ভাবোদ্দীপক অপতৎপরতা ও নগ্ন বীভৎসতা এবং কাম ও প্রবৃত্তিপরায়ণতার নারকীয় গহ্বরে নিমজ্জিত দেশেও আল্লাহর নাম উচ্চারিত হয়।
তিনি এক বিবৃতিতে বলেন, আমেরিকা ও ফ্রান্সের মতো গণতন্ত্র ও মানবাধিকার প্রবক্তাদের দেশে আল্লাহর নাম বলায় বিমান থেকে নামিয়ে দেয়ার ঘটনা গণতন্ত্র ও সার্বজনীন মানবাধিকারের সম্পূর্ণ পরিপন্থী। কেননা, জাতিসংঘ সনদসহ সব আন্তর্জাতিক আইনে স্ব-স্ব ধর্মীয় অনুশাসন ধারণ, চর্চা ও অনুশীলনের অধিকার রয়েছে। মার্কিন বিমানকর্মীদের এই আচরণ মুসলমানদের ধর্মীয় আদর্শ, তাহযিব-তমদ্দুন ও স্বকীয়তা এবং চিরায়ত মূল্যবোধবিরোধী মনোভাবের যে বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে, এতে বিমানকর্মীদের অনৈসলামী চেতনার স্বরূপ সম্পর্কে সচেতন মানসে কোনো সংশয় থাকবে না। পাশ্চাত্য যে মুসলিম সুস্থ রচিবোধকে আদর্শচ্যুত করার খেলায় মেতে উঠেছে, এটা তারই প্রমাণ। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রমূলক অনৈসলামীকরণ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে মুসলিম মননজাত ফসলকে অধোগতি করার জন্যই আল্লাহর নামের বিরোধিতা করা হয়েছে।
তিনি বলেন, ফয়সাল-নাজিয়া দম্পতি বিমানে উঠে আল্লাহর নাম উচ্চারণ করে নিজস্ব ধর্মীয় আদর্শ-ঐতিহ্য, শিক্ষা-সংস্কৃতি ও সভ্যতার অনুকরণ করতে চেয়েছেন। তারা তাদের নিজস্ব সাংস্কৃতিক বৈশিষ্ট্য, স্বতন্ত্র জাতিসত্তা ও আত্মপ্রত্যয় অক্ষুণœ রাখার চেষ্টা চালিয়েছেন। নাজিয়ার মতো সর্বাবস্থায় ইসলামী সাংস্কৃতিক ও স্বাতন্ত্র্যের প্রতীক আল্লাহর নাম ধারণ, চর্চা ও অনুশীলন করা উচিত।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন