Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

পানিতে ডুবে শিশুসহ মৃত ৮

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ আগস্ট, ২০২০, ১২:০০ এএম

পানিতে ডুবে শিশুসহ ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নিহতদের মধ্যে কুমিল্লা ও সুনামগঞ্জে ২ জন করে, কিশোরগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ও নোয়াখালী তে একজন করে।
কুমিল্লা : কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে পুকুরের পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তারা সম্পর্কে চাচাতো ভাই। গতকাল শনিবার দুপুরে পানির বোতল নিয়ে খেলতে গিয়ে পুকুরে পড়ে তাদের মৃত্যু হয়। শিশু দুটি কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার নোয়াগাঁও গ্রামের বেপারী বাড়ির প্রবাসী খোকন ও তার ভাই মাহবুবের ছেলে। খোকনের ছেলের নাম জিয়াদ (৯) এবং মাহবুবের ছেলের নাম সায়েদ (৭)। নোয়াগাঁও এলাকার স্থানীয় মেম্বার সাইফুল ইসলাম জানান, পানির বোতল নিয়ে পুকুর পাড়ে খেলতে যায় শিশু দুটি। একজনের মা তাদের পাহারা দিচ্ছিলেন। তারা খেলছে দেখে তিনি অন্য একটি কাজে চলে যান। এসে দেখেন তারা নেই। তখন আশপাশ খোঁজ কারার পর পুকুরের পানির নিচ থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের পরও একজন অন্যজনের হাত ধরা অবস্থায় ছিলো।

নিকলি (কিশোরগঞ্জ) : কিশোরগঞ্জের নিকলীতে হাওরের পানিতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজের একদিন পর মো. ইফাত নামে এক পর্যটকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল সকালে উপজেলার মোহরকোনা এলাকায় পানিতে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়। নিহত মো. ইফাত নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার কাদিরপুর গ্রামের হানিফ মিয়ার ছেলে। তিনি ঢাকায় ব্যবসা করতেন। পুলিশ জানায়, ইফাতসহ ঢাকা থেকে ৯ জনের একটি পর্যটক দল শুক্রবার নিকলীর হাওরে ঘুরতে আসেন। বিকেলে উপজেলার মোহরকোনা এলাকায় হাওরে গোসল করতে নেমে পানিতে তলিয়ে নিখোঁজ হন ইফাত। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে পাওয়া যাচ্ছিল না। শনিবার সকালে পানিতে তার লাশ ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দেয় এলাকাবাসী।
মানিকগঞ্জ : মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার গোপীনাথপুর এলাকায় পানিতে ডুবে রুবেল (১৭) নামের এক শারীরিক প্রতিবন্ধী কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকেলে চরপাড়া গ্রামে ইছামতী নদী থেকে ডুবুরিরা তার লাশ উদ্ধার করে। গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৬/৭ বছর আগে হরিরামপুরের ঝিটকা বাজারে আসে মানসিক প্রতিবন্ধী রুবেল। এরপর থেকে সে গোপীনাথপুরে থেকে যায়। শনিবার দুপুর ১টার দিকে গোপীনাথপুর চরপাড়া গ্রামের ইছামতী নদীতে গোসল করতে নেমে ডুবে যায় সে। পরে তাকে খোঁজাখুজি করে না পেয়ে স্থানীয়রা ইউপি চেয়ারম্যানকে জানানো হয়। পরে চেয়ারম্যান ডুবুরিদের খবর দিলে, তারা এসে লাশ উদ্ধার করে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুকুরের পানিতে ডুবে তাবাসুম নামক ৭ বছরের এক শিশু মারা গেছে। গত শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভায় এ ঘটনা ঘটে। তাবাসুম ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার ভাদুঘর দক্ষিণ পাড়ার মুহাম্মদ উবায়দুল মিয়ার মেয়ে। পরিবার সূত্রে জানা যায়, দুপুরের পর থেকে তাবাসুমকে পাওয়া যাচ্ছিল না। সবার অজান্তে বাড়ি সংলগ্ন এলাকার পুকুরের পানিতে ডুবে যায়। তারপর দুপুরে পুকুর থেকে তাবাসুমকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নোয়াখালী : নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার খিলপাড়া ইউনিয়নে পুকুরের পানিতে ডুবে আফজাল হোসেন নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। ১৯ মাস বয়সী আফজাল অমরপুর জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা কামরুল হাসানের ছেলে। গত শুক্রবার বিকালে পূর্ব দেলিয়াই গ্রামের এ দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দুপুরে পরিবারের লোকজনের অজান্তে বাড়ির পুকুরে পড়ে যায় আফজাল হোসেন। পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোন সন্ধান পায়নি। বিকালে বাড়ির পুকুরে আফজালের ভাসমান লাশ দেখতে পেয়ে উদ্ধার করে পরিবারের লোকজন।

সুনামগঞ্জ : সুনামগঞ্জে হাওরের পানিতে ডুবে খাদিজা আক্তার (৫) ও বিয়া আক্তার (৭) নামে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তারা আপন দুই বোন। গত শুক্রবার জেলার ধর্মপাশা উপজেলায় জালধরা হাওরের এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত দুই শিশু উপজেলার জয়শ্রী ইউনিয়নের বড়ই গ্রামের বাসিন্দা হবুল মিয়ার মেয়ে। এলাকাবাসী ও নিহতদের পরিবার জানায়, মাস খানেক আগে দুই শিশুকন্যাকে নিয়ে উপজেলার জয়শ্রী ইউনিয়নের বড়ই গ্রামের স্বামীর বাড়ি থেকে সেলবরষ ইউনিয়নের ভাটাপাড়া গ্রামে বাবার বাড়ি বেড়াতে আসেন মা ময়না আক্তার। গত বৃহস্পতিবার ময়না আক্তার তার মেয়েদের নিয়ে পার্শ্ববর্তী সলপ গ্রামে আবদুল মোতালিব নামে এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যান। পরদিন সকালে ওই দুই শিশু ওই বাড়ির উঠোনে খেলাধূলা করছিল। এক পর্যায়ে তারা ওই বাড়ির সামনে থাকা জালধরা হাওরের পানিতে পড়ে গিয়ে তলিয়ে যায়। এদিকে পরিবারের লোকজন তাদের দেখতে না পেয়ে খোজাঁখুঁজির এক পর্যায়ে দুপুরে হাওরের পানি থেকে তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক শিশু দুইটিকে মৃত ঘোষণা করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মৃত্যু


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ