Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

যশোরে আন্তঃজেলা ডাকাত গ্রেফতার, অস্ত্র-গুলি, লুন্ঠিত স্বর্ণ, অর্থ উদ্ধার

যশোর ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৯:০৪ পিএম

যশোরে মণিরামপুর ও ঝিকরগাছার দু’টি ডাকাতির ঘটনায় আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে যশোর ডিবি পুলিশ।

পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন পিপিএম মঙ্গলবার নিজ কার্যালয়ে এক ব্রিফিংয়ে জানান দুর্ধর্ষ ডাকাতির পর পুলিশ সুপারের নির্দেশে পুলিশের বিশেষ টিম সাঁড়াশি অভিযানে নামে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে। ফলও পাওয়া যায় আশানুরূপ। সোমবার রাতে যশোরের শার্শা ও ঝিকরগাছা উপজেলায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে অস্ত্র-গুলি, নগদ টাকা ও লুন্ঠিত স্বর্ণালংকার উদ্ধার করা হয়।

আটককৃতরা হলো সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার শংকরপুর গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে বাহার আলী তরফদার (৪০), শ্যামনগর উপজেলার জয়নগর গ্রামের আনছার গাজীর ছেলে শফিকুল ইসলাম ওরফে রেজাউল ওরফে গুড্ডু (৪০), আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা শ্বেতপুর গ্রামের মৃত মকছেদ সরদারের ছেলে আব্দুস সালাম সরদার (৫৫) ও যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের মৃত ইসমাইল হোসেনের ছেলে তহিদুর রহামান ওরফে কালু।

পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন আরো জানান, গত ২৩ আগস্ট মনিরামপুর উপজেলার পলাশী গ্রামের মনির হোসেনের বাড়িতে এবং ২৮ আগস্ট ঝিকরগাছা উপজেলার নির্বাসখোলা গ্রামের রানা বিশ্বাসের বাড়িতে ডাকাতি সংঘঠিত হয়। এ ঘটনায় ওই দুই পরিবার ৭ লাখ ৬২ হাজার টাকার মালামাল লুটের অভিযোগে পৃথক দুটি মামলা করেন। মামলা দুটি গোয়েন্দা পুলিশ তদন্ত শুরু করে।

এরপর সোমবার ভোররাতে শার্শা উপজেলার নাভারণ সাতক্ষীরা মোড়ে অভিযান চালিয়ে আন্তজেলা ডাকাত দলের সদস্য বাহার আলী তরফদার, শফিকুল ইসলাম গুড্ডু ও সালাম সরদারকে আটক করে। এরপর তাদের দেয়া তথ্য মতে ঝিকরগাছা উপজেলার মির্জাপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে অপর সদস্য তহিদুর রহমান কালুকে আটক করা হয়।

এসময় তাদের কাছ থেকে একটি ওয়ান শুট্যার গান, এক রাউন্ড গুলি, একটি এয়ারগান, নগদ এক লাখ ৭৯ হাজার টাকা, আড়াই ভরি স্বর্ণালংকারসহ ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত সরাঞ্জম উদ্ধার করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ