Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১১ কার্তিক ১৪২৭, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

রাজবাড়ীতে নারী চিকিৎসককে গণধর্ষণের মামলায় ৩ জনের ফাঁসির আদেশ

রাজবাড়ী জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:৩০ পিএম

রাজবাড়ী জেলা সদরের বসন্তপুর ইউনিয়নে এক নারী চিকিৎসককে গণর্ধষণের মামলায় ৩ জনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত।

বুধবার দুপুরে রাজবাড়ীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক শারমিন নিগার জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামীরা হলো-রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর ইউনিয়নের দত্তপাড়া গ্রামের আরশাদ মোল্লার ছেলে মামুন মোল্লা (২২), বসন্তপুর ইউনিয়নের মজলশিপুর গ্রামের মৃত মুন্নাফ সরদারের ছেলে হান্নান সরদার (৩২) ও একই গ্রামের মৃত আবুল মোল্লার ছেলে রানা মোল্লা (২৭)। রায়ে ফাঁসির পাশাপাশি তাদের প্রত্যেককে ১ লক্ষ টাকা করে জরিমানাও করা হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় আসামীরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলা সূত্রে প্রকাশ, ২০১৮ সালের ২৫শে ফেব্রæয়ারী রাত ৮টার দিকে মুন্সিগঞ্জ থেকে ওই নারী চিকিৎসক রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ মোড়ে এসে নেমে ফরিদপুরে যাওয়ার জন্য গাড়ীর সন্ধান করতে থাকে। ওই সময় এক অটোরিক্সা চালক তাকে বলে, ‘এখান থেকে ফরিদপুরের গাড়ী পাওয়া যাবে না। আমার অটোতে উঠেন। আমি শিবরামপুরে গিয়ে ফরিদপুরের গাড়ীতে উঠিয়ে দিব।’ এ কথা শুনে ওই নারী চিকিৎসক অটোরিক্সায় উঠেন। অটোরক্সিায় চালক ছাড়াও আরো ২ যাত্রী বসা ছিল। অটোরিক্সাটি মহাসড়ক দিয়ে বসন্তপুর এলাকার একটি নির্জন জায়গায় পৌঁছানোর পর চালক অটোরিক্সাটি দাঁড় করায়। এরপর ৩ জনে মিলে তাকে জোরপূর্বক মহাসড়কের পাশে নামিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় ওই নারী চিকিৎসক বাদী হয়ে রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করে। পরবর্তীতে র‌্যাব-৮ এর ফরিদপুরের ক্যাম্প কর্তৃক অভিযুক্ত ৩ জনকেই গ্রেফতার করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। স্বাক্ষ্য-প্রমাণ গ্রহণের পর বিচারক এ মামলার রায় ঘোষণা করেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি এডঃ উমা সেন মামলাটি পরিচালনা করেন।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন