Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

মেগান-হ্যারি রাজপ্রথা ভেঙে হলিউডে

নেটফ্লিক্সের সাথে কনটেন্ট প্রযোজনার চুক্তি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

ব্রিটিশ রাজপরিবারের চিরাচরিত প্রথা ভেঙে এবার হলিউডের পথে পা বাড়িয়েছেন সাসেক্সের ডিউক অ্যান্ড ডাচেস প্রিন্স হ্যারি ও মেগান মার্কেল। গেল বুধবার মেগান ও হ্যারি একটি বিবৃতিতে এ উদ্যোগের ঘোষণা দিয়ে বলেন, ‘নতুন বাবা-মা হিসাবে সত্যবাদী এবং শক্তিশালী গল্প বলার সাথে সাথে অনুপ্রেরণামূলক পারিবারিক অনুষ্ঠান তৈরি করাও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ।’ দর্শকদের প্রতি নেটফিফ্লক্স পরিষেবা নিয়ে তাদের নতুন উদ্যোগের ঘোষণা দিয়ে এ দম্পতি আরো বলেছেন, তাদের জীবন আমাদেরকে মানবিক চেতনার শক্তি: সাহস, স্থিতিস্থাপকতা এবং সংযোগের প্রয়োজনীয়তা বোঝার সুযোগ দিয়েছে।

নেটফ্লিক্সের সাথে চুক্তি করার আগে লস অ্যাঞ্জেলেসে নিজেদের একটি প্রযোজনা সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেছেন তারা। সংস্থাটি স্বাধীনভাবে পরিচালনা করবে তাদের দাতব্য সংস্থা আর্চওয়েল। চুক্তির আওতায় তারা ফিচার ফিল্ম, শো ও বাচ্চাদের জন্য সিরিজ তৈরি করবে। তবে, কয়েক বছর মেয়াদি চুক্তিটি কতো টাকায় সই হয়েছে তা জানায়নি নেটফ্লিক্স। ধারণা করা হচ্ছে, মেগান মার্কেল এবং প্রিন্স হ্যারি নেটফ্লিক্সের সাথে এ চমকপ্রদ চুক্তি থেকে অন্তত ৭৫ মিলিয়ন পাউন্ড আয় করবেন। ইতোমধ্যে চুক্তির প্রাথমিক অর্থ দিয়ে মেগান এবং হ্যারি ক্যালিফোর্নিয়ায় একটি ১১ মিলিয়ন পাউন্ডের ম্যানশন কিনেছেন।

জনসংযোগ বিশেষজ্ঞ জোনাথন শালিত দ্য সানকে বলেছেন, চুক্তিটি বিস্ময়কর এবং এটি প্রথমবারের মতো ব্রিটিশ রাজপরিবারের হলিউডে ঢোকা এবং চুক্তিটি ঐতিহাসিক। এদিকে ডেইলি মেইলকে এক সাক্ষাতকারে রাজপরিবার বিশেষজ্ঞ ইনগ্রিড সেওয়ার্ড বলেছেন, ‘আমি ধারণা করি, প্রিন্স চার্লস এখন তাদের বেতনভাতা প্রদান থেকে মুক্তি পাবেন এবং ব্রিটিশ জনগণ স্বস্তি পাবে। কারণ তারা এখন ফ্রগমোর কটেজের পাওনা পরিশোধ করতে পারবেন। এটি উভয় দিক থেকেই জয়ের আবহ।’

আট মাস আগে ব্রিটেনের রাজবাড়ি ছাড়েন মেগান-হ্যারি। এরপর যুক্তরাষ্ট্রে বসতি গড়েন তারা। মেগান মার্কেলের সঙ্গে হলিউডের সম্পর্ক পুরনো। তিনি নিজেও সিনেমা ও টিভি সিরিজে অভিনয় করেছেন। তবে, ব্রিটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের জীবনী নিয়ে নির্মিতব্য ‘দ্য ক্রাউন’ সিরিজে তাকে দেখা যাবে না। মার্কেল সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, অভিনয়ে ফেরার কোনো ইচ্ছা নেই তার। তবে ডকুমেন্টারিতে হাজিরা দিতে কোনো আপত্তি নেই তাদের। গত সপ্তাহেই প্যারা-অলিম্পিক গেমস নিয়ে তৈরি রাইজিং ফিনিক্স নামের এক ডকুমেন্টারিতে দেখা গেছে প্রিন্স হ্যারিকে। এর আগে, প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব ছাড়ার পর ২০১৮ সালে বারাক ওবামাও নেটফ্লিক্সের সঙ্গে চুক্তি করেছিলেন। বারাক ওবামা ও মিশেল ওবামার প্রযোজনায় বানানো ‘আমেরিকান ফ্যাক্টরি’ সেরা ডকুমেন্টরি হিসেবে অস্কার জিতে নেয় গত বছর। সূত্র : মিরর, ডয়েচে ভেলে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ