Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭, ১১ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে পারাপারে ভোগান্তি

কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটের ফেরি চলাচল বন্ধ দিনের পর দিন সড়কে শত শত ট্রাকের অপেক্ষা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

নাব্য সঙ্কট ও পদ্মা সেতুর নিরাপত্তাজনিত কারণে কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটের ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। এর ফলে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে অতিরিক্ত যানবাহনের চাপ পড়েছে। এতে নদী পার হওয়ার জন্য ৪ থেকে ৫ দিন পর্যন্ত সড়কে অপেক্ষা করতে হচ্ছে যানবাহনের চালক ও হেলপারদের। যাত্রীবাহী যানবাহন পারাপারে অগ্রাধিকার দেয়ায় পণ্যবাহি শত শত ট্রাক ঘাটে আটকা পড়ছে। এতে অনেক ট্রাকের কাঁচামাল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।
দৌলতদিয়া ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে দৌলতদিয়া-খুলনা ও ঘাট থেকে ১৩ কিলোমিটার দূরে গোয়ালন্দ মোড়ের রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে কয়েকশ’ পণ্যবাহী ট্রাক সিরিয়ালে আটকা পড়েছে।

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে দিনের পর দিন খোলা আকাশের নিচে নদী পারাপারের জন্য অপেক্ষা করছে চার শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাকের চালক ও হেলপার। খাদ্য ও পানির চরম সঙ্কটে মানবেতর জীবনযাপন করছে তারা। দৌলতদিয়া টার্মিনাল ব্যবহার করতে না দেয়ায় চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছে এ সকল চালকরা। তাদের অভিযোগ দালালদের দৌরাত্বের কারণে এখানে ব্যাপক অনিয়ম হচ্ছে।

ট্রাক চালকরা জানান, তাদের ভোগান্তির শেষ নেই। ঘাট থেকে প্রায় ১৩ কিলোমিটার দূরে তাদের আটকে রাখা হয়েছে। এখানে থাকা, খাওয়া, গোসল, বাথরুমসহ কোনো সুযোগ সুবিধা নেই। রাস্তায় দিনের পর দিন আটকে থাকতে হচ্ছে। অনেক দূরে গিয়ে গোসল, খাওয়া-দাওয়া, বাথরুম করে আসতে হয়। এছাড়া সময়মতো মালামাল পরিবহন করতে না পেরে লোকসান গুনতে হচ্ছে এবং খচর হচ্ছে অতিরিক্ত টাকা। ফেরিতে যাত্রীবাহী পরিবহন ও ছোট গাড়ির পাশাপাশি কয়েকটি করে ট্রাক পারাপারের সুযোগ দিলে কিছুটা হলেও তাদের ভোগান্তি কমতো।
বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন (বিআইডবিøউটিএ) কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, বর্তমানে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ১৮টি ফেরি চলছে। কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি বন্ধ থাকার কারণে এই নৌরুটে যানবাহনের চাপ বেড়েছে। তীব্র স্রোত ও পাটুরিয়া প্রান্তের নাব্য সঙ্কটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন