Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ০৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৬

কুতুবউদ্দিন আহমেদ | প্রকাশের সময় : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বাঙালি জাতির জীবনে ফেব্রুয়ারি কেবল একটি নির্ভেজাল সাদামাটা মাস নয়। পৃথিবীর অন্যান্য জাতির জীবনে যেভাবে ফেব্রুয়ারি আসে বাঙালির জীবনে সেভাবে ফেব্রুয়ারি আসে না। বাঙালি জাতির দুয়ারে ফেব্রুয়ারি আসে ভিন্ন আবহ নিয়ে, ভিন্ন চেতনা নিয়ে, ভিন্ন উম্মাদনা নিয়ে। ফেব্রুয়ারি এলে বাঙালির মনে নতুন সাড়া জাগে; ঠিক বসন্তে যেমন গাছে গাছে নতুন পাতা গজায়।
   সত্যি এ মাসে এ দেশের মানুষ যেন ভিন্নরঙা এক বাতাসের ভেলায় ভাসে। নতুন স্বপ্ন এসে বাসা বাঁধে মনের মণিকোঠায়। নিজের দেশকে আবার নতুন করে ভালোবাসতে শেখে। এ মাসেই তারা যেন উপলব্ধি করতে শেখে নিজের দেশটাকে তো বুঝতে হবে, ভালোবাসতে হবে।
   ফেব্রুয়ারি বাঙালির জেগে ওঠার মাস, বিদ্রোহের মাস, জাগরণের মাস। এ মাসেই আমরা আমাদের প্রিয় বাংলা ভাষার জন্য অকাতরে রক্ত ঢেলে দিয়েছি, রাজপথ রঞ্জিত করেছি; দুঃসাহসী এ ঘটনাটি নিঃসন্দেহে পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল।
   আমাদের এই আত্মদানের মহিমা আরও প্রসারিত ও বিস্তৃত হয়েছে মাসব্যাপী অমর একুশে গ্রন্থমেলা আয়োজনের মধ্যদিয়ে। আমাদের গৌরবের বিষয় এইযে, এই মেলার জনপ্রিয়তা ধীরে-ধীরে বেড়েই চলেছে। বাড়তে বাড়তে এর পরিধি গিয়ে ঠেকেছে শেষ পর্যন্ত সোহরাওয়ার্দী উদ্যান পর্যন্ত। হ্যাঁ  প্রিয় পাঠক, গত দু’বছরের মতো এবারও মেলার সিংহভাগ বসেছে  সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। মেলা শুরুর প্রথমদিন থেকেই সেই চেনা দৃশ্য শাহবাগ থেকে দোয়েল চত্বর অবধি মানুষের ঠাসাঠাসি ভিড়। নানান বয়সী নারী-পুরুষ-শিশু দল বেঁধে এগিয়ে চলেছে বাংলা একাডেমির দিকে, অমর একুশের গ্রন্থমেলায়।
   ১ ফেব্রুয়ারি এ মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক পরিম-লে বাংলা ভাষাকে তুলে ধরার সুযোগ কাজে লাগাতে হবে। এ জন্য আমাদের সাহিত্যের ধ্রপদী ও স্বনির্বাচিত সাহিত্যসম্ভার বিশ্বপাঠকের কাছে পৌঁছে দিতে আরও ব্যাপকভিত্তিক ও মানসম্মত অনুবাদ জরুরি। একই সঙ্গে তৃণমূলের গণমানুষের জীবন ও সংগ্রাম সাহিত্যকর্মে ফুটিয়ে তুলতে হবে। তিনি বাংলা একাডেমি নিয়ে স্মৃতিচারণ করে বলেন, এটি আমার জন্য বিশেষ জায়গা। আমি যখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীÑ এই বাংলা একাডেমি, এখানকার লাইব্রেরি আমার খুবই প্রিয় ছিল। এখানে যখন আসি খুবই ভাল লাগে। তবে এখনতো বলতে গেলে একটু বন্দীদশায় থাকতে হয়। কাজেও ব্যস্ত থাকতে হয়। যে কারণে আগের মতো আর যখন-তখন আসতে পারি না, বইমেলা দেখার সুযোগ হয় না। এই কষ্ট মনে রয়ে গেছে। কবে এখান থেকে মুক্তি পেয়ে ঘুরে বেড়াতে পারবো বইমেলায়। এখন সারা বছরই আমরা অনেক আকাক্সক্ষা নিয়ে অপেক্ষা করি বইমেলা কখন আসবে। একুশে ফেব্রুয়ারি আমাদের প্রেরণা দেয়, প্রতিবাদের ভাষা, দাবী আদায়ের শক্তি জোগায়, বিজয়ের পথ দেখায়। একুশ মানে মাথা নত না করা।
   বিকেল ৩টা ৪ মিনিটে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গনে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। এরপর ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি’ অমর একুশে সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। অনুষ্ঠানে বাংলা একাডেমির সভাপতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এমিরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামানের সভাপতিত্বে স্বাগত ভাষণ দেন একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান। প্রখ্যাত সাহিত্যিকদের মধ্যে থেকে বক্তব্য রাখেন চেক রিপাবলিকের লেখক ও গবেষক রিবেক মার্টিন ও ব্রিটিশ কবি ও জীবনানন্দ অনুবাদক জো উইন্টার। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন আন্তর্জাতিক প্রকাশনা সংস্থার সভাপতি রিচার্ড ডেনিশ পল।   
   গ্রন্থমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার প্রদান করা হয়। এবার বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন কবিতায় আলতাফ হোসেন, কথাসাহিত্যে শাহিন আক্তার, প্রবন্ধে আবুল মোমেন ও আতিউর রহমান, গবেষণায় মনিরুজ্জামান, মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সাহিত্যে তাজুল মাহমুদ, নাটকে মাসুম রেজা, বিজ্ঞান প্রযুক্তি ও পরিবেশে শরিফ খান, অনুবাদে আবদুস সেলিম, এবং শিশুসাহিত্যে সুজন বড়–য়া। অনুষ্ঠানে পুরস্কারপ্রাপ্ত লেখকদের হাতে এক লক্ষ টাকার চেক, ক্রেস্ট ও সম্মাননাপত্র তুলে দেয়া হয়।
   মেলাসূত্রে  জানা গেছে, ১ থেকে ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বেলা ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে মেলা। সাপ্তাহিক ছুটির দিনে বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা  এবং একুশে ফেব্রুযারি সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা চলবে।
   মেলার দ্বিতীয় দিনে প্রচুর জনসমাগম লক্ষ করা গেছে। বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যা নামার সঙ্গে সঙ্গে মেলায় ভিড় বাড়তে থাকে। বইপ্রেমীদের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে মেলা প্রাঙ্গণ। গত বুধবার বিকেলে দেখা যায়, বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যা নামার সঙ্গে সঙ্গে ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে বইপ্রেমীরা মেলায় ভিড় জমাচ্ছেন। কেউ আসছেন পরিবার-পরিজন নিয়ে, আবার কেউ বন্ধু-বান্ধব নিয়ে। তবে এর মধ্যে তরুণ-তরুণীরাই বেশি। দর্শনার্থীদের যথেষ্ট ভিড় থাকলেও প্রকৃত ক্রেতার সংখ্যা যথেষ্ট কম বলে জানিয়েছেন প্রকাশক ও দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা। তারা জানিয়েছেন, মাত্র মেলা শুরু হয়েছে। আস্তে আস্তে বইপ্রেমীরা মেলায় আসবেন, ঘুরবেন আর যদি পছন্দ হয় বইও কিনবেন।

মে লা য়  ন তু ন  ব ই
কবিতা
হাতে অমৃতকুম্ভ, পান করি বিষÑ মহাদেব সাহা, অনন্যা
কবিতাসমগ্র Ñ১Ñ মুহম্মদ নুরুল হুদা, অনন্যা
শান্তি বাড়ি Ñ মঞ্জুরে মওলা, অনন্যা
তরঙ্গের অস্থির নৌকায় - সৈয়দ শামসুল হক, ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ
এই বসন্তে তোমাকে - নাসির আহমেদ, আগামী প্রকাশনী
কাব্যসংসার- আবিদ আনোয়ার, আগামী প্রকাশনী
কে জড়ালো এই মন্ত্রজালে- মহাদেব সাহা, মাওলা ব্রাদার্স
নির্বাচিত কবিতা- কাজী রোজী, ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ
শ্রেষ্ঠ কবিতাÑ সিকদার আমিনুল হক, আগামী প্রকাশনী
ভুলে যাওয়ার চেয়ে ভালো কিছু নেই- মহাদেব সাহা, অনন্যা
কবিতাসংগ্রহ- মোফাজ্জল করিম, অনন্যা
তুমি এক অলৌকিক বাড়িঅলা- আনোয়ারা সৈয়দ হক, অনন্যা
নভোনীল সেই মেয়ে- মাসুদুজ্জামান, শুদ্ধস্বর
লাল মাফলার- আলফ্রেড খোকন, শুদ্ধস্বর
তোমার জন্য লিখি- রাজীব মীর, অনন্যা
না নৈহাটি না পুষ্পস্তবক- শাবিহ মাহমুদ, শুদ্ধস্বর
অরণ্যে অদম্য- সজল ছত্রী, শুদ্ধস্বর
নক্ষত্র হরফে লেখা কবিতা- মুজতবা আহমেদ মোরশেদ, অনন্যা
সকলই সকল- তানিম কবির, শুদ্ধস্বর
কুয়াশা ক্যাম্পে- পিয়াস মজিদ, অন্য প্রকাশ
যে চলে যাবার সে যাবেই- রিক্তা রিচি, প্রতিভা প্রকাশন।

গল্প
বাংলাদেশের ছোটগল্প Ñ বুলবুল চৌধুরী সম্পাদিত, অনন্যা
কিশোর গল্পসমগ্রÑ আমীরুল ইসলাম, অনন্যা
সামলে রাখো জোছনাকে Ñ উদয়ারুন রায়, অনন্যা
নির্বাচিত গল্প- হাসান আজিজুল হক, ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ
উপনিবেশ- শাহনেওয়াজ বিপ্লব, ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ
রিসতা- মেহেদি উল্লাহ, শুদ্ধস্বর
ভাগ- অনন্ত মাহফুজ, শুদ্ধস্বর
বাক্সবন্দী মানুষ- শামীম আল আমিন, অনন্যা
ধ্রুব কি প্রচ্ছদ আঁকবে না- আমীরুল ইসলাম, অনন্যা
গণিকা প্রণাম- রাশেদ রহমান, শুদ্ধস্বর
রূপালি জোছনায় ভেজা জীবন- মৌলি আজাদ, আগামী প্রকাশনী

উপন্যাস
সীমানা ছাড়িয়ে- সৈয়দ শামসুল হক, মাওলা ব্রাদার্স      
শামুক- হাসান আজিজুল হক, ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ
জিন্দাবাহার- ইমদাদুল হক মিলন, অনন্যা
রেশমী- ইমদাদুল হক মিলন, অনন্যা
শ্রেষ্ঠ উপন্যাস Ñ মঈনুল আহসান সাবের, অনন্যা
একদা এক যুদ্ধে- হাসনাত আবদুল হাই, আগামী প্রকাশনী
সোনালি ডুমুর- সেলিনা হোসেন, ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ
জীবনের সুখ- বশির আল হেলাল, অনন্যা
কোনো কোনো রাত একলা এমন- সুমন্ত আসলাম, অনন্যা
গলে যাচ্ছে ঝুলন্ত পদক- আনোয়ারা সৈয়দ হক, মাওলা ব্রাদার্স
মাকাল লতা- হরিশংকর জলদাস, মাওলা ব্রাদার্স
সুপ্রভাত বিষণœতা- হাসনাত আবদুল হাই, আগামী প্রকাশনী
এক জীবনে আরেক জীবন- মোহিত উল আলম, শুদ্ধস্বর
যখন ভেসে এসেছিল সমুদ্রঝিনুক- মণিকা চক্রবর্তী, শুদ্ধস্বর
কালকেউটের সুখ- স্বকৃত নোমান, জাগৃতি
শীতের জোছনাজ্বলা বৃষ্টিরাতে- ইমতিয়ার শামীম, কথাপ্রকাশ
কালিন্দীর কূলে- আহমেদ উল্লাহ্্, রোদেলা প্রকাশনী
চন্দ্রাহত পুরুষ- আবুল বাসার, পুথিনিলয়।

প্রবন্ধ / গবেষণা
সাহসের সমাচার Ñ আল মাহমুদ, অনন্যা
নাটকনির্দেশনা তত্ত্ব ও প্রয়োগ Ñ ড. মুস্তাফিজুর রহমান,
বাংলা প্রকাশ
ইতিহাস ও সাহিত্য Ñ মাহবুবুল হক, বাংলা প্রকাশ
গদ্যসমগ্র Ñ মহাদেব সাহা, অনন্যা
ইতিহাসের খেরোখাতা Ñ মুনতাসির মামুন, অনন্য
ওয়ান ইলেভেন Ñ মুহম্মদ ফজলুর রহমান, সময়
প্রবন্ধসংগ্রহ ১ও ২- মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান, মাওলা ব্রাদার্স
সাহিত্যেও অন্তর্জগত- সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, রোদেলা প্রকাশনী
শতাব্দীর শুরুতে বাংলাদেশের চিত্র- বদরুদ্দীন উমর, কথাপ্রকাশ
লড়াই চলছে লড়াই চলবে- মুনতাসির মামুন, অনন্যা
বদলে যান এখনই- তারিক হক, অনন্যা
বাংলা নাটকের নারী ও পুরুষ- সাজেদুল আউয়াল, মাওলা ব্রাদার্স
অঙ্কুরিত একত্রিশ- আমিনুল হক বাদশাহ, মাওলা ব্রাদার্স
অতলের আঁধি- হাসান আজিজুল হক, ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ
সমকালের দর্পণে-  যতীন সরকার, ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ
যুদ্ধ আরো কঠিন আরো গভীর- ফরহাদ মজহার, আগামী প্রকাশনী
সংস্কৃতির যত শত্রু- ফজলুল আলম, অনন্যা
ভাষা মুক্তিযুদ্ধ বঙ্গবন্ধু- মোহিত উল আলম, আগামী প্রকাশনী
বাংলাদশের সাম্প্রতিক সাহিত্য- মাসুদুজ্জামান, শুদ্ধস্বর
পুতুল নাচ- সুশান্ত সরকার, আগামী প্রকাশনী
অভাজনের মহাভারত- মাহবুব লীলেন, শুদ্ধস্বর
আদিবাসী উৎসব- সালেক খোকন, ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ
বরেণ্যদের মুখোমুখি- রতনতনু ঘোষ, কথাপ্রকাশ
শিক্ষাবিষয়ক প্রবন্ধ- যতীন সরকার, ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ
অমর একুশে- হায়াৎ মামুদ, ইত্যাদি গ্রন্থপকাশ
রবীন্দ্রনাথের জায়া ও জননী- সাদ কামালী, কথাপ্রকাশ
বাংলাদেশের নাটক ও নাট্যদ্বন্দ্বের ইতিহাস, কথাপ্রকাশ
বাংলাদেশের নি¤œবর্ণেও দ্রোহ ও স্বশস্ত্র প্রতিরোধ- মুনতাসীর মামুন,
কথাপ্রকাশ
সর্বস্তরে বাংলাভাষা- স্বরচিষ সরকার, কথা প্রকাশ
চিরায়ত চিত্রশিল্পী- সৈয়দ লুৎফল হক, মাওলা ব্রাদার্স

জীবনী/ আত্মজীবনী
শেখ মুজিব আমার পিতা- শেখ হাসিনা, আগামী প্রকাশনী
তাজউদ্দিন আহমেদ: নেতা ও পিতা, অন্য প্রকাশ
দিনলিপি- সরদার ফজলুল করিম, মাওলা ব্রাদার্স
দুয়ার থেকে দূরে- হাসান আজিজুল হক, ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ
তোমরাই ধ্রুবতারা- মাহফুজ খানম, আগামী প্রকাশনী
হাসনরাজা জীবন ও কর্ম- সামারীন দেওয়ান, মাওলা ব্রাদার্স।

শিশু/ কিশোর
ছায়ায় ঢাকা মায়ার পাহাড় Ñ আল মাহমুদ, ঝিঙেফুল
বুড়ো শিয়াল ও হাতি Ñ সাযযাদ কাদির, ঝিঙেফুল
উপকথন চিরদিনের Ñ সাযযাদ কাদির, ঝিঙেফুল
ক্রেনিয়াল Ñ মুহম্মদ জাফর ইকবাল, অন্যপ্রকাশ
কেচো খুঁড়তে এনাকোন্ডা Ñ আহসান হাবীব, অন্যপ্রকাশ
এই ছায়াটার নাম দিয়েছি দুরন্ত শৈশব Ñ সাজ্জাদ হুসাইন, ঐতিহ্য
ছড়া ছড়া সারাবেলা Ñ ওয়াসিফ এ খোদা, ঐতিহ্য
এই ছড়াটা আমার ঐ ছড়াটা তোমার Ñ মোশাররফ হোসেন ভূইয়া
আহসান মঞ্জিল ও ঢাকার নওয়াব Ñ ড. মুহম্মদ আলমগীর, ঝিঙেফুল
দি ম্যাজিশিয়ান ডব্লিউ সমারসেট মম, অনু. মঈন বিন নাসির, ঝিঙেফুল
ধুত্তরী- লৎফর রহমান রিটন, মাওলা ব্রাদার্স
এই একুশে Ñ আবু সালেহ, অনন্যা
ঘোস্ট স্টোরি ফর ইউÑ ইমদাদুল হক মিলন, প্রতীক
হাওয়ার ট্রেনে চাঁদে যাত্রা Ñ প্রফুল্ল গাইন, শিরিন পাব.
একজন ক্লাস ক্যাপটেনের ডায়েরিÑ মীম নোশিন নাওয়াল খান, ঝিঙেফুল
ছড়া পড়লে বয়স কমে Ñ আলম তালুকদার, অনন্যা
ছড়া রচনাবলি Ñ আমীরুল ইসলাম, অনন্যা
ষোল কোটি ভোর Ñ আলম তালুকদার, সময়
ভূত এসে দেখা করে গেল- ইমদাদুল হক মিলন, অনন্যা
কিশোর উপন্যাস সমগ্র- আনোয়ারা সৈয়দ হক, শুদ্ধস্বর
গল্পগুলো কিশোরদের- রতনতনু ঘাটি, অনন্যা
গাছটিতে কোন ফ্যান নেই- দস্ত্যস রওশন, অনন্যা
এখন-তখন- মানিকরতন, অনন্যা।

মুক্তিযুদ্ধ
মুক্তিযুদ্ধের গল্পÑ সিরাজুল ইসলাম মুনির, ঝিঙেফুল
একাত্তর যেখান থেকে শুরু Ñ হাসান ফেরদৌস, সময়
বাংলাদেশ ডকুমেন্টস ১৯৭১ Ñ এ. কে. এম শামসুল আরেফিন, সময়
মুক্তিযুদ্ধের সূর্যসন্তানদের বীরত্বগাথা Ñ সৈয়দ মাজহারুল পারভেজ, ঝিঙেফুল
১৯৭১ অবরুদ্ধ দেশে প্রতিরোধ Ñ মুনতাসির মামুন, অনন্যা
দাম দিয়ে কিনে এনেছি এই বাংলা Ñ সম্পা. জাফর ইমাম, বীর বিক্রম, ঐতিহ্য
স্বাধীনতা/ ৭Ñ মেজর কামরুল ইসলাম ভূইয়া, অনন্যা
মুক্তিযুদ্ধ ১৯৭১ কালুরঘাটে শেষ প্রতিরোধ ও স্মৃতিতে বাংলাদেশের একটি মুক্তাঞ্চল Ñ মেজর (অব.)  হাশমী মোস্তফা কামাল, অনন্যা
মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ- অজয়দাশ গুপ্ত, মাওলা ব্রাদার্স
মুক্তিযুদ্ধেও স্মৃতি- ব্যারিস্টার আমির উল ইসলাম, আগামী প্রকাশনী
মুক্তিযোদ্ধা মাঝি আব্বাস- মেজর কামরুল ইসলাম ভুইয়া, অনন্যা
ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা- রফিকুল ইসলাম, আগামী প্রকাশনী
মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস- বিধান মিত্র ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ
যুদ্ধদিনের গদ্য ও প্রামাণ্য- সালেক খোকন, ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।