Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২০ মে ২০১৯, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৪ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

হুয়াওয়ে ওয়াই সিক্স টু

প্রকাশের সময় : ৯ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

হুয়াওয়ে ওয়াই সিরিজের একদমই নতুন মডেল হুয়াওয়ে ওয়াই সিক্স টু। আগের ওয়াই সিরিজের ফোনগুলোর তুলনায় হুয়াওয়ে ওয়াই সিক্স টু ফোনটির স্ক্রিন বড় এবং ফোনটিতে রয়েছে উন্নত ফ্রন্ট ক্যামেরা ও ব্যাটারি। বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হুয়াওয়ে সম্প্রতি বাংলাদেশসহ বিশ্ব বাজারে এনেছে ওয়াই সিক্স টু। আধুনিক প্রযুক্তিসম্বলিত হুয়াওয়ে ওয়াই সিক্স টু স্বল্প আয়ের ক্রেতাদের জন্য সাশ্রয়ী একটি ডিভাইস। এক নজরে দেখে নেয়া যাক হুয়াওয়ে ওয়াই সিক্স টু-এর ফিচারসমূহ। হুয়াওয়ে ওয়াই সিক্স টু-তে আছে ৫ দশমিক ৫ ইঞ্চির (১২৮০ ী ৭২০) রেজ্যুলেশনের এইচডি ডিসপ্লে। বড় ডিসপ্লে হলেও এর পিক্সেল ঘনত্ব সন্তোষজনক। ফোনটিতে রয়েছে হালনাগাদ অ্যান্ড্রয়েড ৬.১ মার্শম্যালো অপারেটিং সিস্টেম। দ্রুত ও পরিবর্তনশীল দৃষ্টিনন্দন থিম, ক্যামেরা সেটিংস, কন্টাক্ট লিস্টসহ বেশ কয়েকটি ফিচার কাস্টোমাইজ করতে ডিভাইসটিতে বিল্ট-ইন আছে ইএমইউআই ৪.১।
ফোনটির অন্যতম আকর্ষনীয় ফিচার হলো এর অসাধারণ সেলফি ক্যামেরা। সেলফি তোলার জন্য ফোনটিতে রয়েছে আট মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা যার অ্যাপারচার ভ২.০। এছাড়া হাই কোয়ালিটি ছবি তোলার জন্য ফোনটিতে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা। ফোনটি দিয়ে ছবি তুললে সাধারন বিচারে ভালো মানের বলাই যায়। উজ্জল, ঝকঝকে এবং প্রাণবন্ত ছবি তোলায় সক্ষম হুয়াওয়ে ওয়াই সিক্স টু।
ডিভাইসটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ক্ষমতাসম্পন্ন হাইসিলিকন কিরিন ৬২০-এর ৬৪-বিট এ৫৩ অক্টাকোর প্রসেসর। দ্রুতগতিতে মাল্টিটাস্কিং, গেইম খেলাসহ অন্যান্য কাজ করতে এতে আছে দুই গিগাবাইট র‌্যাম ও ১৬ গিগাবাইট রম। এছাড়া মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে ১২৮ গিগাবাইট পর্যন্ত মেমোরি বাড়ানো যাবে। দীর্ঘ সময় ধরে চিন্তামুক্ত ব্যবহারের উদ্দেশ্যে হুয়াওয়ে ওয়াই সিক্স টু-তে ৩০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের নন-রিমুভেবল ব্যাটারি যুক্ত করা হয়েছে। ডিভাইস, হেডফোন, চার্জারসহ হুয়াওয়ে ওয়াই সিক্স টু-এর মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪,৯৯০ টাকা। সঙ্গে থাকছে এক বছরের বিক্রয়োত্তর সেবা।
আইটি ডেস্ক



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন