Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সান্তনার জয়ে শীর্ষেই অস্ট্রেলিয়া

বাবরকে হটিয়ে চূড়ায় মালান

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

সিরিজ জিতে যাওয়ায় জস বাটলার আগেই চলে গিয়েছিলেন ছুটিতে, ছিলেন না নিয়মিত অধিনায়ক এউইন মরগ্যানও। প্রথম দুই ম্যাচ রান না পাওয়া জনি বেয়ারস্টো শুরুতে ধুকলেও পেয়েছেন রান। বাকি কেউ থিতু হতে না পারায় ইংল্যান্ডের করা মামুলি সংগ্রহ অনায়াসে টপকাতে পেরেছে অস্ট্রেলিয়া। সাউদাম্পটনের এইজেস বৌলে টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে স্বাগতিকদের ৫ উইকেটে হারিয়ে সান্ত¡না পেয়েছে অজিরা। ইংলিশদের ১৪৫ রান সফরকারীরা পেরিয়ে যায় ৩ বল আগেই। প্রথম দুই ম্যাচ জিতে সিরিজ আগেই পকেটে পুরেছে স্বাগতিকরা। তবে ইংল্যান্ডের কাছে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারলেও শেষ ম্যাচ জেতায় র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর স্থান ধরে রেখেছে অস্ট্রেলিয়া। ইংল্যান্ড আছে দুইয়ে। তিন, চার ও পাঁচে যথাক্রমে ভারত, পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকা।
টস হেরে ব্যাটিং পেয়ে ওপেন করতে নেমে টম ব্যান্টনকে শুরুতেই হারায় ইংল্যান্ড। এরপর ছন্দে থাকা ডেভিড মালানকে নিয়ে জুটি পান বেয়ারস্টো। মালান এবার থিতু হয়েও ফেরেন ২১ রান করে। রান পাননি স্যাম বিলিংস। বেয়রস্টো টিকে গিয়ে দিচ্ছিলেন বড় সংগ্রহের আভাস। ফিফটি করার অ্যাস্টন অ্যাগারের বলে মিসটাইমিংয়ে কাবু তিনি। এরপর এই ম্যাচে অধিনায়কত্ব করা মঈন আলি, জো ডেনলিরা টেনেটুনে দলকে দেড়শোর কাছে নিয়ে যান।
১৪৬ রানের লক্ষ্যে ডেভিড ওয়ার্নারের জায়গায় নামা ম্যাথু ওয়েড- অ্যারন ফিঞ্চের শুরুটা ছল জুতসই। ওভারপ্রতি ১০ রানের উপর এনে ওয়েড ফেরেন চতুর্থ ওভারে। তিনে উঠে আসা মার্কাস স্টয়নিসও ছিলেন আগ্রাসী মেজাজে। তবে খেলা শেষ করে আসা হয়নি তারও। গেøন ম্যাক্সওয়েল , স্টিভেন স্মিথদের আরেকটি ব্যর্থতার দিনে ১০০ রানে ৫ উইকেট হারিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু মিচেল মার্শ-অ্যাস্টন অ্যাগার জুটিতে নিরাপদে তরী ভিড়েছে তাদের। ম্যাচ সেরার পুরস্কার উঠেছে মার্শের হাতেই। শেষ ম্যাচ না খেলেও সিরিজের সেরা হয়েছেন বাটলার।
এবার ওয়ানডে সিরিজ খেলতে দুদল যাবে ম্যানচেস্টারে। ওল্ড ট্রাফোর্ডে আগামীকাল থেকেই শুরু হবে ওয়ানডে সিরিজ।
এদিন প্রকাশিত আইসিসির টি-টোয়েন্টির নতুন র‌্যাঙ্কিংয়ে অদল-বদল হয়েছে আরো। পাকিস্তানের বাবর আজমকে সরিয়ে বাটিংয়ের শীর্ষে উঠেছেন ইংল্যান্ডের মালান। অবিশ্বাস্য ছন্দে থাকা এই ব্যাটসম্যান ক্যারিয়ার সেরা রেটিং পয়েন্ট নিয়ে চার ধাপ লাফ দিয়েছেন। মালানকে জায়গা দিয়ে এক ধাপ নিচে নেমেছেন বাবর। আগের মতই তিনে আছেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। বেশ অনেকদিন খেলার বাইরে থাকা ভারতের লোকেশ রহুল দুই থেকে নেমে গেছেন চারে। চারে থাকা কলিন মনরো এক ধাপে নেমে এখন পাঁচে।
বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে উন্নতির খবর পেয়েছেন ইংল্যান্ডের লেগ স্পিনার আদিল রশিদ। সব শেষ সিরিজে ভালো করে দুই ধাপ এগিয়ে সাতে উঠেছেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ার পেসার কেন রিচার্ডসন দুই ধাপ এগিয়ে জায়গা করে নিয়েছেন ১০ নম্বর। টি-টোয়েন্টিতে বোলারদের মধ্যে আগের মতই র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে আফগানিস্তানের রশিদ খান। তার স্বদেশী মুজিব-উর রহমান আছেন দুইয়ে। অস্ট্রেলিয়ার বাঁহাতি স্পিনার অ্যাস্টন অ্যাগারও তিনে ধরে রেখেছেন জায়গা। পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সবশেষ দুই সিরিজে ২১৩ রান করেছেন বাঁহাতি মালান। ১৬ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে এরমধ্যে ৭ ফিফটি আর ১ সেঞ্চুরি হয়ে গেছে তার। ৪৮.৭১ গড় আর ১৪৬.৬৬ স্ট্রাইকরেটে এ পর্যন্ত ৬৮২ রান করেছেন তিনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
ইংল্যান্ড : ২০ ওভারে ১৪৫/৬ (ব্যান্টন ২, বেয়ারস্টো ৫৫, মালান ২১, বিলিংস ৪, মঈন ২৩, ডেনলি ২৯*, জর্ডান ৪, কারান ২*; স্টার্ক ১/২০, হেইজেলউড ১/২৩, রিচার্ডসন ১/৩১, অ্যাগার ১/৩৫, জ্যাম্পা ২/৩৫)। অস্ট্রেলিয়া : ১৯.৩ ওভারে ১৪৬/৫ (ওয়েড ১৪, ফিঞ্চ ৩৯, স্টয়নিস ২৬, ম্যাক্সওয়েল ৬, স্মিথ ৩, মার্শ ৩৯*, অ্যাগার ১৬*; আর্চার ০/৩২, উড ১/৩৮, জর্ডান ০/১৯, রশিদ ৩/২১, কারান ১/২৩, ডেনলি ০/৮, মঈন ০/৫)।
ফল : অস্ট্রেলিয়া ৫ উইকেটে জয়ী।
ম্যান অব দ্য ম্যাচ : মিচেল মার্শ (অস্ট্রেলিয়া)।
সিরিজ : ৩ ম্যাচে ২-১ ব্যবধানে জয়ী ইংল্যান্ড।
ম্যান অব দ্য সিরিজ : জস বাটলার (ইংল্যান্ড)।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ক্রিকেট

১৪ অক্টোবর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন