Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৩ মাঘ ১৪২৭, ১৩ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

রেকর্ডের মালায় রোনালদোর সেঞ্চুরি

পেলেন পেলের অভিনন্দন

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

একই মাঠ, একই প্রতিপক্ষ। ২০১৪ বিশ্বকাপের আগে এই সুইডেনের বিপক্ষে অসাধারণ এক হ্যাটট্রিক করে পর্তুগালকে বিশ্বকাপে নিয়েছিলেন। গতপরশু রাতে উয়েফা নেশন্স লিগে সেই সুইডেনের বিপক্ষে জোড়া গোল করে বিরল এক কীর্তি গড়লেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ইতিহাসের দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে আন্তর্জাতিক ফুটবলে একশ কিংবা তার বেশি গোল দেওয়ার কৃতিত্ব অর্জন করেলেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী এ তারকা।
ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে প্রতিযোগিতার আগের ম্যাচেই হয়তো হয়ে যেত রোনালদোর সেঞ্চুরিটা। কিন্তু মৌমাছির হ‚ল তাকে মাঠে নামতে দেয়নি। গ্যালারিতে বসে সেদিনই নখ কামড়েছিলেন। অপেক্ষা যেন সইছিল না। আসরে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে সুইডেনের বিপক্ষে মাঠে নেমেই রোনালদো করলেন জোড়া গোল। প্রথমার্ধের শেষ দিকের গোলটিতে সেঞ্চুরির উল্লাসে মাতেন ৩৫ বছর বয়সী এ জুভেন্টাস তারকা।
গতপরশু রাতে সোলনায় নেশন্স লিগের ম্যাচে স্বাগতিক সুইডেনকে ২-০ গোলে হারায় পর্তুগাল। ম্যাচের দুটি গোলই করেন রোনালদো। প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে প্রায় ২৫ গজ দ‚র থেকে অসাধারণ এক বাঁকানো ফ্রি-কিক থেকে কাক্সিক্ষত গোলটি পান এ তারকা। সেঞ্চুরির কীর্তি গড়তে জাতীয় দলের জার্সি মোট ১৬৫ বার পরতে হয়েছে তাকে। ফ্রি-কিক থেকে এটা তার ক্যারিয়ারের ৫৭তম গোল, পর্তুগালের জার্সিতে দশম। ৭২তম মিনিটে ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় গোলের দেখা পান রোনালদো। এ গোলটিও ছিল দর্শনীয়। জোয়াও ফেলিক্সের পাস প্রথম ছোঁয়ায় নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডি-বক্সের প্রান্ত থেকে ডান পায়ের জোরালো শটে দ‚রের পোস্টে বল পাঠান তিনি।
পর্তুগালের হয়ে মোট ১০১টি গোল এখন রোনালদোর। তিনি ছুটে যাচ্ছেন অনন্য এক রেকর্ডের দিকে। আর আটটি গোল করতে পারলে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ইরানের আলি দাইর করা সর্বোচ্চ ১০৯ গোলের কীর্তি স্পর্শ করবেন। নয়টি হলে গড়বেন নতুন ইতিহাস। বর্তমানে খেলা চালিয়ে যাওয়া ফুটবলারদের মধ্যে রোনালদোর নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বীরা হলেন ভারতের সুনীল ছেত্রি ও আর্জেন্টিনার লিওনেল মেসি। তারা অবশ্য পিছিয়ে আছেন বিস্তর ব্যবধানে। ছেত্রির গোল ৭২টি, মেসির ৭০টি।
বয়সটা যখন ত্রিশ পার হয় তখন অনেকেই সে খেলোয়াড়ের শেষ সময় দেখে ফেলেন। কিন্তু রোনালদো প্রতিনিয়ত নিজেকে চেনাচ্ছেন আলাদা উচ্চতায়। বিস্ময়কর হলেও সত্য ত্রিশের পরই গোলের খুধা আর বেড়েছে তার। এমনকি তা প্রায় দ্বিগুণ। অথচ মাঝেমধ্যেই ইতিহাসের অন্যতম সেরা এ খেলোয়াড়কেও সমালোচনায় বিদ্ধ করেন অনেকেই। তবে এ ধরণের সমালোচনাকে পাত্তাই দেন না রোনালদো। কেবল নিজের কাজ করার দিকেই তার মনোযোগ তার। যে ধারায় খেলছেন তাতে আরও অনেক কীর্তি গড়ার অঙ্গীকার করেন এ পর্তুগিজ, ‘আমি কারও মন্তব্য গায়ে মাখি না। এটা তাদের মতামত। আমি জানি আমি স্টেডিয়ামে একটি চিহ্ন রেখে গিয়েছি এবং আমি এটাও জানি যদি আমি খেলি, তাহলে আমি আর চিহ্ন রেখে যেতে পারবো। কোনো উস্কানিম‚লক কথার পরোয়া আমি করি না।’
১০১টি গোল। আন্তর্জাতিক ম্যাচে তার চেয়ে বেশি গোল রয়েছে কেবল ইরানের আলি দাইর (১০৯)। ঘরোয়া অঙ্গনে তো আরও বেশি প্রমাণ করেছেন নিজেকে। পাঁচটি চ্যাম্পিয়নস লিগ ট্রফি। আবার সেই লিগেও একশর বেশি গোল। তাই নিজেকে নতুন করে প্রমাণের কিছু দেখছেন না এ জীবন্ত কিংবদন্তি, ‘আমি আমার ক্যারিয়ারে যা করেছি সেটাই কথা বলবে। না, আমার কারো কাছে কিছু প্রমাণ করার নেই। যখন কোনো কিছু প্রমাণ করতে হয়, তখন মাঠেই আমি তা দেখিয়ে দেই।’ তবে একশ গোলের অনন্য মাইলফলকে পৌঁছে দারুণ খুশি রোনালদো। এগিয়ে যেতে আরও, ‘আমি খুবই খুশি। প্রথমত কারণ আমার দল জিতেছে। এরপর আমার গোল যা করেছি। এরপর ১০০ গোলে এবং পরে ১০১। দুটি গোল আমাকে অনেক সুখী করেছে। এখন ভবিষ্যৎ শুধুমাত্র ঈশ্বরের জন্য। আমি ভালো বোধ করছি। আমি তরুণ খেলোয়াড়দের সঙ্গে খেলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছি।’
আন্তর্জাতিক অঙ্গনে গোলের সেঞ্চুরি পূরণ করে নিজ দল পর্তুগালের কোচ-সতীর্থদের শুভেচ্ছা তো তিনি পেয়েছেনই, তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তর্কসাপেক্ষে ইতিহাসের সেরা ফুটবলার পেলেও। বিশ্বের কোটি কোটি ভক্তের মতো রোনালদোর গোলের সেঞ্চুরির অপেক্ষায় ছিলেন ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তিও। জোড়া গোল করে ইতিহাস গড়ার সঙ্গে সঙ্গে জুভেন্টাস ফরোয়ার্ড ছাপিয়ে গেছেন প্রত্যাশাকেও। এমন পারফরম্যান্সের যারপরনাই মুগ্ধ ব্রাজিলের কিংবদন্তি সাবেক তারকা। তিনটি বিশ্বকাপজয়ী পেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে লিখেছেন, ‘আমি ভেবেছিলাম যে, আজ (মঙ্গলবার) আমরা ১০০তম গোল উদযাপন করতে যাচ্ছি। কিন্তু আসলে এটা ১০১ হয়েছে। অভিনন্দন রোনালদো, তোমার অভিযানে নতুন উচ্চতায় পৌঁছানোয়।’

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রোনালদো

২৯ ডিসেম্বর, ২০২০
২৮ ডিসেম্বর, ২০২০
২৩ নভেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ