Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বিএনপি চায় নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার

খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়া

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এখন ভীষণ অসুস্থ। তার উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন। বিষয়টি মানবিক বিবেচনায় নিয়ে তাঁর বিদেশে যেতে সরকারের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে তা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। 

তিনি বলেন, সবাই জানে উনি অসুস্থ। অসুস্থতার কারণে এর আগে তাকে বিদেশে চিকিৎসা নিতে হয়েছে। এখন তার উন্নত চিকিৎসা দরকার। কারাবন্দী অবস্থায় দীর্ঘদিন তিনি হাসপাতালে ছিলেন। সুস্থ হতে পারেননি। তার সুচিকিৎসার জন্য প্রয়োজনে তাকে বাইরে নিতে হবে। তিনি যাবেন কি যাবেন না, যাওয়ার প্রয়োজন হবে কি হবে না সেটা ভিন্ন কথা। কিন্তু সরকারি আদেশে তার বাইরে যাওয়া নিষিদ্ধ করাটা অমানবিক বলে আমরা মনে করি। তার বিদেশে যাওয়ার ব্যাপারে যে বিধি নিষেধ সেটা প্রত্যাহার করা মানবিক কর্ম এবং এটা আমাদের দাবি।
গতকাল বুধবার জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি একথা বলেন।
মুক্তিযুদ্ধের স্বপ্ন এখনো পূরণ হয়নি জানিয়ে নজরুল ইসলাম খান বলেন, স্বাধীন, গণতান্ত্রিক মানবিক সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন নিয়ে জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে আমরা মুক্তিযুদ্ধে লড়াই করেছিলাম। কিন্তু দুর্ভাগ্য স্বাধীনতার এতো বছর পরেও তা পূরণ হয়নি। বরং এই দেশে একদলীয় স্বৈরশাসন দেখেছি, সামরিক স্বৈরশাসন দেখেছি আবার বেসামরিক স্বৈরশাসনও দেখেছি। ফলে দেশে গণতন্ত্র বলতে যা বোঝায় যথাযথভাবে সেটা বাস্তবায়ন হয়নি। বারবার গণতন্ত্র হত্যা করা হয়েছে, আহত করা হয়েছে। অন্যদিকে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা করেছিলেন শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান। আর সংসদীয় গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা করেছিলেন ১৯৯১ সালে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া।
তিনি বলেন, আজকে সেই গণতন্ত্র সঙ্কটে। করোনায় হাজার হাজার মানুষ অকালে মারা যাচ্ছে। কত জন এই সংখ্যা বলা কঠিন? কারণ সরকার সঠিক তথ্য দিচ্ছে না। এর থেকে মানুষ মুক্তি চায়। মানুষ চায় তাদের কাছে দায়বদ্ধ, জবাবদিহিতা করবে এমন একটা সরকার। আর সেরকম সরকার কায়েম হতে পারে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন ব্যবস্থা। কিন্তু আজকে দেশের নির্বাচন কমিশন থেকে শুরু করে সব প্রতিষ্ঠানই দলীয়করণ করা হয়েছে। দুর্বল করা হয়েছে। এগুলো শক্তিশালী করা দরকার।
মানবিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় বিএনপি লড়াই করছে জানিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, আমরা মানবিক বাংলাদেশ চাই। যে বাংলাদেশে মানুষ তার মর্যাদা পাবে। গুম, খুন, অত্যাচার, মিথ্যা মামলা, গায়েবী মামলা ইত্যাদির অপব্যবহার বন্ধ হবে। গরীব মানুষরা বেঁচে থাকার অবলম্বন পাবে। কিছু ব্যক্তি বা গোষ্ঠি নয়, দেশ সমৃদ্ধ হবে। সারাদেশের জনগণ সৃমদ্ধ হবে। সেরকম একটা স্বপ্ন নিয়ে লড়াই করেছি। সেই স্বপ্ন আমাদের এখনো পূরণ হয়নি। আজকের দিনেও আমাদের শপথ প্রকৃত যে গণতন্ত্র বা মানবিক এবং সকলের জন্য সমৃদ্ধ বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় আমরা লড়াই করবো।
এসময় উপস্থিত ছিলেন মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, সিনিয়র সহ-সভাপতি হেলেন জেরিন খান, নিলোফার চৌধুরী মনি, শাম্মী আখতার, ইয়াসমীন আরা হক, পিয়ারা মুস্তফা, শামসুন্নাহার ভুঁইয়া, মমতাজ হোসেন লিপি প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিএনপি


আরও
আরও পড়ুন