Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

পাপুলের দুই ঘনিষ্ঠজনকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

লক্ষ্মীপুর-২ আসনের এমপি কাজী শহীদ ইসলাম পাপুলের অর্থপাচার ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধানে তার ঘনিষ্ঠ দুই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল বুধবার সংস্থার উপ-পরিচালক মো.সালাহউদ্দিন তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এদের একজন লক্ষ্মীপুরে স্থানীয় রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ও পাপুলের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত এ কে এম সালাউদ্দিন টিপু এবং অপরজন হলেন মো. আরিফ হোসেন। এর আগে গত ৮ সেপ্টেম্বর লক্ষ্মীপুরের স্থানীয় আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত কাজী মো. জামশেদ কবির (বাকী বিল্লাহ) ও নুর উদ্দীন চৌধুরী নয়নকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সংস্থাটি। জিজ্ঞাসাবাদে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য মিলেছে বলে জানা গেছে। একই ঘটনা পাপুলের স্ত্রী ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি সেলিনা ইসলাম ও শ্যালিকা জেসমিন প্রধানকে গত ২২ জুলাই জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গণমাধ্যমের কাছে পাপুল ষড়যন্ত্রের শিকার বলে সেলিনা ইসলাম দাবি করেন। লক্ষ্মীপুর-২ আসনের এমপি ও এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালক কাজী শহীদ ইসলাম পাপুলের বিরুদ্ধে অবৈধভাবে গ্রাহককে ঋণ দেয়ার অভিযোগ রয়েছে। এর মাধ্যমে অবৈধভাবে অর্থ অর্জন করে বিদেশে পাচারসহ শত শত কোটি টাকা জ্ঞাত আয়-বহির্ভূত সম্পদ অর্জন সংক্রান্ত একটি অভিযোগ অনুসন্ধান করছে দুদক। এরই মধ্যে অনুসন্ধানের স্বার্থে পাপুল পরিবারের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সব হিসাব স্থগিত করা হয়। গত ৬ জুন রাতে কুয়েতের মুশরেফ আবাসিক এলাকা থেকে পাপুলকে গ্রেফতার করে দেশটির অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। এ সময় পাপুল ও তার কুয়েতি প্রতিষ্ঠান ‘মারাফি কুয়েতিয়া’র অ্যাকাউন্টে ৫০ লাখ কুয়েতি দিনার (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৩৭ কোটি ৮৮ লাখ ৮৩ টাকা) জব্দ করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দুদক

২ অক্টোবর, ২০২০
২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০
২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ