Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১১ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

আমিরাত-ইসরাইল চুক্তির প্রতি আরব লিগের সমর্থন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:৪৭ পিএম

দখলদার ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার জন্য আমিরাতের সঙ্গে ইসরাইলের যে সমঝোতা হয়েছে তার প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়ে আরব লীগের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক শেষ হয়েছে। ইসরাইল ও আমিরাতের মধ্যে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার বিষয়ে চুক্তি সইয়ের প্রায় এক মাস পর আরব লীগের এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হলো। বৈঠক শেষে প্রকাশিত বিবৃতিতে ‘আব্রাহাম’ নামক ইসরাইল-আমিরাত সমঝোতা চুক্তির কোন নিন্দা জানানো হয়নি বরং এর প্রতি পূর্ণ সমর্থন দেয়া হয়েছে।

আমিরাত-ইসরাইলের সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের চুক্তির বিষয়টি বাতিলের জন্য ফিলিস্তিনের অনুরোধে বুধবার আরব লিগের সদস্য দেশগুলোর মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সে জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। আরব দেশের গণমাধ্যমগুলোর বরাত দিয়ে তুর্কি সংবাদ মাধ্যম ইয়েনি শাফাক জানায়, ফিলিস্তিনিদের এমন অনুরোধে আপত্তি জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের অপেক্ষাকৃত ছোট দেশ রাহরাইন।

ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের বিষয়ে আরব লিগের নিন্দা না জানানোর বিবৃতিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভেসে বেড়াচ্ছে। এ ছাড়া ২০০২ সালে আরব পিস ইনিশিয়েটিভ প্রস্তাবনার বিষয়টিও উঠে আসে; সেখানে যেভাবে ফিলিস্তিন ও ইসরাইলের সমস্যা সমাধানের বিষয়ে উল্লেখ রয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আরব লিগের এমন ঘটনার সমালোচনা করে আরব বিশ্বের মৃত্যু হয়েছে বলেও উল্লেখ করেছেন।

এদিকে আরব লিগের এমন কর্মকাণ্ডের পর সংগঠন থেকে বের হয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছে দেশটির একটি রাজনৈতিক সংগঠন ফিলিস্তিনি ইসলামিক গোষ্ঠী। তারা বলছে, আরব লিগ থেকে ফিলিস্তিনকে থেকে সরে আসতে হবে। এ নিয়ে ফিলিস্তিনের কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেন।

ইসলামি জিহাদের রাজনৈতিক ব্যুরো প্রধান মোহাম্মদ আল হিন্দি জানান, আমিরাত-ইসরাইল বিশ্বাসঘাতকার চুক্তির নিন্দা জানাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে আরব লিগ। যারা ফিলিস্তিনিদের ত্যাগ করেছে লিগ তাদের পক্ষ নিয়েছে তারা। গ্রহণ করেছে ইসরাইলকে। আরব লিগ ছাড়ার জন্য ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।
আরব দেশগুলোর জনগণ ফিলিস্তিনিদের প্রতি সর্বদা আন্তরিক থাকলেও তাদের শাসকরা তাদের প্রতিনিধিত্ব করছে না। বলেন, আল হিন্দি।

ইসরাইল-আমিরাত সমঝোতার ব্যাপারে আরব দেশগুলোর মধ্যে মতবিরোধ রয়েছে। মিশর, ওমান, বাহরাইন ও মৌরিতানিয়ার মতো দেশগুলো আনুষ্ঠানিকভাবে ইসরাইল-আমিরাত সমঝোতার প্রতি সমর্থন জানিয়েছে। আবার সৌদি আরব, কাতার ও জর্দানের মতো দেশগুলো ইঙ্গিত দিয়ে অর্থাৎ পরোক্ষভাবে সমর্থন জানিয়েছে। আবার কোন কোন আরব দেশ এ ব্যাপারে নীরব থেকেছে অথবা বিরোধিতা করেছে। এ থেকে ইসরাইল-আমিরাত সমঝোতার ব্যাপারে আরব দেশগুলোর অভ্যন্তরীণ মত বিরোধ স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

অনেক বিশ্লেষকের আশঙ্কা, ইসরাইল-আমিরাত সমঝোতার একটি ধ্বংসাত্মক প্রভাব হচ্ছে আরববিশ্বে ইসরাইল ও আমেরিকার প্রভাব বিস্তারের ক্ষেত্র তৈরি হবে যা কিনা আরবলীগের গতকালের বৈঠকেই স্পষ্ট হয়ে গেছে। ফিলিস্তিনের ইসলামি আন্দোলনের নেতা দাউদ শাহাব এ ব্যাপারে বলেছেন, আরব লীগ বর্তমানে দখলদার ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে এবং ইসরাইল ও মার্কিন আধিপত্য বিস্তারের স্বার্থে কাজ করছে। সূত্র : ইয়েনি শাফাক



 

Show all comments
  • Hasan ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৩:২৯ পিএম says : 0
    দুনিয়ার লোভ আমাদের নূন্যতম বিবেকবোধকেও ধ্বংস করে দিচ্ছে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ