Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

ঢাবি শিক্ষকের চাকুরীচ্যুতির প্রতিবাদ রাবি শিক্ষকদের

রাবি সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:২১ পিএম

ভিন্নমত প্রকাশের স্বাধীনতাকে ক্ষুণ্ণ করতেই ঢাবি মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মোর্শেদ খানকে চাকুরিচ্যুত করা হয়েছে দাবি করে এ ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরামের শিক্ষকরা। শুক্রবার শিক্ষক ফোরামের এক বিবৃতিতে প্রতিবাদ জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মোর্শেদ হাসান খানকে ভিন্নমতের কারণে রাজনৈতিক প্রতিহিংসাম‚লকভাবে চাকুরীচ্যুত করা হয়েছে। আমরা এই অনাকাঙ্খিত ও ন্যাক্কারজনক সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

বিবৃতিতে বলা হয় আমরা মনে করি, গণতান্ত্রিক চর্চা ও বাক-স্বাধীনতার বিরুদ্ধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এই ধরনের অবস্থান প্রতিষ্ঠানটির গৌরবজ্জল ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে ভুলুন্ঠিত করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্স্ট স্ট্যাটিউটের ৪৫(৩)(৪) উপধারায় এবং বিশ্ববিদ্যালয় ৭৩র আদেশের ৫৬(৩) উপধারায় চাকুরীচ্যুতির বিষয়ে স্পষ্ট নির্দেশনা দেয়া আছে। সেখানে বলা হয়েছে- ‘নৈতিক স্খলন, অদক্ষতা, বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন ও চাকুরিবিধি পরিপন্থী’ কাজের সাথে যুক্ত থাকার অপরাধে কোনো শিক্ষক বা কর্মকর্তাকে টার্মিনেট করা যেতে পারে। কিন্তু ড. মোর্শেদের ২০১৮ সালের মার্চে একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত নিবন্ধটি উল্লিখিত অপরাধের কোনোটিতেই পড়ে না।
রাবির জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আমরা আশা করি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অনতিবিলম্বে এই বৈষম্য ও পক্ষপাতম‚লক সিদ্ধান্তটি প্রত্যাহার করে স্বাধীনভাবে মত প্রকাশ এবং মুক্ত জ্ঞান চর্চায় ভ‚মিকা রাখবে।

বিবৃতিটিতে স্বাক্ষর প্রদান করেন জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়-এর সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. হাবীবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. আওরঙ্গজীব মো. আব্দুর রাহমান এবং ফোরামের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্যবৃন্দ - অধ্যাপক ড. মো. শামসুল আলম সরকার, অধ্যাপক ড. সি এম মোস্তফা, অধ্যাপক ড. মো. আশরাফুজ্জামান, অধ্যাপক ড. মো. এনামুল হক, অধ্যাপক ড. মামুনুর রশীদ, অধ্যাপক ড. এ এন এম জাহাঙ্গীর কবীর, অধ্যাপক ড. মো. ফরিদুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. মো. আবুল হাসান, মুহাম্মদ সাজ্জাদুর রহিম, ড. মো. তারিকুল ইসলাম, ড. মো. আব্দুল খালেক, অধ্যাপক ড. মো. মাসুদ পারভেজ রানা, ড. শাহানা পারভীন, অধ্যাপক ড. মো. সাইফুল ইসলাম ফারুকী, অধ্যাপক ড. মো. রেজাউল করিম-২, অধ্যাপক ড. এফ নজরুল ইসলাম, ড. সৈয়দ সরওয়ার জাহান, প্রফেসর ড. যাহার-ই-তাশনীম, ড. মো. মোস্তাফিজুর রহমান, ড. মো. ইসমাইল তারেক, ড. মো. মাহবুবার রহমান, ড. মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, ড. মো. আতিকুল ইসলাম, ড. মো. আরিফুল হাসান, ড. মো. আবুল কালাম আজাদ, ড. এম আসাদুল হক, ড. এম মোস্তাফা কামাল, ড. মো. আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাবি


আরও
আরও পড়ুন