Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ০৫ মাঘ ১৪২৭, ০৫ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

চলছে অবাধে মাদক ব্যবসা

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের জয়ভোগা গ্রামে চলছে অবাধে মাদক ব্যবসা। আর এসব চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবীদের প্রকাশ্য বিচরণে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে এলাকাবাসী। কেউ কিছু বললে তাদের ওপর নেমে আসে খড়গ।
এলাকাবাসী ও স্থানীয় বিভিন্ন সূত্র জানায়, উপজেলার আল্লারদর্গা বাজার সংলগ্ন জয়ভোগা গ্রামে দিনরাত সবসময় চলে মাদক কারবারিদের ব্যবসা। মাদক সেবীদের নিরাপদ স্থান হওয়ায় নির্বিঘ্নে চলে তাদের ফেনসিডিল, ইয়াবা, টাফেনটা ট্যাবলেট, গাঁজা ও হেরোইনসহ বিভিন্ন ধরণের মাদক সেবনের কাজ। তবে মাদক সেবীদের আনাগোনা বেশী লক্ষ্য করা যায় বিকেল থেতে গভীর রাত পর্যন্ত। রাত যতবাড়ে মাদক সেবীদের জন্য জয়ভোগা গ্রাম পরিণত হয় অভয়ারণ্য।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকার অনেকে জানিয়েছেন, এলাকার চিহ্নিত সব মাদক ব্যবসায়ী জয়ভোগ গ্রামের মৃত কালার ছেলে টগর আলী, আছান আলী, কাদের আলীর ছেলে আতের আলী, আছান আলীর ছেলে সোহাগ, মৃত সাদু মন্ডলের ছেলে সাঈদ, মৃত মাথু মন্ডলের ছেলে মস্তো মন্ডল ওরফে মস্ত, মৃত খোদা বকসের ছেলে রফিকুল ও রফিকুলের ছেলে রুহুল দীর্ঘ দিন ধরে জয়ভোগা প্রাইমারী স্কুল পাড়া, জয়ভোগা প্রাইমারী স্কুল পাড়া, জামে মসজিদ পাড়া ও আনিকুলের মাছের খামার এলাকায় প্রকাশ্যে অপ্রকাশ্যে বিভিন্ন ধরনের মাদক বিক্রয় করে থাকে। যা এলাকায় মাদকের হাট নামে পরিচিতি রয়েছে। ওই এলাকার তালেবের দোকানসহ বেশ কিছু দোকানপাটেও চলে মাদকের ব্যবসা। আর ওইসব দোকান থেকে দূর দূরান্তের আসা বিভিন্ন মাদকসেবী ইয়াবা, ফেনসিডিল ও হেরোইন সেবন ও ক্রয় করে থাকে।
মাদক বিক্রেতা বা ব্যবসায়ীরা মাঝে মধ্যে কৌশল পরিবর্তন করে জয়ভোগা গ্রামের বাবলু কশাইয়ের বাড়ির ছাদে ও কামালের বাড়ির ভেতরে মাদক বিক্রয়ের নিরাপদ আস্তানা গড়ে তুলে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে। এছাড়াও করোনার কারঅে ওই এলাকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় সেখানকার কোমলমতি শিক্ষর্থীদের হাতেও ইয়াবা তুলে দিয়ে তাদের মাধ্যমে করা হচ্ছে মাদক ব্যবসা। আর এসব মাদক ব্যবসায়ীদের আশ্রয় প্রশ্রয় দিয়ে থকেন জয়ভোগা গ্রামের প্রভাবশালী এক মাস্টার। তার ছত্রছায়ায় মাদক ব্যবসায়ীরা অবাঁধে মাদক ব্যবসা চালালে এলাকার সাধারন মানুষ তাদের বিরুদ্ধে মুখ খোলার সাহস পায় না।
নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক ভুক্তভোগী একজন সচেতন ব্যক্তি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এসব মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে বলেও অজ্ঞাত কারণে এখন পর্যন্ত তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবন্থা গ্রহণ করা হয়নি। তাই বন্ধও হচ্ছে না তাদের মাদক ব্যবসা। এমনকি দৌলতপুর থানার এস আই সুব্রত ওই এলাকায় অভিযোগ তদন্তে গিয়ে ওইসব মাদক ব্যবসায়ীদের দ্বারা অপমানিত হয়েছেন এমন অভিযোগও রয়েছে।
তাই জয়ভোগা গ্রামের এসব মাদকের হাট বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনসহ সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে ভূক্তভোগী এলাকাবাসী।
জয়ভোগা গ্রামের মাদক ব্যবসা বন্ধে ও মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে কি না এ বিষয়ে জানতে চাইলে দৌলতপুর থানার ওসি নিশিকান্ত সরকার বলেন, শুনলাম। এমন কোন অভিযোগ পাইনি এবং জানাও ছিল না। এখন জানলাম, অভিযান চালানো হবে এবং মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মাদক-ব্যবসা

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
আরও পড়ুন