Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

গির্জা সবসময় অমানবিক, অশ্লীল আনন্দের নিন্দা করে : পোপ ফ্রান্সিস

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৩:৫৪ পিএম

রোমান ক্যাথলিক সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস বলেছেন, প্রেমময় আনন্দ-ভালোবাসা সরাসরি সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে আসে। এটি না ক্যাথলিক, না খ্রিস্টান কিংবা অন্য কিছু নয়; কেবল ঐশ্বরিক বিষয়। ভালোবাসা এবং ভালোভাবে রান্না করা খাবার খাওয়ার বিষয়কে সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে পাওয়া আনন্দ বা ঐশ্বরিক আনন্দ হিসেবে বর্ণনা করেছেন পোপ ফ্রান্সিস।
বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) নতুন একটি বইয়ে তার সাক্ষাৎকার প্রকাশ হয়েছে, সেখানেই এসব তথ্য উঠে এসেছে। ওই বইয়ে পোপ ফ্রান্সিসকে উদ্ধৃত করে বলা হয়, খাবারে এবং স্ত্রী ভালোবাসায় যে আনন্দ, তা সরাসরি সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে আসে।
পোপ ফ্রান্সিস গির্জার কিছু নেতাদের সমালোচনা করেছেন, যারা অতীতে মনে করতেন- যৌনতা ও খাবার উপভোগ করা পাপের কাজ। এতে করে খ্রিস্টানদের সম্পর্কে ভুল বার্তা গেছে। গির্জা সবসময় অমানবিক, বর্বর, অশ্লীল আনন্দের নিন্দা করে; অন্যদিকে মানবিকতা, সরলতা, নৈতিকতা ও আনন্দকে মেনে নেয়।
তিনি আরো বলেন, ‘তৃপ্তি সহকারে ভোজনের আনন্দ যা আপনাকে স্বাস্থ্যবান রাখতে সহায়তা করে, একইভাবে প্রেমপূর্ণ যৌন সহবাস ভালোবাসার সম্পর্ক আরও সুন্দর করে তুলে এবং প্রজাতির টিকে থাকার নিশ্চয়তা দেয়। এই ধারণার পাল্টা দৃষ্টিভঙ্গি মারাত্মক ক্ষতির কারণ হয়েছে যার প্রভাব আজও কিছু কিছু ক্ষেত্রে অনুভূত হয়। দারুণ রান্না করা খাবার খাওয়া ও যৌনতার আনন্দ আসে ঈশ্বরের কাছ থেকে’।
পোপ ফ্রান্সিস বলেন, সুখকে অস্বীকার করে এমন ঈর্ষাপূর্ণ নৈতিকতার স্থান নেই।  তবে এমন মনোভাব চার্চে অতীতে ছিল বলেও স্বীকার করেন পোপ। তিনি এমন মনোভাবকে খ্রিস্টান ধর্মের বার্তার ভুল ব্যাখ্যা বলে আখ্যায়িত করেন।
কার্লো পেত্রিনি নামক ইতালিয়ান এক লেখকের ‘টেরাফুটুরা’ নামক বইয়ে এমনটা দাবী করা হয়। এ বইয়ে লেখক ২০১৮ সালের মে মাস থেকে ২০২০ সালের জুলাই পর্যন্ত পোপ ফ্রান্সিসের সঙ্গে নানা বিষয়ের আলোচনা তুলে ধরেন। সূত্র : গার্ডিয়ান, নিউইয়র্ক পোস্ট



 

Show all comments
  • Jack Ali ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৮:৪২ পিএম says : 0
    May Allah guide him to Islam... Ameen
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পোপ ফ্রান্সিস


আরও
আরও পড়ুন