Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন আফগান-তালেবান শান্তি আলোচনা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:০৪ পিএম

কাতারের রাজধানী দোহায় বিবদমান দুই পক্ষের মধ্যে দীর্ঘ প্রতিক্ষিত ‘শান্তি আলোচনা’ শুরুর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আফগান সরকার ও সশস্ত্র তালেবান যোদ্ধাদের মধ্যে আফগানিস্তানজুড়ে ব্যাপক সংঘর্ষ শুরু হয়েছে। ফলে ১৯ বছর ধরে চলা যুদ্ধ-সহিংসতা সমাপ্তির যে সম্ভাবনা দেখা দিয়েছিল তা পড়েছে চ্যালেঞ্জের মুখে।
রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুযায়ী আফগান সরকারের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ফাওয়াদ আমান বলেছেন, শুক্রবার শান্তি আলোচনা শুরুর আগে আগে সশস্ত্র তালেবান গোষ্ঠী আফগানিস্তানজুড়ে নিরাপত্তা বাহিনী ছাড়াও বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের ওপর কমপক্ষে ১৮ টি হামলা চালিয়েছে।
এদিকে তালেবান মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ এক বিবৃতিতে বলেছেন, আফগান বাহিনীর একটি গাড়িবহর কুন্দুজে একটি মহাসড়কে অভিযান চালাতে আসায় তালেবান যোদ্ধারা তাদের ওপর হামলা করেছে। আফগান নিরাপত্তা বাহিনীও বাঘলান এবং জওজান প্রদেশে হামলা চালিয়েছে বলেও জানান তিনি।
বৃহস্পতিবার শুরু হওয়া দুই পক্ষের মধ্যে প্রথমবারের মতো মুখোমুখি বৈঠকের উদ্বোধনী দিনে অংশ নিয়ে দ্রুত যুদ্ধবিরতির জন্য তালেবানের প্রতি আহ্বান জানান বিভিন্ন দেশ ও সংস্থার প্রতিনিধিরা। তবে আলোচনায় অংশ নেয়া তালেবান প্রতিনিধি দলের পক্ষ থেকে যুদ্ধবিরতির কথা না বললেও আফগানিস্তান ইসলামী শরিয়াহ আইন অনুযায়ী পরিচালিত হওয়া উচিত বলে দাবি করা হয়।
ওদিকে কাতারের রাজধানী দোহায় তালেবানের সঙ্গে শান্তি আলোচনার অবকাশে আফগানিস্তানের সর্বোচ্চ জাতীয় শান্তি পরিষদের প্রধান আব্দুল্লাহ বলেছেন, অচিরেই তার দেশের সমস্যার সমাধান বা শান্তি প্রতিষ্ঠার কোনো সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না।
আব্দুল্লাহ আরো বলেন, এই আলোচনাার মাধ্যমে দেশে যুদ্ধ ও সহিংসতা বন্ধ হবে বলে জনগণ প্রবলভাবে আশা করছে। কিন্তু রাতারাতি আফগানিস্তানে সহিংসতা বন্ধ হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই।
আব্দুল্লাহ আব্দুলাহ বলেন, দোহা শান্তি আলোচনায় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর উপস্থিত থাকার কথা ছিল কিন্তু তালেবানরা তার বিরোধিতা করে জানায়, আফগান-আফগান আলোচনায় কোনো বিদেশির উপস্থিত থাকার প্রয়োজন নেই।
অপরদিকে আফগানিস্তানের ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ হানিফ আতমার তালেবানের সঙ্গে আফগান সরকারের চলমান দোহা শান্তি আলোচনা ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। তিনি রোববার বলেছেন, এই আলোচনা ভেঙে গেলে তা শুধু আফগানিস্তান নয় গোটা অঞ্চলের জন্য ভয়াবহ পরিণতি বহন করবে। আতমার বলেন, এ আলোচনার ফলাফল সম্পর্কে কোনো কিছুই বলা সম্ভব নয় এবং আমাদেরকে অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে। সূত্র : রয়টার্স, পার্সটুডে



 

Show all comments
  • elu mia ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:৩৬ পিএম says : 0
    "এই আলোচনা ভেঙে গেলে তা শুধু আফগানিস্তান নয় গোটা অঞ্চলের জন্য ভয়াবহ পরিণতি বহন করবে।" ভয়াবহ পরিণতি শুধু আমেরিকা আর ইরানের দালালদের জন্ন,মুজাহিদ দের কিছুই হবেনা।
    Total Reply(0) Reply
  • Jack Ali ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৮:৪০ পিএম says : 0
    Taliban must not sit with the Taghut/Murtard/Munafiq/Zalem government of Afganistan-- Taliban must fight to the end for the sake of Allah and wipe out these criminals and again establish the Law of Allah then again peace will prevail..
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শান্তি আলোচনা

১৬ অক্টোবর, ২০১৮
৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬

আরও
আরও পড়ুন