Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

আমি মালয়েশিয়া থেকে বলছি। কোন মেয়ের স্বামী খারাপ নেশা করে, মারধোর করে, কিন্তু স্বামীর পিতা মাতা তার সন্তানের কুকর্মের কথা জানে না, যে কারনে তাদের কাছে বলেও কোন লাভ হচ্ছে না, পিতা মাতা তার সন্তানের কুকর্মের কথা বিশ্বাস করছে না, এখন মেয়েটি কি করতে পারে? সে কি তার স্বামীকে ডিভোর্স দিতে পারবে?

আরমান ইফতি
ইমেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:৩৬ পিএম

উত্তর : এমন অবস্থায় সর্বোচ্চ ধৈর্য অবলম্বন করে স্বামীকে সংশোধনের চেষ্টা করা। পিতা মাতা ও মুরব্বীদের গোচনে আনবে। বিশ্বাস না করলে বিশ্বাস করার মতো স্বাক্ষী প্রমাণ পেশ করবে। সব চেষ্টা বিফল হলে এবং মহিলাদের পক্ষে ঘর সংসার করা আদৌ সম্ভব না হলে শরীয়ত মতো বিবাহ বিচ্ছেদ কিংবা আইনের আশ্রয় নিয়ে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করবে। এক্ষেত্রে বেগানা কোনো পুরুষের পরামর্শ, উসকানী বা প্রশ্রয় গ্রহণ করা মহিলাটির সঠিক সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে যেন প্রভাব সৃষ্টি করতে না পারে, সেদিকটিও খেয়াল রাখবে। কারণ, বাইরের কোনো পরামর্শ বা প্ররোচনা একটি সংসারকে টিকে থাকার চেয়ে ভেঙ্গে যাওয়ার দিকেই বেশী ধাবিত করে। অথচ, যে কোনো মূল্যে সংসার টিকে থাকা অধিক কাম্য।
উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী
সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতওয়া বিশ্বকোষ।
প্রশ্ন পাঠাতে নিচের ইমেইল ব্যবহার করুন।
[email protected]

ইসলামিক প্রশ্নোত্তর বিভাগে প্রশ্ন পাঠানোর ঠিকানা
[email protected]



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ