Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

ধর্ষকদের যৌন ক্ষমতা বিনষ্টের পক্ষে ইমরান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০২ এএম

ঘৃণ্যতম ধর্ষণের ঘটনাগুলোতে অভিযুক্তদের ওষুধ প্রয়োগ করে যৌন ক্ষমতা কমানোর শাস্তির প্রস্তাব দিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। স¤প্রতি লাহোরে হাইওয়ের উপরে এক মহিলার গণধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত একজনের গ্রেফতারের পর এই বার্তা দিয়েছেন ইমরান। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর মতে, এই ধরনের অপরাধীদের প্রকাশ্যে ফাঁসিতে ঝোলানোর পক্ষে তিনি। কিন্তু যেহেতু এই ধরনের শাস্তি দিলে আন্তর্জাতিক মহলের রোষের মুখে পড়তে হতে পারে, তাই রাসায়নিক প্রয়োগ করে অপরাধীর যৌনক্ষমতা কমানোই উচিত শাস্তি বলে মনে করেন ইমরান খান। লাহোরের হাইওয়েতে নিজের দুই সন্তানের সামনেই গণধর্ষণের শিকার হন এক মহিলা। গাড়ির জ্বালানি ফুরিয়ে যাওয়ায় হাইওয়ের উপরে আটকে পড়েছিলেন তিনি। এই ঘটনাকে ঘিরে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে পাকিস্তানে। রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করেছেন কয়েকশো মহিলা। রাতে কোনও পুরুষ সঙ্গী ছাড়াই ওই মহিলা কেন একা গাড়ি নিয়ে যাচ্ছিলেন, সেই প্রশ্ন তুলে নির্যাতিতাকেই দোষারোপের চেষ্টা করেন এক পুলিশ কর্মকর্তা। তার পরেই জনতার ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটে। শেষ পর্যন্ত এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এই ঘটনা সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে পাকিস্তানের একটি সংবাদমাধ্যমকে ইমরান বলেন, জঘন্যতম যৌন অপরাধগুলোর ক্ষেত্রে অভিযুক্তদের জনসমক্ষে ফাঁসি দেওয়া উচিত। কিন্তু এমন পদক্ষেপ করলে সেক্ষেত্রে অন্যান্য দেশের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্কের উপরে এর প্রভাব পড়তে পারে। কারণ ইউরোপীয় ইউনিয়নের মতো অনেক সংগঠনই মৃত্যুদÐের বিরোধী। নিউজ এজেন্সি, এসএএম।

 



 

Show all comments
  • MD. ABDUR ROUF MONDAL ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৯:৫৪ এএম says : 0
    It will be a right decision.
    Total Reply(0) Reply
  • ash ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:০৯ এএম says : 0
    KOMANO NOY !! GORAI A KETE DEWA WICHITH !!!
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Shah Alam Khan ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:৩৪ এএম says : 0
    পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী একজন প্রকৃত মুসলমানের মতই কথা বলেছেন। তিনি বলেছেন, ‘অপরাধীদের প্রকাশ্যে ফাঁসিতে ঝোলানোর পক্ষে তিনি।‘ কিন্তু আন্তর্জাতিক মহলের কারনে সেটা তিনি করতে পারছেন না তাই রাসায়নিক প্রয়োগ করে ধর্ষকের যৌন ক্ষমতা কমানোর শাস্তির প্রস্তাব দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তাঁর এই প্রস্তাব যুক্তি সম্পন্ন গ্রহণযোগ্য একটা প্রস্তাব বলে বিজ্ঞজনেরা মনেকরছেন। আবার পাকিস্তানের পুলিশ প্রাথমিক ভাবে এই ধর্ষণের জন্যে মহিলাকে দায়ী করে বলেছেন রাতের বেলায় তিনি পুরুষ সঙ্গী ছাড়া কেন একাকী যাচ্ছিলেন। এরউপর আবার জনতার ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। কাজেই পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করতে বাধ্য হয়েছে। আমাদের দেশ এখন মহিলারাই শাসন করছেন যেমন, প্রধানমন্ত্রী মহিলা, স্পিকার মহিলা, বিরোধী দলীয় নেতা মহিলা হবার পরও প্রচুর ধর্ষণের ঘটানা প্রিতদিন ঘটে চলছে কিন্তু এনাদের কোন রকম বক্তব্য নেই। ভাল সবসময়ই ভাল তাই আমরা যদিও পাকিস্তানকে ঘৃনা করি তারপরও আশাকরবো তাদের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের এই প্রস্তাবকে বাংলাদেশেও প্রয়োগের ব্যাবস্থা করা হউক।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইমরান

৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ