Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১১ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

মেসির সঙ্গী ডিপাই!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম


নতুন কোচ হিসেবে বার্সেলোনায় যোগ দেওয়ার পর থেকে রোনাল্ড কোমানের চাহিদার শীর্ষে আছেন তার স্বদেশি ফরোয়ার্ড মেমফিস ডিপাই। নেদারল্যান্ডসের এ তরুণকে লুইস সুয়ারেজের বিকল্প হিসেবে আক্রমণভাগে যুক্ত করতে চান তিনি। শেষ পর্যন্ত, কোমানের চাওয়া প‚রণ হতে চলেছে জানিয়ে প্রতিবেদন ছাপিয়েছে দ্য টেলিগ্রাফ। ডিপাইয়ের দলবদল নিয়ে অলিম্পিক লিওঁর সঙ্গে বার্সার আলোচনা প্রায় চ‚ড়ান্ত বলে দাবি করেছে ইংলিশ সংবাদমাধ্যমটি।
আক্রমণভাগে আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসির সম্ভাব্য নতুন সঙ্গী হিসেবে অনেক দিন থেকেই বার্সেলোনার পছন্দের তালিকায় সবার উপরে ছিলেন ইন্টার মিলানের লাউতারো মার্তিনেজ। তিনি নিজেও চেয়েছিলেন কাতালান শিবিরে যোগ দিতে। কিন্তু বার্সাকে ঘিরে সা¤প্রতিক সময়ের তৈরি হওয়া নানাবিধ জটিলতায় নিজের মন ঘুরিয়ে ফেলেছেন মেসির স্বদেশি এ তরুণ। ইতালিয়ান ক্লাব ইন্টারেই থেকে যেতে মনস্থির করেছেন তিনি। তাকে পাওয়ার আশা না থাকায় একরকম বাধ্য হয়েই ডিপাইকেই ম‚ল ফরোয়ার্ড হিসেবে ন্যু ক্যাম্পে নিতে চাইছে কাতালানরা। টেলিগ্রাফের সংবাদ অনুযায়ী, ডিপাইকে পেতে ২৫ মিলিয়ন ইউরো খরচ করতে হচ্ছে বার্সেলোনাকে। অবশ্য আনুষঙ্গিক খরচ হিসেবে বাড়তি পাঁচ মিলিয়ন ইউরো গুণতে হবে তাদেরকে।
২৬ বছর বয়সী ডিপাইও নাকি বার্সেলোনায় যোগ দিতে মুখিয়ে আছেন। তাছাড়া, কয়েক দিন আগে ক্লাব ছাড়ার ইঙ্গিতও দিয়েছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাবেক এই ফরোয়ার্ড। এখন পুরো বিষয়টি তার বর্তমান দল লিওঁর উপর নির্ভর করছে। তবে লাউতারো যেহেতু বার্সায় যেতে চাইছেন না, তাই বিকল্প হিসেবে খুব শিগগিরই হয়তো মেসির সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে খেলতে দেখা যেতে পারে ডিপাইকে!
‘আমাকে লাথি মারা বন্ধ করো’
স্পোর্টস ডেস্ক
দায়িত্ব পড়েছিল লিওনেল মেসিকে কড়া পাহারায় রাখার। কিন্তু তার মতো একজনকে আটকে রাখা তো চাট্টিখানি কথা নয়! উপায় না পেয়ে বারবার ট্যাকলের পথ বেছে নিয়েছিলেন জিমনাস্তিক দে তারাগোনার মিডফিল্ডার হাভিয়ের রিবেয়াস। প্রতিপক্ষের এমন কাÐে অতিষ্ট হয়ে এক পর্যায়ে মেসি রেগে গিয়ে বলেন-তুমি কি সারাক্ষণ আমাকে লাথি মারা বন্ধ করবে?
গত শনিবার প্রাক মৌসুমের প্রস্তুতিপর্বে জিমনাস্তিকের বিপক্ষে ৩-১ গোলে জেতা প্রীতি ম্যাচের প্রথমার্ধে খেলেছিলেন মেসি। ক্লাবের সঙ্গে টানাপোড়েনের অবসানের পর ওই ম্যাচ দিয়েই আবার মাঠে নামেন বার্সেলোনা অধিনায়ক। মেসিকে আটকাতে গিয়ে খুব বেশি ট্যাকল করছিলেন রিবেয়াস। তারই এক পর্যায়ে মেসি ক্ষোভ ঝাড়েন বলে ‘এল চিরিংগিতো’-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানান জিমনাস্তিকের মিডফিল্ডার, ‘(সে বলল) “এই বোকা, তুমি কি করছ? সারাক্ষণ আমাকে লাথি মারা বন্ধ করবে কি? লাথি মারা বন্ধ কর।” কথা শুনে আমি বিস্মিত হয়েছিলাম এবং তাকে বলেছিলাম, সে সেরা খেলোয়াড় এবং সে যেন ছুটতে না পারে এজন্য তাকে আমাকে কিক মারতে হবে।’ মেসি খুব রেগে থাকায় তার সঙ্গে জার্সি বদলের চাওয়াটাও প‚রণ হয়নি বলে জানান রিবেয়াস, ‘বিরতির সময় তার জার্সি পেতে চেয়েছিলাম কিন্তু সে আমার উপরক্ষুব্ধ ছিল। শেষ পর্যন্ত আঁতোয়ান গ্রিজমানের সঙ্গে জার্সি বদল করেছিলাম।’

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন