Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

রেলের ডিজাইনে ত্রুটি : সমাধান খুঁজতে পদ্মাসেতু যাচ্ছেন ২ সচিবসহ কর্মকর্তারা

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:৫৯ পিএম

পদ্মাসেতুর রেলসংযোগ প্রকল্পে যে মারাত্মক ত্রুটি ধরা পড়েছে তার সমাধান খোঁজা শুরু হয়েছে। এর অংশ হিসেবে সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ের নির্দেশে এখন সরেজমিন পরিদর্শনে যাচ্ছেন রেল সচিব, সেতু সচিব, পদ্মা রেলসংযোগ ও মূলসেতু প্রকল্পের দুই পরিচালকসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

পদ্মা রেলসংযোগ প্রকল্পের পরিচালক গোলাম ফখরুদ্দিন জানান, তারা সবাই পদ্মাসেতু সরেজমিন পরিদর্শনে যাচ্ছেন। উদ্দেশ্য- রেললাইন ডিজাইনের ক্রটির একটা সমাধান বের করা। তবে তিনি নিশ্চিত করতে পারেননি ঠিক কখন তারা রওনা দিচ্ছেন।

তবে রেল মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, সম্ভাব্য দিন হিসেবে রেল সচিব শুক্রবার পদ্মাসেতু এলাকা পরিদর্শনে যেতে পারেন। দিনভর তিনি পদ্মাসেতু এলাকায় প্রকল্পের কর্মকর্তা, প্রকৌশলী ও চীনা ঠিকাদারদের সঙ্গে কাটাবেন। এছাড়া আর সেতু সচিব বেলায়েত হোসেনের নেতৃত্বে ওই বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সেখানে থাকবেন বলে জানা গেছে। পদ্মাসেতুর দুই প্রান্তে রেললাইনের কারণে ট্রাক, ট্যাংকলরিসহ বেশি উচ্চতার যানবাহনের যাতায়াতে যেন বিঘœ সৃষ্টি না হয় সে বিষয়ে একটি সমাধান খুঁজবেন তারা।

গণমাধ্যমে কথা বলার ওপর বিধি-নিষেধ থাকায় রেল মন্ত্রণালয়ের কেউ কথা বলতে চান না। তারপরও নাম প্রকাশ না করার শর্তে মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা জানান, পদ্মা রেলসংযোগ প্রকল্পের ভুলের দায় নিতে চায় না সেতু কর্তৃপক্ষ এমনটা আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। এজন্য রেলসংযোগ প্রকল্প তাদের ডিজাইন পরিবর্তন করবে। সেক্ষেত্রে কী ধরনের ইঞ্জিনিয়ারিং সমাধান করা যায় তা নিয়ে বৈঠক হবে পদ্মা পাড়ে।
আগামী বছরের ডিসেম্বরে পদ্মাসেতু দিয়ে যান চলাচল শুরু হওয়ার কথা। করোনা ও বন্যার কারণে কাজে কিছুটা ভাটা পড়লেও এখন চলছে পুরোদমে। কিন্তু নতুন করে রেললাইন ডিজাইনে মারাত্মক ‘ত্রুটি’-ই পদ্মাসেতু চালুর ক্ষেত্রে এখন বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেতু কর্তৃপক্ষ জানায়, চলতি ডিসেম্বরের মধ্যে সেতুর সব স্প্যান বসিয়ে দেওয়ার শতভাগ প্রস্তুতি তাদের রয়েছে। প্রায় চার মাস পর আগামী সপ্তাহে মাওয়ার দিকে সেতুর ৩২তম স্প্যান বসানো হবে।

কিন্তু এখন পদ্মা রেলসংযোগ প্রকল্পের ডিজাইনের ভুলে সেতু দিয়ে ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান চলাচল নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। সেতুর দুই প্রান্তে রাস্তার ওপর দিয়ে টানা হচ্ছে রেললাইন। কিন্তু লাইনের উচ্চতা এত কম যে নিচের হেডরুম দিয়ে বেশি উচ্চতার যানবাহন সেতুতে ওঠানামা করতে পারবে না। ডিজাইনের ত্রুটি ধরার পর রেল সংযোগ প্রকল্প কাজ আপত্তি দেয় সেতু কর্তৃপক্ষ।

সেতু কর্তৃপক্ষ বলছে, প্রকল্পের শুরুতে রেলওয়েকে ডিজাইন দেওয়ার পরও তারা মারাত্মক এই ভুল করেছে। এর দায় সেতু কর্তৃপক্ষ নেবে না।

মূল পদ্মাসেতুর ভেতরে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার রেললাইন নির্মাণ কাজ করছে সেতু কর্তৃপক্ষ। এর ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি। তবে সমস্যা তৈরি হয়েছে সেতুর দুই পাড়ের রেললাইন নিয়ে, যা ঢাকা থেকে মাওয়া পর্যন্ত এবং মাওয়া থেকে পদ্মাসেতু হয়ে ওই পারের জাজিরা থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত বিস্তৃত। এটি পদ্মা রেললিংক প্রকল্প নামে পরিচিত, যার কাজ করছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। এর ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে গ্রুপ।

পদ্মাসেতু সূত্র জানায়, সেতুর মাওয়া ও জাজিরা প্রান্তে এই সমস্যা দেখা দিয়েছে। দুই পাশের কিছু অংশে রেললাইন ওপর দিয়ে গেছে। এসব জায়গায় হেডরুম যে উচ্চতায় দেওয়ার কথা, সেটি দেয়নি রেলওয়ে। এ অবস্থায় সেতুতে ওঠানামা করতে পারবে না বড় ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান।


হরিজন্টাল ও ভার্টিক্যাল- দুটো দিকেই রেলওয়ের কাজে আপত্তি দেওয়া হয়েছে। দেশের সড়কপথের হেডরুম স্ট্যান্ডার্ড হলো—-হরিজন্টাল ১৫ মিটার, ভার্টিক্যাল ৫ দশমিক ৭ মিটার, যা এখানে মানা হয়নি। এ অবস্থায় সেতুতে ট্রাক কাভার্ড ভ্যানও দুই তলা বাস যেতে পারবেনা।।

দেশে মহাসড়কগুলোতে নিয়ম অনুযায়ী হেডরুম উচ্চতা রাখতে হয় সর্বনি¤œ ৫ দশমিক ৭ মিটার। কিন্তু পদ্মা রেললিংক প্রকল্পে মাত্র ৪ দশমিক ৮ মিটার উচ্চতা দেওয়ায় এ সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে।



 

Show all comments
  • Rabiul islam ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৯:৫৩ পিএম says : 0
    যাদের গাফিলতির জন‍্য এ সমস‍্যা, তাদের দ‍ৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। একটি জাতীয় স্থাপনায় ভূল কাম‍্য নয়। এটা ছেলে খেলা নয়?
    Total Reply(0) Reply
  • HAMIDUL BARI ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১১:১৬ পিএম says : 0
    খরচ বাড়ানোর ধান্ধাবাজী।
    Total Reply(0) Reply
  • ইয়াছিন আনাম ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:৩৪ এএম says : 0
    এত বড় একটি প্রজেক্টে এমন ত্রুটি করা বেশ লজ্জাকর বিষয়।
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Kamran ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:৫৩ এএম says : 0
    বিস্তারিতভাবে সমস্যাটি আনুষঙ্গিক সকল বিষয় উল্লেখকরে ছবি ও ডিজাইন সহ মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রচার করে দেয়া হোক। আমার বিশ্বাস আমাদের মধ্যে কেউ না কেউ ডিজাইনের ত্রুটির একটা সমাধান দিতে পারবেন।
    Total Reply(0) Reply
  • Sohel ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৩:০৬ এএম says : 0
    যারা এত বড় ভুল করেছে,তাদের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি ঐ রেল লাইনের উপরে হওয়া উচিত।
    Total Reply(0) Reply
  • Md.Giasuddin ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:৪০ এএম says : 0
    I think Bangladeshi Engineer Expert Can be solved it.
    Total Reply(0) Reply
  • মাহবুবুররহমান ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:১৭ এএম says : 0
    বৃহত্তর স্বার্থে অতিসত্বর সিদ্ধান্ত নিতে হবে কি করে সংশোধন করা যায়।
    Total Reply(0) Reply
  • মো নেওয়াজ উদ্দিন চৌধুরী ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১০:১৬ এএম says : 0
    আমরা দেখেছি মগবাজার ফ্লাইওভারে উটা নামার ডিজাইনে ত্রুটির সমস্যা। খুব বড় কিছু না? বিবেচনায় নেয়নি গাড়ি ড্রাইভিং নিয়ম ডানহাতি/বাঁহাতি! বিদেশি ডিজাইনার বাঁহাতি ড্রাইভিং বিবেচনায় নিয়ে ফ্লাইওভারে নক্সা প্রণয়ন করে। আমরা সেটা বাস্তবায়ন করলাম। যখনই চুড়ান্ত হয়ে গেল পুরা ব্রিজ তখনই উটানামায় সমস্যা ধরা পরল! সমাধান হয়ছে ঠিকই কিন্ত পুরাপুরি এর ব্যাবহারে ত্রুটিগুলো থেকে গেছ। ঠিক এরকম একটি গাঁজাখুরি সমাধান খুঁজবেে নিশ্চয়। ত্রুটিগুলো পুরাপুরি সারবেনা।
    Total Reply(0) Reply
  • মো নেওয়াজ উদ্দিন চৌধুরী ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১০:২০ এএম says : 0
    আমরা দেখেছি মগবাজার ফ্লাইওভারে উটা নামার ডিজাইনে ত্রুটির সমস্যা। খুব বড় কিছু না? বিবেচনায় নেয়নি গাড়ি ড্রাইভিং নিয়ম ডানহাতি/বাঁহাতি! বিদেশি ডিজাইনার বাঁহাতি ড্রাইভিং বিবেচনায় নিয়ে ফ্লাইওভারে নক্সা প্রণয়ন করে। আমরা সেটা বাস্তবায়ন করলাম। যখনই চুড়ান্ত হয়ে গেল পুরা ব্রিজ তখনই উটানামায় সমস্যা ধরা পরল! সমাধান হয়ছে ঠিকই কিন্ত পুরাপুরি এর ব্যাবহারে ত্রুটিগুলো থেকে গেছ। ঠিক এরকম একটি গাঁজাখুরি সমাধান খুঁজবেে নিশ্চয়। ত্রুটিগুলো পুরাপুরি সারবেনা।
    Total Reply(0) Reply
  • বিশেষজ্ঞ প্যনেল ও সরকার দায়িত্বহীন ।
    Total Reply(0) Reply
  • Enamul hoque ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১১:১৭ পিএম says : 0
    এটা কোন বৈজ্ঞানিক তাত্বিক ত্রুটি এটা একটা প্রকৌশল নক্সার ত্রুটি, এটা সহজেই সমাধান যোগ্য। অস্থিরতার কিছু না।
    Total Reply(0) Reply
  • Enamul hoque ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১০:৪৭ পিএম says : 0
    এটা কোন বৈজ্ঞানিক তাত্বিক ত্রুটি এটা একটা প্রকৌশল নক্সার ত্রুটি, এটা সহজেই সমাধান যোগ্য। অস্থিরতার কিছু না।
    Total Reply(0) Reply
  • Enamul hoque ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১০:৪৭ পিএম says : 0
    এটা কোন বৈজ্ঞানিক তাত্বিক ত্রুটি এটা একটা প্রকৌশল নক্সার ত্রুটি, এটা সহজেই সমাধান যোগ্য। অস্থিরতার কিছু না।
    Total Reply(0) Reply
  • MA Hannan ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৬:৫৮ পিএম says : 0
    সেতুর ডিজাইনার, পরামর্শক সবাইকে এর দায়ভার নিতে হবে। এবং শাস্তি দিতেই হবে। দেশের বিজ্ঞ প্রকৌশলীর বোর্ড বসিয়ে পরামর্শ নিয়ে সমস্যার সমাধান করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Msu ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১:৩১ পিএম says : 0
    Solved it by Bangladeshi expert Engineer
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পদ্মা সেতু


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ