Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

চিঠিপত্র

পথশিশুদের স্থায়ী পুনর্বাসন নিশ্চিত হোক

| প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:১৮ এএম

আজকের শিশু আগামীর ভবিষ্যৎ। শিশুদের বর্তমানের ভিত মজবুত ও উন্নত হলে নিশ্চিত হবে সমৃদ্ধ ভবিষ্যৎ। শিশুদের শৈশব ও কৈশোরকাল অনাদর, অভাব, বঞ্চনা এবং সুরক্ষাহীনতায় ভারী হলে দেশ ও জাতির আগামীর উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি নিশ্চিতভাবেই বাধাগ্রস্ত হবে। আমাদের দেশের অনেক সমস্যার অন্যতম কারণ কয়েক লাখ পথশিশু। দেশে মোট পথশিশু বা ছিন্নমূল শিশু-কিশোরের নির্দিষ্ট সংখ্যা সরকার বা সংশ্লিষ্টদের জানা না থাকলেও বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্যমতে, সংখ্যাটা ৪ লাখের কম নয়। যার তিন-চতুর্থাংশই থাকে রাজধানীতে। এতিম ও পরিবারহীন শিশুদের পাশাপাশি রয়েছে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পালিয়ে আসা শিশু-কিশোরও। রাষ্ট্র প্রণীত শিশু আইনে স্বীকৃত শিশু অধিকারগুলো থেকে এরা বঞ্চিত। তাই পড়ালেখা আর খেলায় ব্যস্ত থাকার সময়ে তারা জীবনের সাথে যুদ্ধরত। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, আবাসন এবং সামাজিক নিরাপত্তার মতো অনিবার্য অধিকারগুলো থেকে বঞ্চিত হওয়ায় বিদথে যাচ্ছে পথশিশুরা। পরিণতিতে ইভটিজিং, চুরি, ছিনতাই ইত্যাদির পাশাপাশি খুন ও ধর্ষণের মতো ভয়াবহ কিশোর অপরাধও বাড়ছে। আবার, মাদকাসক্তির পাশাপাশি মাদক ব্যবসার সাথেও বাড়ছে একাংশের সংশ্লিষ্টতা। সহিংস রাজনৈতিক কর্মকান্ডেও তাদের ব্যবহার করা হয়। তাই, পথশিশুদের স্থায়ী পুনর্বাসন নিশ্চিত করা গেলে কিশোর অপরাধ কমার পাশাপাশি মসৃণ হবে দেশ ও জাতির ভবিষ্যৎ উন্নয়নের পথ। আর, কয়েক লাখ শিশু ও কিশোরের বর্তমানকে অনিশ্চিত ভবিষ্যতের পথে ছেড়ে দিয়ে দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নের প্রত্যাশিত লক্ষ্যে পৌঁছানো এককথায় অসম্ভব। এজন্য সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি প্রয়োজন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিগত প্রচেষ্টা।

আবু ফারুক
বান্দরবান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র

২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০
১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
২৬ জুলাই, ২০২০
৫ জুন, ২০২০
৯ মে, ২০২০
৫ মে, ২০২০
২৮ এপ্রিল, ২০২০
২৬ এপ্রিল, ২০২০
২৩ এপ্রিল, ২০২০
২২ এপ্রিল, ২০২০
১৭ এপ্রিল, ২০২০
১৬ এপ্রিল, ২০২০
৫ এপ্রিল, ২০২০
১৬ মার্চ, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ