Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৩ মাঘ ১৪২৭, ১৩ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

সখিপুরে এক ভন্ড কবিরাজের বিরুদ্ধে রোগীকে ধর্ষণের অভিযোগ

সখিপুর(টাঙ্গাইল)উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:২৫ পিএম

টাঙ্গাইলের সখিপুরে লেবু মিয়া (৫০) নামের এক ভন্ড কবিরাজের বিরুদ্ধে তিন সন্তানের জননী রোগীকে (৩৫) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার কালিয়া ইউনিয়নের মাচিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ১৬ সেপ্টেম্বর বুধবার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সখিপুর আমলী আদালত, টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ভন্ড কবিরাজ লেবু মিয়াকে একমাত্র আসামী করে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা করেছেন ওই রোগী।

জানা যায়, উপজেলার কালিয়া ইউনিয়নের মাচিয়া গ্রামের প্রবাসী হায়দার আলীর স্ত্রী তিন সন্তানের জননী পায়ের ব্যাথা জনিত রোগে প্রতিবেশী ওমর আলীর ছেলে লেবু কবিরাজের কাছে চিকিৎসা নিতে যান। চিকিৎসা করার এক পর্যায়ে ভন্ড কবিরাজ ওই গৃহবধূকে কু প্রস্তাব দেন। এতে ওই গৃহবধূ রাজী না হলে ভন্ড কবিরাজ তার সন্তানকে তুলে নিয়ে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে ওই গৃহবধূকে গত তিন মাসে একাধিকবার ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে ওই গৃহবধূ আন্তসত্বা হয়ে পড়লে কবিরাজ লেবু মিয়া জোরপূর্বক ওষুধ খাওয়ায়ে গর্ভপাত করায়। এতে ওই গৃহবধূ গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়েন। কিছুটা সুস্থ্য হয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য এছাক মিয়ার কাছে ঘটনা খুলে বললে মীমাংসার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। পরে গত ১৬ সেপ্টেম্বর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সখিপুর আমলী আদালত, টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে কবিরাজ লেবু মিয়াকে একমাত্র আসামী করে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন ওই গৃহবধূ ।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত কবিরাজ লেবু মিয়ার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য এছাক মিয়া বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসার চেষ্টা করা হয়েছে বলে স্বীকার করেন।

ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূ ভন্ড কবিরাজ লেবু মিয়াকে দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ

২৪ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ