Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ বৈশাখ ১৪২৮, ০৫ রমজান ১৪৪২ হিজরী

ভেন্যু নাই তাই যাযাবর বাংলাদেশের রোইং!

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:৩৬ পিএম

দেশে রোইংয়ের জন্য কোনো ভেন্যু নাই, তাই সারা বছর যাযাবরের মতই খেলা চালাতে হয় বাংলাদেশ রোইং ফেডারেশনকে। জাতীয় নৌকাবাইচ চ্যাম্পিয়নশিপ হন বুড়িগঙ্গা নদীতে। আর স্বাধীনতা দিবস ও বিজয় দিবসের খেলাগুলো হয় হাতিরঝিলে। তবে বিদেশের কোন প্রতিযোগিতায় খেলতে যাওয়ার আগে লাল-সবুজের রোয়ারদের প্রস্তুতি নিতে হয় কলকাতায় গিয়ে। অনেকটা নিজেদের ঘর নেই বলে পরের বাড়িতে বাস করার মতো অবস্থা। এ নিয়ে আক্ষেপ কম নয় বাংলাদেশ রোইং ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক হাজী মো. খোরশেদ আলমের। তিনি বলেন, ‘৪৭ বছর ধরে বাংলাদেশে রোইং খেলা চলছে। কিন্তু আজ পর্যন্ত আমাদের জন্য নির্দিষ্ট কোন ভেন্যু তৈরী হয়নি। বহুবার সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছি, কিন্তু কাজ হয়নি। যাযাবরের মতই ঘুরে ফিরে খেলা আয়োজন করতে হয় আমাদের। তবে উত্তরার ১৮ নম্বর লেকটা যদি আমাদেরকে ভেন্যু হিসেবে বরাদ্দ দেয়া হতো, তাহলে আমরা আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে একাধিক পদক এনে দেশের মান বাড়াতে পারতাম। লেকটা যদি গৃহায়ন মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল অনুমোদন নিয়ে আমাদের দিতেন, তাহলে আগামী প্রজন্ম একটি স্থায়ী ভেন্যু পেতে পারতো।’

শুধু মাত্র অনুশীলনের অভাবে ২০১৪ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার ইনচন এশিয়ান গেমসের পর ২০১৮ সালে ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তা-পালেম্বাং এশিয়ান গেমসে যথারীতি ব্যর্থ বাংলাদেশের রোয়াররা। অথচ ১৯৯৫ সালে পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডিতে অনুষ্ঠিত সেন্ট্রাল এশিয়ান রোইং চ্যাম্পিয়নশিপে রুপা জিতেছিল লাল-সবুজরা। গত বছর কলকাতায় ইনডোর রোইংয়ে চ্যাম্পিয়নও হয়েছিল বাংলাদেশ। এছাড়া চীন, দক্ষিণ কোরিয়া, ভিয়েতনামসহ বিভিন্ন দেশে খেলতে যান বাংলাদেশের রোয়াররা। কিন্তু পদকের দেখা মেলে না। অনুশীলন ভেন্যু না থাকার কারণেই বাংলাদেশ রোইংয়ের এমন ব্যর্থতা বলে দাবী খেলোয়াড়দের। জাতীয় রোইং দলের খেলোয়াড় মারুফ খান বলেন, ‘যাযাবরের মতো বিভিন্ন নদী ও লেকে আমাদের খেলতে হয়। নির্দিষ্ট একটি ভেন্যু খুবই প্রয়োজন। তা না হলে আমরা ধীরে ধীরে আন্তর্জাতিক অঙ্গণে আরো পিছিয়ে পড়বো।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রোইং
আরও পড়ুন