Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭, ১৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সব বিলিয়ে দেয়ার স্বপ্নপূরণ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:১৮ এএম

টাকা-পয়সায় ধনী তো অনেকেই হয়ে থাকেন। কিন্তু ঠিক কজন সেই সঙ্গে মনের দিক দিয়েও হয়ে ওঠেন বড়লোক? গুনলে তালিকাটা হাতের দুটো আঙ্গুলও হয়তো পেরোবে না। তবে সংখ্যাটা যতটুকুই হোক না কেন এর প্রথম দিকে যে নামটি উজ্জ্বল রঙয়ে দেখা যাবে সেটি হচ্ছে চাক ফিনি। প্রচন্ড ধনী এই আইরিশ আমেরিকান একের পর এক দান করে বিশ্বে বিশেষ নজির স্থাপন করেছেন। নামকরা ডিউটি ফ্রি শপার্সের সহ-প্রতিষ্ঠাতা সাবেক এই বিলিয়নিয়ার যেন উল্টো পথের যাত্রী। সম্পদ আর বিলাসিতায় তিনি গা ভাসাননি। ৮৯ বছর বয়স্ক ফিনি খুব সহজেই পৃথিবীর অন্যতম জাঁকজমকপ‚র্ণ প্রাসাদে বাস করতে পারলেও বাস্তবে এই মানুষটির না আছে নিজের কোনো বাড়ি, না আছে কোনো গাড়ি। আর দশটা সাধারণ মানুষের মতোই জীবনযাপন তার। ফিনির নিজের গড়া ফাউন্ডেশন ‘দ্য আটলান্টিক ফিলানথ্রপিস’ থেকে চ্যারিটি হিসেবে বিশ্বব্যাপী আট বিলিয়ন ডলারেরও বেশি দান করা । বেঁচে থাকতেই নিজের সম্পদ মানুষের কল্যাণে এভাবে বিলিয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে তিনি যে নজির দেখালেন তা আধুনিক বিশ্বে অন্যন্য ও অগ্রগণ্য। এ মাসের মধ্যে তিনি নিজের সারা জীবনের স্বপ্ন পরিকল্পনা মাফিক সম্পদের সবটুকু উজাড় করে ৩৮ বছরের ফাউন্ডেশন ‘দ্য আটলান্টিক ফিলানথ্রপিস’ এর ইতি টেনেছেন। তিনি উত্তর আয়ারল্যান্ডের স্বাস্থ্যসেবাসহ অন্যান্য খাতের উন্নতিতে ফাউন্ডেশনের অবশিষ্ট সবটুকু নগদ দান করেছেন। এছাড়া খুব স¤প্রতি তিনি নিউইয়র্ক সিটির রুজভেল্ট দ্বীপকে একটি প্রযুক্তি কেন্দ্রে রুপ দিতে সাড়ে তিনশ মিলিয়ন ডলার ব্যয় করেছেন। ফিনির অনুদানের মধ্যে ৩.৭ বিলিয়ন ডলার দেওয়া হয়েছে শিক্ষা খাতে এবং ৮৭০ মিলিয়ন ডলার ব্যয় করা হয়েছে মানবাধিকার ও সামাজিক প্রেক্ষাপটের উন্নয়নে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য খাতেও ফিনির অনুদান রয়েছে। পিপল ডট কম।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: স্বপ্নপূরণ
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ