Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৩ কার্তিক ১৪২৭, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

সেই সাংবাদিক ফরিদ হাসপাতালে

কক্সবাজার জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:১৮ এএম

মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যার ঘটনায় বরখাস্তকৃত টেকনাফের ওসি প্রদীপ বাহিনীর নির্যাতনের শিকার সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খানের শারীরিক অবস্থা এখনো উন্নত হয়নি। দৃষ্টিশক্তি লোপ, পায়ুপথে রক্তক্ষরণ, বুক ও মাথা ব্যথা নিয়ে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে কাতরাচ্ছেন।

তার স্ত্রী হাসিনা আকতার জানান, কারাগার থেকে বের হওয়ার পর কয়েক দিন কিছুটা ভালো থাকলেও বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা এতই খারাপ দেখা যাচ্ছে যে, যা আগে দেখিনি। হাসপাতালের বেডে শারীরিক যন্ত্রণায় নীরবে কাঁদছেন তিনি।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এক বছর আগে তার হাত-পা গুঁড়িয়ে দিয়ে মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে যে আঘাত করা হয়েছে তা পুরোপুরি সেরে উঠতে সময় লাগবে। তবে তার জন্য আরও উন্নত চিকিৎসারও দরকার।
ফরিদুল মোস্তফা খানের বড় ভাই সাংবাদিক গোলাম আজম খান জানান, কারামুক্তির আগে তার প্রতি যে অন্যায় হয়েছে তা নজিরবিহীন। প্রতিপক্ষরা এখনও খুন, গুম ও হামলা-মামলার হুমকি দিচ্ছে। হাসপাতালেও সাংবাদিক ফরিদ এবং তার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতা। মিথ্যা মামলার দুঃশ্চিন্তা, আর্থিক অনটন ও ভবিষ্যৎ নিয়ে চরম উদ্বিগ্ন রয়েছেন তারা। হত্যা এবং মাদক ব্যবসা নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের দায়ে ৬টি মিথ্যা মামলায় ১১ মাস ৫ দিন কারাভোগের পর গত ২৭ আগস্ট জামিনে মুক্ত হন ফরিদ।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সাংবাদিক

২৫ অক্টোবর, ২০২০
১০ অক্টোবর, ২০২০
১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন