Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ফের সক্রিয় নারী পাচারকারীরা

বেনাপোল অফিস | প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:১৭ এএম

বেনাপোলের বিভিন্ন সীমান্তে মাদক ও সোনা চোরাচালানী ব্যবসায় সক্রিয় হয়ে উঠেছে নারী পাচারকারীরা। গত ১৫ দিনে চোরাচালানের সাথে সরাসরি জড়িত ৯ নারী পাচারকারীকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।
মাদক ও সোনা চোরাচালানে অল্প সময়ে ধনী হওয়ার আশায় চোরাচালানী পেশায় জড়িয়ে পড়ছে সিংহভাগ মহিলারা। সেই সাথে অনেক নারীরা নিজেরাই চোরাচালানী গডফাদার সেজে অন্যান্য মহিলাদের দলে টেনে নিচ্ছেন।

বেনাপোলের বিভিন্ন সীমান্তে মহিলা পাচারকারীদের সংখ্যাও দিনদিন বেড়েই চলেছে। গডফাদাররা ধরা ছোঁয়ার বাইরে থাকায়, পাচারকারীরা আইনের ফাঁক ফোকর দিয়ে বেরিয়ে এসে, আবার গডফাদারদের প্রলোভনে জড়িয়ে পড়ছে চোরাচালান ব্যবসায়।

জানা যায়, শার্শা-বেনাপোল সীমান্তের কায়বা, রুদ্রপুর, গোগা, অগ্রভুলাট, পাঁচভুলাট, শালকোনা, পাকশি, ডিহি, গোড়পাড়া এবং বেনাপোলের পুটখালী, দৌলতপুর, গাতিপাড়া, সাদিপুর, রঘুনাথপুর, ঘিবা ও ধান্যখোলা সীমান্তে পাচারকারীরা অনেক বেশি সক্রিয়। আর এসব চোরাচারানী রুটগুলো সীমান্ত ঘেঁষা হওয়ায়, পাচারকারীরা নিরাপদ রুট হিসেবে এসব সীমান্তকে বেছে নিয়েছে।
বিজিবির এক পরিসংখ্যানে জানা যায়, ১০ সেপ্টেম্বর বিকালে বাগআঁচড়া তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ শার্শার রাড়িপুকুর গ্রাম থেকে পানি ভর্তি কলসিতে করে ফেনসিডিল বহনের সময় রিপন হোসেনের স্ত্রী কাকলী বেগমকে (২৫) ৩৩ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করে।

একই তারিখে বিকালে বেনাপোল পোর্ট থানাধীন গয়ড়া গ্রাম থেকে যশোরের অভয়নগর থানার গুয়াখোলা ইকবালের স্ত্রী পারভীন বেগম বুলু (২৮) ও কোতয়ালী থানার নরেন্দ্রপুর (রুপদিয়া) গ্রামের আ. আজিজ খানের মেয়ে রোকেয়া খাতুনকে (২০) ২ কেজি গাঁজাসহ আটক করে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ।
৮ সেপ্টেম্বর রাতে শার্শা উপজেলার সাতক্ষীরা-নাভারণ সড়কের আমতলা এলাকা থেকে বাগআঁচড়া তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ থানার সাতপুর গ্রামের শুভ আহমেদের স্ত্রী জুলেখা বেগম (২৫) ও একই গ্রামের আব্দুল্লাহর স্ত্রী আকলিমা খাতুন খাদিজাকে (২৬) ১১০ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করে। বর্তমানে তারা বেনাপোল পোর্ট থানার তালসারী গ্রামে বসবাস করছেন।

৬ সেপ্টেম্বর সকালে বেনাপোল পৌর এলাকার ভবেরবেড় গ্রাম থেকে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ যশোরের কোতয়ালী থানার নরেন্দ্রপুর (আমড়াতলা) এলাকার আ. আজিজের মেয়ে মনি (২৭) ও বাগেরহাট সদরের যাত্রাপুর গ্রামের আইয়ুব আলী শেখের মেয়ে ফাতেমা খাতুনকে (২৫) ৩ কেজি গাঁজাসহ আটক করে। ৫ সেপ্টেম্বর রাতে শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়া সাতমাইল এলাকার আমতলা থেকে বাগআঁচড়া তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ একাধিক মামলার আসামি রিজিয়া বেগম ওরফে তানিয়া (৪০) কে ৩৭ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করে।

২৮ আগস্ট রাতে বেনাপোল পোর্ট থানার সাদিপুর সীমান্ত থেকে ওই গ্রামের দুখে মিয়ার স্ত্রী বানেছাকে (৩৫) ৫৭ পিস (৯ কেজি ২শ’) গ্রাম ওজনের সোনার বারসহ আটক করে বিজিবি সদস্যরা।

শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম খান বলেন, আমরা মাদক উদ্ধারের পাশাপাশি, যারা এ ব্যবসার সাথে সংশ্লিষ্ট রয়েছে তাদের চিহিৃত করে আইনের আওতায় আনার ব্যবস্থা গ্রহণ করছি। কোন মাদক ব্যবসায়ী এবং তাদের মদদদাতাদের ছাড় দেয়া হবে না।

বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি মামুন খান বলেন, আমরা মাদক বিরোধী অভিযান ও মাদক উদ্ধার কার্যক্রম অভিযান অব্যাহত রেখেছি। পুলিশ মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে কোন গডফাদার কেউ জড়িত থাকে তাদের সাথে কোন আপস নয়। মাদক ব্যবসায়ীদের পক্ষে যে সুপারিশ করবে তাকেও ছাড় দেয়া হবে না।

৪৯ বিজিবির কমান্ডিং অফিসার লে.কর্নেল সেলিম রেজা জানান, বিজিবি গত এক বছরে ১৮ কোটি টাকার মাদক, অস্ত্র ও সোনার চালান আটক করেছে। কোন মাদক ব্যবসায়ীকে ছাড় দেয়া হবে না।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নারী

১৯ নভেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ