Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

কৃষকবিরোধী আইনের প্রতিবাদে মোদির মন্ত্রিসভা ছাড়লেন দলসহ অকালি নেত্রী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১১:১৫ এএম

ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির জোট ছাড়লেন পাঞ্জাবের অকালি দলের নেত্রী হরসিমরত কউর বাদল। কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষকবিরোধী আইনের প্রতিবাদে গতকাল বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) নরেন্দ্র মোদির মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন হরসিমরত কউর বাদল।

পদত্যাগপত্রে দলের নেত্রী হরসিমরত জানান, কৃষকবিরোধী কোনো সিদ্ধান্তে আমরা অংশগ্রহণ করব না। অকালি দলের দীর্ঘ ইতিহাসের কথা স্মরণ করে তিনি বলেন, তারা চিরকালই কৃষকদের স্বার্থে আন্দোলন করে এসেছেন। চাষীদের বিশ্বাস তাদের কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, এ ক্ষেত্রে কোনও আপস করা যাবে না। এনডিএ সরকারের পাঞ্জাবের স্বার্থে কাজ করে যাবে বলেও তিনি তার পদত্যাগপত্রে আশা প্রকাশ করেন।

যদিও ওই বিলগুলি যে মন্ত্রিসভা বৈঠকে পাস হয়েছিল, সেখানে উপস্থিত ছিলেন হরসিমরত। পরবর্তীতে দলের কৃষককর্মী সমর্থকদের চাপে সুর বদল করে এনডিএর অন্যতম পুরনো শরিক শিরোমণি অকালি দল। পাঞ্জাবের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী প্রকাশ সিংহ বাদলের পুত্রবধূ হরসিমরতই ছিলেন ওই রাজ্যের একমাত্র কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।
পদত্যাগপত্র দেয়ার পর টুইট করে অকালি নেত্রী জানান, কৃষক ‘ভাইবোনদের’ স্বার্থে তার এই সিদ্ধান্ত। হরসিমরতের এই সিদ্ধান্তের পরেও অবশ্য অকালি দলের সভাপতি সুখবীর সিংহ বাদল জানিয়েছেন, মন্ত্রিসভা ছাড়লেও বাইরে থেকে তারা মোদি সরকারকে সমর্থন দিয়ে যাবেন।

বিজেপি দাবি করেছে, বিলগুলি কৃষিক্ষেত্রে বড় আকারের সংস্কার নিয়ে আসবে। যদিও এই বিলগুলি পাঞ্জাব এবং হরিয়ানার কৃষকদের উদ্বেগ বাড়িয়ে তুলেছে। কয়েক সপ্তাহ ধরেই তাঁরা বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। কৃষি-বিপণন সংক্রান্ত বিলগুলি নিয়ে ইতিমধ্যেই তিনটি অধ্যাদেশ জারি করেছে মোদী সরকার। চলতি অধিবেশনেই সেগুলি পাশ করাতে মরিয়া বিজেপি।

অন্য দিকে কংগ্রেস-সহ অন্যান্য বিরোধীদের আশঙ্কা, এই বিলগুলির হাত ধরে কৃষিপণ্যে কৃষকদের অধিকার কমে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। খবর এনডিটিভি ও আনন্দবাজার পত্রিকার।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ