Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

নভেম্বরে আসছে ওবামার স্মৃতিচারণমূলক বই ‘অ্যা প্রমিজড ল্যান্ড’

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৬:১২ পিএম

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা তার বহুল প্রতীক্ষিত স্মৃতিচারণমূলক বই প্রকাশের তারিখ ঘোষণা করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) এক বিবৃতিতে বারাক ওবামা জানান, আগামী নভেম্বরে ‘অ্যা প্রমিজড ল্যান্ড’-এর প্রথম খণ্ড প্রকাশিত হবে। বইটি দু'টি খণ্ডে প্রকাশিত হবে বলে ইতিমধ্যে জানা গেছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হয়ে যাওয়ার মাত্র দুই সপ্তাহ পর ১৭ নভেম্বর বইটি প্রকাশিত হবে। নিউইয়র্ক টাইমসের খবর।
ওবামা টুইটে বলেন, ‘একটি বই লিখে শেষ করার মতো অনুভূতির সঙ্গে আর কোনো কিছুর তুলনা হয় না। আমি এটি করতে পেরে গর্বিত।’ প্রকাশনী সংস্থা পেঙ্গুইন র‌্যানডম হাউস বলছে, ৭৬৮ পাতার ওই স্মৃতিকথা ২৫টি ভাষায় প্রকাশ করা হবে।
যুক্তরাষ্ট্রের ৪৪তম প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এর আগে তিনটি বই লেখেন। এগুলো হলো ‘ড্রিমস ফ্রম মাই ফাদার’, ‘দ্য অডেসিটি অব হোপ’ ও শিশুদের জন্য লেখা বই ‘অব দ্য আই সিং’
বইটিতে ওবামা বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক সংকট, স্বাস্থ্যসেবা সংস্কার আইন, ২০১১ সালে পাকিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের অভিযানে আল-কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনের নিহত হওয়ার ঘটনা উল্লেখ করেছেন।
বারাক ওবামার স্মৃতিচারণমূলক বইটির উচ্চ চাহিদা বিবেচনা করে প্রকাশনী সংস্থা পেঙ্গুইন র‌্যান্ডম হাউজ তাদের অধীন ছাপাখানা প্রতিষ্ঠান ক্রাউনকে ৩০ লাখ ইউএস এডিশন ছাপানোর নির্দেশ দিয়েছে। এ বিশাল সংখ্যক বই যুক্তরাষ্ট্রে ছাপাতে না পেরে ১০ লাখ কপি জার্মানির ছাপাখানায় প্রস্তুত করে ক্রাউন। তিনটি জাহাজে করে বইগুলো যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে আসার পরিকল্পনা করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এ বইটি মার্কিন ইতিহাসে শ্রেষ্ঠ বেস্টসেলার হতে যাচ্ছে বলে আশা করছে পেঙ্গুইন।
উল্লেখ্য, আগামী ৩ নভেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের চূড়ান্ত ভোট-গ্রহণ। এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের অনেক প্রেসিডেন্ট হোয়াইট হাউজ ছাড়ার পর স্মৃতিচারণমূলক বই রচনা করেছেন। তবে এবার বারাক ওবামা তার বই প্রকাশে দুই বছর সময় নিলেন। যা অন্যান্য অনেক প্রেসিডেন্টের চেয়ে বেশি।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। ২০০৮ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাটিক দলের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন লাভ করেন। তিনি ওই বছরের ৪ নভেম্বরের জাতীয় নির্বাচনে জয়ী হন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৪তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে নির্বাচিত হন। ২০১২ সালের ৭ নভেম্বর ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী মিট রমনিকে হারিয়ে পুনরায় রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন তিনি। ২০১৭ সালে তার মেয়াদ শেষ হয়। তথ্যসূত্র: নিউইয়র্ক টাইমস



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন