Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীর ইন্তেকাল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:১১ পিএম | আপডেট : ৮:৪১ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

হেফাজতে ইসলামের আমির দেশের সর্বজন শ্রদ্ধেয় আলেমেদ্বীন আল্লামা শাহ আহমদ শফী ইন্তেকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন। আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানী ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ১০৩ বছর।

দেশের কওমি শিক্ষার কিংবদন্তি এ আলেমের ইন্তেকালে চট্টগ্রামসহ সারাদেশে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। হাটহাজারী মাদরাসায় তার ইন্তেকালের খবর পৌঁছলে কান্নায় ভেঙে পড়েন ছাত্র-শিক্ষকেরা।

বিকেল সোয়া ৪টায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় নেয়া হয়। আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তির কিছুক্ষণের মধ্যে তিনি ইন্তেকাল করেন। পাঁচলাইশ থানার ওসি আবুল কাশেম ভূঁইয়া বলেন, বিকেল সোয়া ৪টায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ মাঠ থেকে তাকে নিয়ে এয়ার অ্যাম্বলেন্স ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালের উদ্দেশে রওনা দেয়।

তিনি চমেক হাসপাতালের ৩য় তলার ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটের (আইসিইউ) ৮ নম্বর বেডে তার চিকিৎসাধীন ছিলেন। ছাত্র আন্দোলনের মুখে হাটহাজারী দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার মহাপরিচালক (মুহতামিম) পদ থেকে পদত্যাগ করার পর অসুস্থতাবোধ করায় তাকে হাসপাতালে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে তাকে অ্যাম্বুলেন্সে হাটহাজারী মাদ্রাসা থেকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়।



 

Show all comments
  • Ismail Hossain Shrabon ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:১৬ পিএম says : 1
    ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন
    Total Reply(0) Reply
  • H Arif Mahmud ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:১৮ পিএম says : 1
    আল্লাহ উনাকে জান্নাতুল ফেরদাউস দান করুন
    Total Reply(0) Reply
  • Saifuddin Ahmed ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:৫৯ পিএম says : 1
    স্বাধীন বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ধর্মীয় নেতা আল্লামা শাহ আহমদ শফী যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকবেন কোটি কোটি তাওহীদী জনতার হৃদয়ে।
    Total Reply(0) Reply
  • Mahedi Hasan Nadim ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:১৮ পিএম says : 1
    আললাহ রাববুল আল আমিন ওনাকে জাননাতুল ফিরদাউসের সর্বোচ্চ ইস্তক দান করুন আমিন
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Hasan Ali ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:১৯ পিএম says : 1
    আল্লাহ উনাকে জান্নাত বাসী করুক।
    Total Reply(0) Reply
  • Maw Fazlul Haqe ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:১৯ পিএম says : 1
    আল্লাহ তায়ালা জান্নাতের উচু মাকাম দান করুন। আমীন
    Total Reply(0) Reply
  • Md Rejaul Karim ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:২৪ পিএম says : 1
    ইন্নানিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাহি রাজিউন।।। আমি তার আত্নার মাগফেরাত কামনা করচ্ছি।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Rejaul Karim ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:২৪ পিএম says : 1
    ইন্নানিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাহি রাজিউন।।। আমি তার আত্নার মাগফেরাত কামনা করচ্ছি।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Younus ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:৫৯ পিএম says : 1
    সারাজীবন শিক্ষকতা করেছেন, যাদের নিজের সন্তানের মতো মানুষ করেছেন, যাদেরকে দেশের বুকে পরিচিত করে দিয়েছেন, আজ তারা এমন আচরণ হুজুরের সাথে করেছেন তা মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে! আল্লাহ ওনাকে জান্নাতুল ফেরদৌস নসীব করুন।
    Total Reply(0) Reply
  • বিএম সবুজ পাটোয়ারি ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৮:০০ পিএম says : 1
    পাঠ্যপুস্তক থেকে নাস্তিকতা দূরীকরণ,কওমি মাদ্রাসার স্বীকৃতি আদায়ের জন্য আহমেদ শফির অবদান অনস্বীকার্য, কেউ ভূলের ঊর্ধ্বে নয়, আল্লাহ তুমি ওনাকে বেহেশত নসিব কর
    Total Reply(0) Reply
  • Jahirul Islam ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৮:০১ পিএম says : 0
    সত্যি আজ খুব কষ্ট হচ্ছে এমন একজন ব্যক্তি পৃথিবী থেকে বিদায় নিল আল্লাহ হুজুর এর সব ভুল ত্রুটি ক্ষমা করে হুজুরকে জান্নাতের উচ্চ মাকাম দান করুন
    Total Reply(0) Reply
  • Fakhar Uddin ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৮:৪৮ পিএম says : 0
    আল্লাহ উনাকে জান্নাতুল ফেরদৌসের বাসিন্দা হিসেবে কবুল করুন-আমিন।
    Total Reply(0) Reply
  • আশরাফ ইবনে আকন্দ ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৮:৫২ পিএম says : 1
    আল্লাহ উনাকে জান্নাতের উচ্চ মাকাম দান করুন। আমী।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Iqbal ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৯:০০ পিএম says : 1
    তার এবং তাঁর... হায়রে ইনকিলাব, সাংবাদিকতা করেন সম্মানী ব্যক্তিকে সম্মান দিতে জানেন না! বাংলাদেশের একজন সম্মানিত আলেম বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যক্তির সাথে কৃপণতা করে চন্দ্রবিন্দুর ব্যবহার টুকু করলেন না!
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Shah Alam Khan ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১০:১৭ পিএম says : 1
    হেফাজতে ইসলামের আমির দেশের সর্বজন শ্রদ্ধেয় আলেমেদ্বীন আল্লামা শাহ আহমদ শফী সাহেব আমাদেরকে রেখে নিজে নাফেরার দেশে চলেগেলেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন। শ্রদ্ধেয় আলেমেদ্বীনের ইন্তেকালে আমি এই সুদুর কানাডার রাজধানী অটোয়া থেকে আমার পরিবার বর্গ ও কানাডা বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটির সভাপতি হিসাবে সংগঠনের পক্ষথেকে শ্রদ্ধেয় আলেমেদ্বীন আল্লামা শাহ আহমদ শফী সাহেবের মৃত্যুতে গভীর দুঃখ প্রকাশ করে ওনার বিদেহি আত্মার শান্তি কামনা করছি। সাথে আমি প্রয়াত শ্রদ্ধেয় আলেমেদ্বীনের রেখে যাওয়া পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।
    Total Reply(0) Reply
  • Bangla Konto ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১১:৩৮ পিএম says : 0
    আল্লামা আহমদ শফী সাহেবের মৃত্যুতে গোটা জাতি শোকাহত। কিন্তু উনার মৃত্যুকে কেন্দ্র করে আলেমগণ পারস্পরিক মুখোমুখি হওয়ার উপক্রম দেখা দিচ্ছে। এ প্রেক্ষিতে কয়েকটি কথা বলতেই হয়। যেমন ১. উনার জন্ম ১৯২০ সালে, মৃত্যু ২০২০ সালে। হায়াত ১০০ বছর, মতান্তরে ১০৪ বছর। হায়াত ফুরালেই কেবল কারো মৃত্যু হয়, তার আগে নয়, এ কথাটা সবার মনে রাখা উচিত। ২. উনি স্বজ্ঞানে থাকা অবস্থায় নিজ ছেলেকে বহিস্কার করেছেন এবং নিজেও দায়িত্ব ছেড়ে দিয়েছেন। ছদরে মুহতামিম হিসেবেই মৃত্যু বরণ করে অন্যদের জন্য অনুসরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন। তা হল, আমৃত্যু কারো কোন দায়িত্বে থাকা উচিত নয়। ৩. শুরার সিদ্ধান্ত ঘোষণা হওয়ার সাথে সাথেই উনাকে এম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়া হয়। এর পর যাই ঘটুক তার জন্য আন্দোলন কারীদেরকে দায়ী করা যায় না। ৪. উনার মৃত্যুর জন্য যদি কেউ দায়ী থাকে তবে তা হবে উনারই ছেলে। কারণ যার কারণে এত আন্দোলন তাকে নিরাপদ রেখে আন্দোলন কারীদেরকে দূষারুপ করা বিদ্বেষী মনোভাবের পরিচায়ক মাত্র। ৫. আল্লাহর সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত। আল্লাহ চেয়েছেন, আগে আগাছা-পরগাছা পরিস্কার করাবেন, পরে সে পরিস্কারককেই প্রত্যাহার করে নেবেন। কারণ উনি থাকতেই যা সম্ভব ছিল তা উনার মৃত্যুর পর সম্ভব হতনা। আল্লাহই মহা হেকমতওয়ালা। ৬. উনার জানাজা ঢাকায় হওয়া এবং দাফন চট্টগ্রামে হওয়াটাই যৌক্তিক। কারণ উনি ছিলেন জাতীয় নেতা এবং চট্টগ্রামেরই স্থায়ী বাসিন্দা। চট্টগ্রামের লোকেরা কবর জিয়ারত করতে পারবেন যে কোন সময়। কিন্তু ঢাকার লোকেরা একবারই জানাজা পড়তে পারবেন। এ ক্ষেত্রেও যদি ছেলে ভুল সিদ্ধান্ত নেয় তবে বুঝতে হবে, তার সব ভুল সিদ্ধান্তই পিতাকে বিতর্কিত করেছে বারবার। ৭. যারা আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছে তাদের কিছু দিন নিরাপদে সতর্ক থাকা উচিত। কারণ আবেগের কাছে অনেক সময় বিবেক অসহায় হয়ে পড়ে। ৮. এখন সবাই বসে বসে চিন্তা করুন, উনার প্রাপ্ত বয়স খ্যাতি ক্ষমতা বিত্ত জনসমর্থন ইত্যাদি দেশ-জাতি-ধর্মের কোথায় কিভাবে কত পরিমানে উপকারে এসেছে, আরো কত সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জ ছিল। ৯. জানাজার আগে অনেকেই আবেগ তাড়িত ও গরম কথা বলতে পারে। অনেকেই অনেকের উপর চড়াও হতে পারে, প্রতিশুধ নেয়ার চেষ্টা করতে পারে। তাই ঢাকায় জাতীয় ভাবে জানাজা হয়ে চট্টগ্রামে এনে দাফন করাটাই নিরাপদ হবে সবার জন্য। নতুবা কোন কারণে পরিস্থিতি খারাপ হলে সরকারও ট্যাকেল দিতে পারবেনা। ১০. সড়ক পথে আনতে দেরী হলে এয়ারএম্বুলেন্সে আনাই নিরাপদ হবে। ঢাকায় মৃত্যু হয়ে চট্টগ্রামে দাফন হওয়াটা জিয়াউর রহমানের বিপরিত হলেও শেখ মুজিবের সাথে মিল থাকবে। আল্লাহ সবাইকে জান্নাতবাসী করুন, আমীন।
    Total Reply(1) Reply
    • Mohammed Shah Alam Khan ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৯:১৯ পিএম says : 0
      সুন্দর বিশ্লেষন। ধন্যবাদ

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ