Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বেঙ্গালুরুতেও কোচ-কোহলি ধ›দ্ব!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

 বিরাট কোহলি ভারতের টেস্ট ইতিহাসে এখন সবচেয়ে সফল অধিনায়ক। জয়ের হার ৬০ শতাংশ। ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে জয়ের হার ৭১.৮৩ শতাংশ। কিন্তু এই কোহলিই যখন আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর অধিনায়ক, তখন? বেঙ্গালুরুর সমর্থকেরা হয়তো দীর্ঘনিশ্বাস ছাড়বেন। অধিনায়ক হিসেবে জাতীয় দলের সাফল্যটা ফ্র্যাঞ্চাইজিতে অন‚দিত করতে পারছেন না কোহলি। আর তাই এত বছরেও আইপিএল জিততে পারেনি বেঙ্গালুরু। এর পেছনে কোহলিরও ভ‚মিকা আছে বলে মনে করেন বেঙ্গালুরুর সাবেক কোচ রে জেনিংস।
২০০৯ থেকে ২০১৪- এ সময় বেঙ্গালুরু কোচের দায়িত্বে ছিলেন জেনিংস। তখন কোহলিকে খুব কাছ থেকেই দেখেছেন এ দক্ষিণ আফ্রিকান। তার মতে, কোহলি তখন কিছু ভুল খেলোয়াড়কে সমর্থন করায় এর আগে শিরোপা জয়ের সুযোগ হারিয়েছে বেঙ্গালুরু। দলের কিছু খেলোয়াড়কে নির্দিষ্ট ভ‚মিকায় দেখতে চেয়েছিলেন জেনিংস কিন্তু কোহলির ভিন্নমতের কারণে তা হয়নি। ক্রিকেট ডট কমকে জেনিংস বলেন, ‘আইপিএল নিয়ে ফিরে দেখতে হলে বলব, প্রতিটি দলে ২৫-৩০জন খেলোয়াড় থাকে এবং সবার দেখাশোনা করার দায়িত্ব কোচের। কিন্তু অনেক সময় দলে সে একা থেকে অসহযোগিতাও করেছে। অনেক সময় ভুল খেলোয়াড়কে সমর্থন করেছে। কিন্তু এ জন্য তাকে দোষারোপের কিছু নেই। আমি হয়তো কিছু খেলোয়াড়কে নির্দিষ্ট পজিশনে ব্যাট করা কিংবা অন্য কোনো পরিস্থিতিতে নির্দিষ্ট কাউকে দিয়ে বল করাতে চেয়েছি, কোহলি ভিন্নমত পোষণ করেছে।’
জেনিংসের অধীনে দুবার আইপিএলের ফাইনালে উঠেছে বেঙ্গালুরু। আইপিএলে নেতৃত্ব দেওয়াকে কঠিন কাজ বলেই মনে করেন এ কোচ, ‘আইপিএল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে একদমই আলাদা। ছয় সপ্তাহ সময়ের মধ্যে কেউ ফর্মে ফেরে কেউ পারে না। আমি থাকতে কিছু খেলোয়াড়ের আরও বেশি ম্যাচ খেলা উচিত ছিল। কিন্তু সে (কোহলি) তা মনে করেনি। তবে এসব এখন অতীত। দিনে দিনে তার উন্নতি দেখে ভালো লাগছে, আইপিএল ট্রফিও জিততে শুরু করবে সে।’ তবে জেনিংস মনে করেন আইপিএলে সাফল্য পাবেন কোহলি। তার সেরাটা এখনো বাকি বলেই মনে করেন তিনি, ‘অনেক সময় সমালোচনা হয় সে খেলোয়াড়দের সঙ্গ খুব একটা পছন্দ করে না। কিন্তু এটাও দেখতে হবে অধিনায়ক হিসেবে তার ওপর অনেক চাপ থাকে। তার ক্রিকেট-মস্তিষ্ক অবিশ্বাস্য, মানদÐটা অনেক উঁচুতে তুলেছে। হ্যাঁ, কয়েকবার যুক্তি-তর্ক হলেও তার আচরণ খুব ভালো। অধিনায়ক হিসেবেও সে বেড়ে উঠছে। তার সেরাটা দেওয়া এখনো বাকি।’ ভারত জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবেও কোচের সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়েছেন কোহলি। অনিল কুম্বলে কোচ থাকতে তার সঙ্গে সম্পর্ক ভালো ছিল না কোহলির।
আজ থেকে আইপিএলের নতুন মৌসুম শুরু হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। মরুর দেশে বাগ্য বদল হয় কি না কোহলির সেটিই দেখার।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কোহলি

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০
২৭ নভেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন