Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সৈয়দপুরে মাদক বিক্রেতাদের বাড়ি হোক গণশৌচাগার

সৈয়দপুর (নীলফামারী) জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৯:৫০ পিএম

নীলফামারীর সৈয়দপুরে মাদক বিক্রেতাদের বাড়িকে গণশৌচাগার করার দাবিতে বাইসাইকেল শোভাযাত্রা বের করা হয়। শনিবার তোলা ছবি। প্রথম আলো
নীলফামারীর সৈয়দপুরে মাদক বিক্রেতাদের বাড়িকে গণশৌচাগার করার দাবি এবং মাদকের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মাদকবিরোধী সাইকেল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘আমাদের প্রিয় সৈয়দপুর’ এ শোভাযাত্রার আয়োজন করে।

আজ শনিবার বেলা ১১টায় সৈয়দপুর উপজেলা শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ থেকে সাইকেল শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নাসিম আহমেদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সৈয়দপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) আতাউর রহমান।
ইউএনও নাসিম আহমেদ বলেন, ‘মাদক সমাজকে ধ্বংস করে। আমাদের তরুণ সমাজকে এ থেকে ফিরে আসতে হবে। মাদকের বিরুদ্ধে উপজেলা প্রশাসন নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। আপনারা আমাদের তথ্য দিয়ে সাহায্য করুন।’

শোভাযাত্রায় অংশ নেন ‘আমাদের প্রিয় সৈয়দপুর’ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক ও শিক্ষার্থী। শোভাযাত্রাটি শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ থেকে শুরু হয়ে উপজেলা সদর ও গ্রামের প্রধান প্রধান সড়ক ও মহল্লা প্রদক্ষিণ করে গোলাহাটে গিয়ে শেষ হয়। ফাঁকে বিভিন্ন পয়েন্টে মাদকবিরোধী পথসভা করে।
‘আমাদের প্রিয় সৈয়দপুর’–এর প্রতিষ্ঠাতা নওশাদ আনসারী বলেন, সৈয়দপুরে এখন হাত বাড়ালেই মিলছে মাদক। স্কুল-কলেজের ছাত্র থেকে শুরু করে সব বয়সের অনেক মানুষ আজ মাদকে আসক্ত। অথচ মাদক বিক্রেতারা দেদার বিক্রি করছেন মাদক। এমন পরিস্থিতিতে মাদকের বিরুদ্ধে এই কর্মসূচি। মাদক বিক্রেতাদের বসতবাড়িকে গণশৌচাগার করার দাবি তাঁদের।

সৈয়দপুরে মাদকের বাড়তি প্রভাবের বিরুদ্ধে বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়েছে ‘আমাদের প্রিয় সৈয়দপুর’। প্রতিটি ওয়ার্ডে পথসভা, প্রচারপত্র বিলি ও মাদক বিক্রেতাদের নাম–ঠিকানা প্রকাশ এবং তাঁদের সামাজিকভাবে বর্জনে যাবতীয় কর্মসূচি পালন করবেন বলে জানান সংগঠনের নেতারা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ