Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৪ কার্তিক ১৪২৭, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

বাড়িতে মাহরাম পুরুষও অন্য মহিলাদের সামনে একজন মহিলার কতটুকু সতর ঢাকা জরুরি? বিশেষ করে গরমের সময় সবসময় মাথায় কাপড় না রাখলে চলে কিনা? কামিজের হাতা কিছু গুটিয়ে রাখার অবকাশ আছে কিনা?

আমেনা ইসলাম
ই-মেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:৩২ পিএম

উত্তর : পর পুরুষের সামনে নারীর সর্বাঙ্গ সতর। নিরাপদ পরিবেশে, নেককারদের সমাজে, যারা দৃষ্টিতে হেফাজতের ব্যাপারে একশ ভাগ শরীয়ত মেনে চলেন, সেখানে প্রয়োজনে নারী হাতের তালু পায়ের পাতা ও নিজের প্রয়োজন পরিমাণ চোখ খোলা রাখতে পারে। যেসব পুরুষের সামনে নারীর পর্দা নেই, তাদের সামনে স্বচ্ছন্দে হাটাচলা ও জরুরী কাজকর্ম সম্পাদন পরিমাণ হাত পা ও চেহারা খোলা রাখতে পারে। পর নারী বা সাধারণ মহিলাদের সামনে আপন পুরুষদের কাছাকাছি পর্দা ও পোষাক মেন্টেইন করবে। যা স্বাভাবিক সুস্থমনা ও শালীন মহিলাদের বৈশিষ্ট্য। স্বামীর সামনে আরও আটপৌড়ে ও ঘরোয়া পোষাকে থাকতে পারে। সতরের এই শ্রেণী বিন্যাস নারীদের পর্দা ও পোষাকে বিভিন্নতা এনে দেয়। সুতরাং পরিবেশ ও মানুষের পরিবর্তনে নারীর পর্দা ও পোষাকে বিধানেও রুপান্তর আছে। 

উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী
সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতওয়া বিশ্বকোষ।
প্রশ্ন পাঠাতে নিচের ইমেইল ব্যবহার করুন।
[email protected]

ইসলামিক প্রশ্নোত্তর বিভাগে প্রশ্ন পাঠানোর ঠিকানা
[email protected]



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন

প্রশ্ন : পতিতাদের জানাযার ব্যাপারে একটি মাসআলা সোশ্যাল মিডিয়ায় আসার পরে আমার মনে প্রশ্ন জেগেছে যে, বর্তমানে পতিতালয়ে অনেক নারী আছে, যারা সেচ্চায় এ কর্মে যায়না (বরং কোন প্রতারকের মাধ্যমে বিক্রি হয়ে বা অন্য কোন উপায়) আবার তারা ওখান থেকে বের হয়ে আসতেও পারেনা, কারণ তাদেরকে কঠিন বেষ্টনীর মধ্যে কড়া পাহাড়ায় রাখা হয়। এক পর্যায় কোনো উপায়ন্ত না পেয়ে এসব নারীরা পতিতাবৃত্তিতে যুক্ত হয়ে সারা জীবন এ বন্দী শিবিরে তাদের যৌবন বিলিয়ে দিতে বাধ্য হয়। এসমস্ত বন্দী পতিতা নারীদের মৃত্যুর পর জানাযার নামায পড়ার বিধান কি?

উত্তর : অবস্থাভেদে মাসআলাও ভিন্ন হয়। বাস্তবেই যাদের এমন জীবন ঈমান ও তওবার ভিত্তিতে তাদের সাথে সামাজিক আচরণও ভিন্ন হতে পারে। কিছুদিন আগে পুলিশ ও

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ