Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ৮ কার্তিক ১৪২৭, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

বাজে হারের কৈফিয়ত নেই সুলশারের

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

নিজেদের মাঠে শুরুটা ভালো হলনা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। ধারহীন ফুটবল খেলারর মাশুল গুণে ক্রিস্টাল প্যালেসের কাছে হারে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ২০২০-২১ মৌসুম শুরু করল উলে গুনার সুলশারের দল।

গতপরশু রাতে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ৩-১ গোলে হারে ইউনাইটেড। প্রথমার্ধে দুই গোল হজমের পর দ্বিতীয়ার্ধে আরও এক গোল খায় তারা। দনি ফন দে বেকের গোলে ম্যাচে ফেরার সুযোগ পেলেও শেষ রক্ষা হয়নি প্রতিযোগিতার সফলতম দলটির।

মুখোমুখি দেখায় ২২ লিগ ম্যাচে ক্রিস্টালের বিপক্ষে হার ছিল মাত্র ১টি। লিগের ইতিহাসে ইউনাইটেডের চেয়ে বেশিবার (১৯বার) জয়ে সূচনা পায়নি আর কোনো দল। কিন্তু তাদের খেলায় প্রতিফলিত হয়নি কিছুই। গতবার প্রথম জয়ের দেখা পাওয়া ক্রিস্টাল ধরে রাখল ধারাবাহিকতা।
ঘরের মাঠে গুছিয়ে ওঠার আগেই গোল খেয়ে বসে গত মৌসুমে তৃতীয় স্থানে থেকে লিগ শেষ করা ইউনাইটেড। সপ্তম মিনিটে অ্যান্ড্রোস টাউনসেন্ডের গোলে পিছিয়ে যায় ম্যানইউ। এরপর থেকে একের পর এক সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয় সুলশারের শিষ্যরা। উল্টো স্পট কিক থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন উইলফ্রেড জাহা। এই আত্মতৃপ্তির সুযোগেই কি-না ব্যবধান কমান আয়াক্স থেকে ইউনাইটেডে আসা ফন দে বাকের বুদ্ধিদ্বীপ্ত গোল। কিন্তু শেষ দিকে জাহার আরেক গোল সেই স্বস্তিটুকুও দেয়নি ম্যানচেস্টারের প্রাচীন দলটিকে। হারের গ্লানি নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইউনাইটেড।

সাম্প্রতিক ফর্ম, ট্রান্সফার মার্কেটে পরিকল্পনাহীনতা নিয়ে মৌসুমের শুরুতেই বিপাকে রেড ডেভিলরা। ম্যাচ শেষে স্কাই স্পোর্টসের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে কোন অজুহাতের দিকে গেলেন না সুলশার, ‘এই ম্যাচ থেকে কিছু পাওয়ার মতো যোগ্য ছিলাম না আমরা। আমরা খুব মন্থর ও বাজে শুরু করেছি।’ নতুন মৌসুম শুরুর আগে নিজেদের প্রস্তুতির ঘাটতিও রাখঢাক না রেখেও বলেছেন নরওজিয়ান কোচ, ‘দুই দলের মধ্যে প্রস্তুতির তফাৎও দৃশ্যমান। তারা চারটা প্রীতি ম্যাচ খেলে প্রস্তুতি নিয়েছে। মৌসুমে তাদের এটি তৃতীয় ম্যাচ। আমরা কেবল প্রথম ম্যাচ খেললাম। গত সপ্তাহে আমাদের একটা প্রীতি ম্যাচ ছিল। কিন্তু এই ম্যাচ দেখালো আমরা এই জায়গায় অনেক পিছিয়ে।’ ফিটনেসের দিকেও ইঙ্গিত করে প্রতিপক্ষের চেয়ে নিজেদের বেহাল দশার কথা আড়াল করেননি ইউনাইটেড কোচ, ‘আমরা শারীরিক সামর্থ্যরে তফাৎও আঁচ করেছি। তারা আমাদের থেকে নিখুঁত ছিল, শক্তিশালী আর গতিময় ছিল।’ তবে ম্যাচে একটি পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নিয়ে হতাশা লুকাননি তিনি, ‘এটা খুবই কঠোর সিদ্ধান্ত ছিল। পেনাল্টি সিদ্ধান্তটা খুবই কঠোর। তারপর ডেভিডের ওই গোল বাঁচিয়ে দেওয়াটাও আমাদের বিপক্ষে গেল। কিন্তু নিয়ম তো নিয়মই যা নিয়ে কথা বলা যায় না।’

একই রাতে ঘরের মাঠে পয়েন্ট হারানোর শঙ্কা উড়িয়ে জয়ের দেখা পায় আর্সেনাল। ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেডের বিপক্ষে শেষ দিকের গোলে পুরো ৩ পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছেড়েছে মিকেল আর্তেতার দল। এমিরেটস স্টেডিয়ামের ম্যাচটি ২-১ গোলে জেতে আর্সেনাল। ফুলহ্যামের মাঠে ৩-০ গোলে জেতা ম্যাচ থেকে তিনটি পরিবর্তন এনে খেলতে নামা আর্সেনাল বল দখলে আধিপত্য করলেও শুরুতে তাদের আক্রমণে ধার ছিল না। তবে গোলের খেলা ফুটবলে শেষটা ঠিকই হয়েছে স্বস্তির। আলেকসঁদ লাকাজেত স্বাগতিকদের এগিয়ে নেওয়ার পর সফরকারীদের সমতায় ফেরান আন্তোনিও। শেষ দিকে জয়সূচক গোলটি করেন এডি এনকেটিয়া।

দিনের প্রথম ম্যাচে ডমিনিক কালভার্ট-লুইনের হ্যাটট্রিকে ওয়েস্ট ব্রমউইচ অ্যালবিওনকে ৫-২ গোলে হারানো এভারটন দুই ম্যাচে দুই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে। সমান পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আর্সেনাল। ম্যানইউকে হারানো ক্রিস্টাল প্যালেসের পয়েন্টও ৬।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ