Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

পাঁচ বছরের পুরস্কার একদিনে দিলো বাফুফে!

বাংলাদেশের ঘরোয়া ফুটবল

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৯:৫৫ পিএম

ঘরোয়া ফুটবলের বিভিন্ন লিগের জমে থাকা গত পাঁচ বছরের পুরস্কার নির্বাচনের আগেই দিলো বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। ২০১৫ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল), বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লিগ (বিসিএল), প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বিভাগ লিগের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দলের ট্রফি দেয়া হয়নি। ফলে দীর্ঘ পাঁচ বছরে জমে যায় ২৩টি পুরস্কার। যে পুরস্কারগুলো সোমবার বিকেলে একসঙ্গেই বিতরণ করছে বাফুফে। এদিন মতিঝিলস্থ বাফুফে ভবনের সামনের মাঠে বিশাল প্যান্ডেল ও মঞ্চ স্থাপন করে জাঁকজমক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ক্লাবগুলোর কর্মকর্তাদের হাতে ট্রফি তুলে দেয়া হয়। বাফুফের অধীনস্থ সংস্থা ঢাকা মহানগরী ফুটবল লিগ কমিটির উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে পুরষ্কার বিতরণ করেন বাফুফের সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন, সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী ও সদস্য মাহফুজা আক্তার কিরণ ও মহানগরী ফুটবল লিগ কমিটির চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ।

২০১৪ সালে সর্বশেষ ক্লাবগুলোকে ট্রফি দেয়া হয়েছিল। দীর্ঘ এই সময়ে বিপিএল, বিসিএল, প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বিভাগ লিগের যে ট্রফিগুলো ক্লাবগুলোর পাওনা ছিল তা কাল একমঞ্চ থেকেই বিতরণ করা হয়।

দীর্ঘ ৫ বছরেও ক্লাবগুলোকে ট্রফি দেয়া হয়নি। তবে হঠাৎ করেই বাফুফে নির্বাচনের আগে তা বিতরণ করা হয়েছে। এটা নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তুললেও জানা গেছে এটা বাফুফের নিয়মিত কর্মকা-ের একটি। ঢাকা মহানগরী ফুটবল লিগ কমিটি সুত্রে জানা গেছে, বিপিএল ও বিসিএল ছাড়া অন্য লিগগুলোর ট্রফি কয়েক বছর পরপরই দেয়া হয়। তবে এবার সেই সঙ্গে বিপিএল ও বিসিএলের কয়েকটি রানার্সআপ ট্রফি প্রদান বাকি ছিল। সেগুলোও বিতরণ করা হয়েছে এই অনুষ্ঠানে।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন বলেন, ‘আজকের অনুষ্ঠানে যেসব দল চ্যাম্পিয়ন তাদের অভিনন্দন জানাই। আশাকরি ভবিষ্যতেও আপনাদের মঞ্চে পাব চ্যাম্পিয়ন হিসেবে। আমার এতটুকুই বলার যে- আপনারা ফুটবল খেলেছেন, ফুটবল খেলেন এবং ভবিষ্যতেও চ্যাম্পিয়ন হোন। কষ্ট করে আসার জন্য ধন্যবাদ জানাই সবাইকে।’ বিতরণ করা ২৩টি ট্রফির মধ্যে ছয়টি চ্যাম্পিয়ন, ১১টি রানার্সআপ, তিনটি তৃতীয়, দুটি চতুর্থ ও একটি পঞ্চমস্থানের।

২০১৫ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত এই পাঁচ বছরে দু’টি করে লিগ হয়েছে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বিভাগের। ৬টি করে ক্লাবকে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ ট্রফি দেয়া হয়েছে। ট্রফি পায় প্রথম বিভাগ লিগে ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন স্বাধীনতা ক্রীড়া চক্র, রানার্সআপ ওয়ারী ক্লাব ও ২০১৮-১৯ মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন কারওয়ান বাজার প্রগতি সংঘ ও ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাব। দ্বিতীয় বিভাগ লিগে ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন নবাবপুর ক্রীড়া চক্র ও রানার্সআপ কসাইটুলি সমাজ কল্যাণ পরিষদ, ২০১৮-১৯ মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন মুগদা সমাজ কল্যাণ ও ক্রীড়া সংঘ এবং রানার্সআপ ইস্ট অ্যান্ড ক্লাব। তৃতীয় বিভাগ লিগে ২০১৫ সালে চ্যাম্পিয়ন দিলকুশা স্পোর্টিং ক্লাব এবং রানার্সআপ বিকেএসপি ও ২০১৮ সালে চ্যাম্পিয়ন আরামবাগ ফুটবল একাডেমি এবং রানার্সআপ কদমতলা সংসদ। এছাড়া বিপিএলের ২০১৪-১৫ মৌসুমের রানার্সআপ শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র, ২০১৭ সালের রানার্সআপ শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব এবং ২০১৮-১৯ মৌসুমের রানার্সআপ ঢাকা আবাহনী লিমিটেডকেও ট্রফি দেয়া হয়। ট্রফি পায় বিসিএলের ২০১৪-১৫ মৌসুমের রানার্সআপ আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ ও ২০১৮-১৯ মৌসুমের রানার্সআপ উত্তর বারিধারা ক্লাবও।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন