Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

‘ড. মোর্শেদ রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার’

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০৭ এএম

প্রতিহিংসাবশত বিধিবর্হিভূতভাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের প্রফেসর ড. মোর্শেদ হাসান খানকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)। বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতি সংগঠনটির সভাপতি ও মহাসাচিব ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এই ন্যাক্কারজনক কাজের জন্য তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।
ড্যাব সভাপতি প্রফেসর ডা. হারুন আল রশিদ ও মহাসচিব ডা. মো. আব্দুস সালাম বলেন, অবৈধ ভোটারবিহীন স্বৈরাচারী সরকার পেশাজীবীদের বাকরুদ্ধ করার এক নীল নকশার অংশ হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে এই কর্মকাÐ করেছে। ড. মোর্শেদকে একটি পত্রিকায় নিবন্ধ লেখার অজুহাতে চাকরি থেকে অব্যাহতি দিয়েছে। অথচ ওই নিবন্ধের জন্য তিনি আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এতে স্পষ্ট প্রতীয়মান হয় যে, প্রফেসর মোর্শেদ রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার।
ড্যাব নেতৃবৃন্দ বলেন, প্রফেসর মোর্শেদকে যে প্রক্রিয়ায় চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে তা বিশ্ববিদ্যালয় আইন ১৯৭৩ এর পরিপন্থী। তারা প্রফেসর ড. মোর্শেদের অবৈধ অব্যাহতির আদেশ প্রত্যাহার ও চাকরিতে পুনঃবহালের দাবি জানান।
এদিকে অপর এক বিবৃতিতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেল ও সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার বলেন, বিভিন্ন বিশ^বিদ্যালয় থেকে ভিন্নমতের শিক্ষকদেরকে সরকারের মদদে চাকরিচ্যুত করা হচ্ছে। গণতান্ত্রিক অধিকার হরণের মাধ্যমে দেশকে এক ভয়াবহ গভীর সংকটে নিপতিত করেছে বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার। দুর্নীতির বিরুদ্ধে কেউ যাতে প্রতিবাদ করতে না পারে সেই জন্য তারা একদলীয় শাসন ব্যবস্থার মাধ্যমে হিং¯্র হয়ে উঠেছে। প্রফেসর ড. মোর্শেদ হাসান খানকে চাকরি থেকে বরখাস্তের ঘটনায় বিশ^বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যে অমানবিকতার পরিচয় দিয়েছে তা নজীরবিহীন। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে ড. মোর্শেদকে চাকরিতে পুর্নবহাল করার দাবি জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাজনৈতিক

১২ অক্টোবর, ২০২০
৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন