Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সিলেট-কুমিল্লা মহাসড়কে ভয়ঙ্কর তিন চাকার যান

কামাল আতাতুর্ক মিসেল | প্রকাশের সময় : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০৬ এএম

সিলেট-কুমিল্লা মহাসড়ক। বাস ও ট্রাকের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ভয়ঙ্কর তিন চাকার যানবাহনের সংখ্যা। মহাসড়কে যাত্রী পরিবহনে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে সিএনজি ও ব্যাটারি চালিত রিকশা ও অটোরিকশা। গতকাল দুপুরে সিলেট-কুমিল্লা মহাসড়কের ব্রাক্ষণবাড়িয়া থেকে কুমিল্লার ক্যান্টনমেন্ট পর্যন্ত পুরো মহাসড়কে বেপরোয়াভাবে চলাচল করতে দেখা গেছে এসব যানবাহন। অথচ মহাসড়কে ওভারটেকিং ও পাল্লা দেওয়ায় দুর্ঘটনার শঙ্কা বাড়ছে। আইনের তোয়াক্কা করছেন না চালকরা। কোথাও কোথাও প্রশাসনকে ম্যানেজ করেই এসব তিন চাকার যান চলাচল করছেন বলে জানান চালকরা। অথচ মহাসড়কে নিরাপত্তা বাড়ানোর জন্য সিএনজি, ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা, ইজিবাইকসহ তিন চাকার সব যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ হলেও সিলেট-কুমিল্লা মহাসড়কের মুরাদনগর, দেবীদ্বার ও মিরপুর পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশের সামনেই অবাধে চলাচল করছে এসব অবৈধ যানবাহন। যানবাহনগুলো সাধারণ গতির চেয়ে বেশি গতিতে চলায় প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে।

সম্প্রতি সিলেট-কুমিল্লা মহাসড়কের ময়নামতি এলাকায় বাস ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে মা ও মেয়ে নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন- কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলার এরশাদ মিয়ার স্ত্রী কুলসুম (৩৬) ও তাদের তিন বছরের মেয়ে শাহিনা। ময়নামতি হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাফায়েত হোসেন দুর্ঘটনার বিষয়ে বলেন, এরশাদ মিয়া তার স্ত্রী ও দুই মেয়েকে নিয়ে মোটরসাইকেলে দেবীদ্বার থেকে ময়নামতি যাচ্ছিলেন। ময়নামতির কাছাকাছি টুটবাগান এলাকায় জনতা পরিবহণ নামের একটি বাস মোটরসাইকেলটিকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলে এরশাদ মিয়ার স্ত্রী ও এক মেয়ে নিহত হন।

এর আগে গত ২৬ জুলাই কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের কুমিল্লা বুড়িচং উপজেলার হরিণধরা নামক স্থানে ট্রাক ও লেগুনা সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছিলেন আরো ১০ জন। এছাড়া ১১ জুলাই ভোরে সিলেট-কুমিল্লা মহাসড়কের বেগমাবাদ এলাকায় ট্রাকের চাপায় সিএনজি অটোরিকশার দুই যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো চারজন। কোম্পানীগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী গোলাম রাব্বানী দৈনিক ইনকিলাবকে বলেন, মহাসড়কে যদি বিভিন্ন গতির যানবাহন একসঙ্গে চলে এবং সেগুলোর মধ্যে যদি গতির পার্থক্য বেশি হয় তাহলে দুর্ঘটনার আশঙ্কা বেড়ে যায়। দেবিদ্বার সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র আসাদ খন্দকার দৈনিক ইনকিলাবকে বলেন, প্রায় চার বছর আগে হাইকোর্ট থেকে মহাসড়কে তিন চাকার যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তা সত্তে¡ও চট্টগ্রাম-কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের দেবিদ্বারে প্রায় চার হাজার সিএনজিচালিত অটোরিকশা অবাধে চলাচল করছে। অন্যদিকে নিজেদের খেয়াল-খুশিমতো যাত্রীদের কাছ থেকে ভাড়াও আদায় করছে তারা। বিশেষ করে দিনের বেলায় প্রতিটি স্টেশনে গাড়ি সিরিয়াল মেনটেন করে চললেও সন্ধ্যার পরে তারা যাত্রীদের কাছ থেকে দ্বিগুণ থেকে তিন গুণ ভাড়া নিচ্ছে। তাদের সিন্ডিকেটের কাছে জিম্মি হয়ে অনেকটা বাধ্য হয়েই যাত্রীরা অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে যাতায়াত করছেন বলে অভিযোগ করেন।

এদিকে চলতি বছরের ১ লা জুলাই বেপরোয়া গতিতে চলাচলের কারণে তিন চাকার যান বন্ধে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া বাস মালিক-শ্রমিকরা। এসময় তারা তিন চাকার যানবাহন চলাচল বন্ধের দাবিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিক্ষোভ মিছিলও করে। মিছিল থেকে মহাসড়কে তিন চাকার যানবাহন চলাচল বন্ধের দাবি জানিয়ে হাইওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে স্লোগান দেয়া হয়। বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হানিফ বলেন, উচ্চ আদালত থেকে মহাসড়কে তিন চাকার যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কিন্তু হাইওয়ে পুলিশকে ম্যানেজ করে অবাধে তিন চাকার যানবাহন মহাসড়কে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। এতে করে পায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে। তাই মহাসড়কের তিন চাকার যানবাহন চলাচল বন্ধে আমারা সাতদিনের আল্টিমেটাম দিলেও ওই সময়ে সিএনজি বন্ধে কাজের কাজ কিছুই হয়নি।

এ বিষয়ে মিরপুর হাইওয়ে থানার ওসি আব্দুর রব বলেন, আমাদের অগোচরে নিষিদ্ধ তিন চাকার যান মহাসড়কে চলছে। কিছুদিন পরপর গাড়ি আটক করে চালকের বিরুদ্ধে মামলাও দেওয়া হচ্ছে। তবে চালকরা বলছে, পুলিশকে মাসোহারা দিয়েই সিলেট-কুমিল্লা মহাসড়কে গাড়ি চালাচ্ছেন তারা।
তবে হাইওয়ে পুলিশ সুপার নজরুল ইসলাম বলেন, মহাসড়কে তিন চাকার ও অবৈধ যানবাহন চলাচলের কোনো সুযোগ নেই। আগামীদিন থেকে ওই মহাসড়কে নিয়মিত চেকপোস্ট বসিয়ে চেক করা হবে। তিন চাকার অথবা অবৈধ যানবাহন দেখা গেলেই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মহাসড়ক

১৯ অক্টোবর, ২০২০
৪ অক্টোবর, ২০২০
২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০
৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন