Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

শিরক বিদআত মুক্ত করতে আজীবন চেষ্টা চালিয়েছেন আল্লামা আহমদ শফী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৯:৩০ পিএম

শিরক বিদআত ও কুসংস্কার মুক্ত করতে আজীবন চেষ্টা চালিয়েছেন আল্লামা শাহ আহমদ শফী (রহ.)। আল্লামা আহমদ শফী নাস্তিক-মুরতাদ ও ইসলাম বিরোধী আন্দোলনে সিপাহীসালার এর ভূমিকা পালন করেছেন। আল্লামা আহমদ শফী ওয়াজ নসিহতের মাধ্যমে সাধারণ ধর্মপ্রাণ জনসাধারণকে অন্যায় অনাচার সন্ত্রাস ও দুর্নীতিমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠার শিক্ষা দিয়েছেন।
আজ শনিবার বাদ আসর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সাহানে হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফী (রহ.) এর স্মরণে আন্তর্জাতিক মজলিসে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়াত বাংলাদেশের উদ্যোগে আলোচনা ও বিশেষ দোয়া মাহফিলে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। সংগঠনের সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা হাফেজ মো. নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে এতে আরো বক্তব্য রাখেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বোর্ড অব গভর্নরস ও বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান আলহাজ মিসবাহুর রহমান চৌধুরী, মাওলানা আবুল কালাম, মাওলানা মাহফুজুল হক, মাওলানা জুনাইদ আল হাবিব, মাওলানা মহিউদ্দীন রব্বানী, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির মহাসচিব মাওলানা মুসা বিন ইযহার, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ঢাকা মহানগরী সভাপতি মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী, মাওলানা মামুনুল হক, মাওলানা জহুরুল ইসলাম, মাওলানা খোরশেদ আলম কাসেমী, মাওলানা আব্দুল কাইয়ূম সুবহানি, মাওলানা মো. ইউনুছ ঢালী, মাওলানা আশেক উল্লাহ, মাওলানা রাশেদ বিন নূর। পরে মরহুম আল্লামা শফীর রূহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়।



 

Show all comments
  • Mohammed Shah Alam Khan ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১০:০৩ পিএম says : 0
    শিরক বিদআত ও কুসংস্কার মুক্ত করতে আজীবন চেষ্টা চালিয়েছেন আল্লামা শাহ আহমদ শফী (রহ.)। আল্লামা আহমদ শফী নাস্তিক-মুরতাদ ও ইসলাম বিরোধী আন্দোলনে সিপাহীসালার এর ভূমিকা পালন করেছেন। আল্লামা আহমদ শফী ওয়াজ নসিহতের মাধ্যমে সাধারণ ধর্মপ্রাণ জনসাধারণকে অন্যায় অনাচার সন্ত্রাস ও দুর্নীতিমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠার শিক্ষা দিয়েছেন। আল্লামা শফী (রহঃ) সম্পর্কে উপরের খবরে এসব কথা বলা হয়েছে আমি ব্যাক্তিগত ভাবে এর প্রতিটি শব্দকে বিশ্বাস করি। আল্লামা শফী (রহঃ) বাংলাদেশের ইসলামের আলো হিসাবে ছিলেন তার অবদান জাতী কোনদিন ভুলবে না। তারই প্রচেষ্টায় সুপ্রতিষ্ঠিত হয়ে সরকারের অনুমোদন পেয়েছে কওমি শিক্ষা আর সেই শিক্ষায় শিক্ষিত হতে যাওয়া ছাত্ররা তার বিরুদ্ধে আন্দোলন করে ওনাকে মর্মাহত করেছেন যেজন্যে তিনি দুঃখ সহ্য করতে না পেরে পৃথিবী থেকে বিদায় নিয়ে চলে গেছেন। আল্লাহ্‌ কওমি মাদ্রাসার আন্দোলনকারী ছাত্রদেরকে তাদের ভুল বুঝার ক্ষমতা প্রদান করুন এবং সেই ভুলকে সংশোধন করারও শক্তি প্রদান করুন। আমিন
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন